ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ০৯ বৈশাখ ১৪২৮, ০৯ রমজান ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

পি কে হালদারের সহযোগী রিমান্ডে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

আয়বহির্ভ‚ত সম্পদ অর্জন ও অর্থ পাচার মামলায় এনআরবি গেøাবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক পি কে হালদারের সহযোগী অসীম কুমার মিস্ত্রিকে তিন দিন রিমান্ডে নেয়ার অনুমতি দিয়েছেন আদালত। গতকাল ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ ইমরুল কায়েস এই আদেশ দেন।

দুদকের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর জানান, এ মামলায় গ্রেফতার অসীম কুমার পি কে হালদারের সহযোগী ছিলেন। তিনি পি কে হালদারের সম্পত্তির দেখাশোনা করতেন। বিদেশে টাকা পাচারে সহযোগিতা করেছেন। আসামি অসীম এই মামলায় গ্রেফতার অপর আসামি সুকুমার মৃধার আত্মীয়।

তিনি জানান, এই মামলায় গ্রেফতার অসীম কুমার মিস্ত্রিকে আদালতে হাজির করে তিন দিন রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করে দুদক। আদালত উভয় পক্ষের শুনানি নিয়ে তার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আদালতসংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, গত ২১ জানুয়ারি এ মামলায় গ্রেফতার পি কে হালদারের সহযোগী সুকুমার মৃধা ও তার মেয়ে অনিন্দিতা মৃধাকে তিন দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দেন আদালত। এর আগে এই মামলায় পি কে হালদারের সহযোগী অবন্তিকা বড়াল ও পি কে হালদারের মামাতো ভাই আসামি শঙ্খ ব্যাপারীকে গ্রেফতার করে দুদক। তাঁদের প্রত্যেককে তিন দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দিয়েছিলেন আদালত।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক মো. সালাহউদ্দিন সম্প্রতি আদালতকে লিখিত এক প্রতিবেদন দিয়ে জানান, আসামি পি কে হালদার অসৎ উদ্দেশ্যে বিভিন্ন অবৈধ ব্যবসা ও অবৈধ কার্যক্রম চালিয়ে জ্ঞাত আয়ের সঙ্গে অসংগতিপূর্ণ ২৭৪ কোটি ৯১ লাখ ৫৫ হাজার ৩৫৫ টাকার সম্পদ অর্জন করেন। তদন্তকালে জানা যায়, আসামি পি কে হালদার বিদেশে পালিয়ে আছেন। আসামি শঙ্খ ব্যাপারীও বিদেশে পালানোর চেষ্টা করেন।

এর আগে গত বছরের ৮ জানুয়ারি প্রশান্ত কুমার হালদারের বিরুদ্ধে ২৭৪ কোটি ৯১ লাখ ৫৫ হাজার ৩৫৫ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে দুদক। তার বিরুদ্ধে ১ হাজার ৬৩৫ কোটি টাকা পাচারেরও অভিযোগ আনা হয়।

উল্লেখ্য, পি কে হালদারের জন্ম পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার দিঘিরজান গ্রামে। ২০০৮ সাল পর্যন্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইআইডিএফসিতে উপব্যবস্থাপনা (ডিএমডি) পরিচালক ছিলেন পি কে হালদার। ১০ বছরের ব্যাংকিং অভিজ্ঞতা নিয়েই ২০০৯ সালে তিনি রিলায়েন্স ফাইন্যান্সের এমডি হয়ে যান। এরপর ২০১৫ সালের জুলাইয়ে এনআরবি গেøাবাল ব্যাংকের এমডি পদে যোগ দেন।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন