ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ২ বৈশাখ ১৪২৮, ০২ রমজান ১৪৪২ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

যানজটে নাকাল শ্রীপুর পৌরবাসী

এম এ মতিন, শ্রীপুর (গাজীপুর) থেকে | প্রকাশের সময় : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০১ এএম

গাজীপুরের শ্রীপুর পৌর শহরটি এক সময় রেলগেট থেকে চৌরাস্তা পর্যন্ত এক পলকে সব খালি দেখা যেত। কিন্তু সময়ের পরিবর্তনে এখন একটি বাহনের পেছনে আর একটি বাহন থাকায় রাস্তাতো দূরে থাক কোন দিকেই যাওয়া সম্ভব না। দিনদিন বিভিন্ন যানবাহনের সাথে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা আর ড্রাম ট্রাক যুক্ত হয়ে পুরো রাস্তাই দখল করে নিয়েছে তারা। যার ফলে শ্রীপুর-মাওনা সড়কের টেংরা রাস্তাার মোড় থেকে হাইস্কুল পর্যন্ত যানজট লেগেই থাকে। আগে রিকশা দিয়ে চৌরাস্তা থেকে রেলগেট যেতে সময় লাগত ১ থেকে দেড় মিনিট, এখন অনেক সময় এক ঘণ্টায়ও যাওয়া যায় না। যত্রতত্র সিএনজি, অটোরিকশা ও লেগুনার স্ট্যান্ড সৃষ্টি করে যার যার মতো যানবাহন চালাচ্ছে। এদিকে মরার ওপর খারার ঘাঁ। নিয়ন্ত্রণহীন অটোরিকশা ও ড্রাম টাকের সাথে রেল লাইনের সিগনাল যানজটকে আরও দীর্ঘস্থায়ী করে তুলছে।
জানা যায়, ঢাকা ও জামালপুর থেকে শ্রীপুর রেল স্টেশনে গড়ে প্রতিদিন ২৮টি ট্রেন চলাচল করে। এগুলোর মধ্যে ১২টি ট্রেন শ্রীপুর স্টেশনে যাত্রা বিরতি দেয় এবং বাকিগুলো বিরতিহীনভাবে চলে। পাঁচ মিনিটের জন্যও যদি ট্রেন আসা যাওয়ার জন্য সিগনাল ফেলা হয় তবে যানবাহনের কারণে চলাফেরা দুঃসাধ্য হয়ে পড়ে। আবার অনেক সময় ট্রেন ক্রসিংয়ে পড়লেতো যানজটে কয়েক ঘণ্টা।
সরেজমিনে দেখা যায়, শ্রীপুর পৌর শহরে রাজাবাড়ি, বরমি, মাওনা, তেলিহাটি কাওরাইদ, গেসিংগা ইউনিয়নসহ মাস্টারবাড়ি, ফালুমার্কেট, টেংরা এলাকা থেকে গড়ে কয়েক হাজার অটোরিকশা চলাচল করে। পাশাপাশি ড্রাম ট্রাকসহ অন্যান্য যানবাহনতো আছেই। অপরদিকে সড়কের দু’পাশে অবস্থিত রড সিমেন্টের দোকানসহ পাইকারি দোকানগুলোর সামনে মেইন রোডে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ট্রাক দাঁড় করিয়ে রেখেই মালামাল লোড-আনলোড করা হয়। যার কারণে সকাল থেকেই যানজট স্থায়ী রুপ নেয়।
উপজেলার সাতখামাইর এলাকার মোমেন প্রধান ঢাকায় চাকরি শেষে সন্ধ্যার ট্রেনে শ্রীপুর রেলস্টেশনে নামেন। পরে অটো রিকশায় ওঠে যানজটে বসে থাকেন প্রায় দেড় ঘণ্টা।
কাওরাইদ ইউনিয়নের হযরত আলির পুত্র গাজীপুরের আইনজীবী এড. মোশারফ জানান, তারাতারি বাড়িতে যাওয়ার জন্য ট্রেনে করে শ্রীপুর আসি। কিন্তু রেলস্টেশন থেকে অটোরিকশা দিয়ে শ্রীপুর চৌরাস্তা হাফ কিলোমিটার আসতে সময় লাগে ১ ঘণ্টা। শ্রীপুর বাজারের অনিয়ন্ত্রিত অটোরিকশার কারণে সৃষ্ট যানজটের কবলে পড়ে সাধারণ মানুষ নাকাল হয়ে পড়ছে। এসব অটেরিকশা নিয়মতান্ত্রিকভাবে চলাচল না করায় প্রায়সই ঘটছে দুর্ঘটনা।
এসব বিষয়ে স্থানীয় সাংবাদিকসহ সচেতন নাগরিকেরা শ্রীপুর উপজেলা প্রশাসন ও পৌর কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার অভিযোগ জানালেও কোন ব্যবস্থা না নিয়ে উদাসীনতার পরিচয় দিচ্ছেন। উপজেলা আইন শৃঙ্খলা সভায় অটোরিকশা ও ড্রাম ট্রাক নিয়ন্ত্রণে কয়েকবার সিদ্ধান্ত হলেও তার বাস্তবায়ন কাগজে কলমেই রয়ে গেছে।
এদিকে শ্রীপুরের যানজট নিরসনের জন্য গাজীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন সবুজ কিছুদিন পূর্বে রেললাইন পরিদর্শন করে তার ওপর ফ্লাইওভার নির্মান করার আশ্বাস দেন। ফ্লাইওভারটি নির্মিত হলে যানজট অনেকাংশেই কমে যাবে বলে তিনি আশা করেন।
শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাসলিমা মোস্তারি জানান, উপজেলা চেয়ারম্যান ও আমরা পৌর শহরের যানজট নিরসনে উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। খুব শিগগিরই ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এ প্রসঙ্গে মেয়র আনিছুর রহমান জানান, পৌর নির্বাচনের জন্য যানজট নিরসন করতে একটু বিলম্ব হয়েছে। খুব শিগগিরই অটোরিকশা নিয়ন্ত্রণে আনা হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন