ঢাকা সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ২৯ চৈত্র ১৪২৭, ২৮ শাবান ১৪৪২ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

‘বন্ধুত্ব’ এবং ‘সততা’ নিয়ে মিমি-নুসরতের দ্বিমত!

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১:১৬ পিএম

ব্যক্তিগত জীবন, রাজনীতির ময়দান থেকে সিনেমার সেট… মিমি চক্রবর্তী এবং নুসরাত জাহান যেন একে অন্ত প্রাণ। তাদের বন্ধুত্বের কথা সবারই জানা। একে-অপরকে আবার আদর করে ‘বনু’ বলেও সম্বোধন করেন। দিন কয়েক আগেই দিদি নম্বর ওয়ান-এর মঞ্চে মিমির জন্য পাত্র খোঁজার আবেদন রেখেছিলেন নুসরাত। সবমিলিয়ে দুই বন্ধুর জমজমাট রসায়ন। কিন্তু এবার কি সেই সমীকরণে বদল এল? প্রশ্ন তো উঠছেই। নেপথ্যে দুই তারকা-সাংসদের ইনস্টাগ্রাম স্টোরি। অনুরাগীরা তো এমনটাই বলছেন।

মিমির লেখা স্টেটাস বলছে, “মিথ্যাচার করলে সকলেরই প্রিয় হয়ে ওঠা যায়, আর সমস্যাটা হয় যখন কেউ সততার পথে হাঁটে। তখন সে সকলের কাছেই অপ্রিয় হয়ে ওঠে।” ইনস্টাস্টোরিতে তার এহেন জীবনদর্শনের পরই নুসরাত জাহান দু’টি ইনস্টাস্টোরি আপলোড করেন। যার বিষয়বস্তুও অদ্ভূতভাবে ‘বন্ধুত্ব’ এবং ‘সততা’। নুসরতের কথায়, “কিছু মানুষ একটু স্পটলাইটে আসার জন্য দীর্ঘকালের বন্ধুত্বকেও নির্দ্বিধায় ঠকাতে পারে।” এরপরের স্টেটাসেই উল্লেখ করেন ‘সততা’র কথা। সেটাতে লেখা- “জীবনে কে তোমার সামনে সততা দেখাল, সেটা গুরুত্বপূর্ণ নয়, তবে কে তোমার অনুপস্থিতিতেও সততা দেখাবে, সেটাই আসল।”

নুসরাতের সোশ্যাল অ্যাকাউন্টে এহেন দর্শন নজর এড়ায়নি নেটজনতার! ব্যস, অমনি প্রশ্ন উঠতে শুরু করে যে, সাংসদ-অভিনেত্রী এক্ষেত্রে কোন বন্ধুর ঠকানোর কথা বলতে চেয়েছেন? কারণ, আপাতদৃষ্টিতে মিমি-নুসরাত দু’জনের ভার্চুয়াল বক্তব্য পরস্পর বিরোধী। মিমি যখন সততার কথা বলছেন, নুসরত তখন উল্লেখ করেছেন বন্ধুত্বের কথা, বিশ্বাসঘাতকতার কথা। একই সময়ে দুই বান্ধবীর এই এমন পরস্পরবিরোধী পোস্ট কি নিছকই কাকতালীয় না, এর নেপথ্যে রয়েছে কোনও বিশেষ কারণ? নাকি ‘ইউভ’-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হিসেবে টলিপাড়ার অন্য এক নায়িকার নাম নিয়ে গুঞ্জন শুরু হওয়ায় মনোক্ষুণ্ণ নুসরতের? উত্তর কিন্তু অধরাই। - ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন