ঢাকা শনিবার, ১০ এপ্রিল ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭, ২৬ শাবান ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

ছয় গোলের ম্যাচে জামালকে রুখে দিলো পুলিশ

মুক্তিযোদ্ধা-ব্রাদার্স কেউ জিতেনি

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৯:২৯ পিএম

ঘরোয়া ফুটবলের সর্বোচ্চ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ছয় গোলের ম্যাচে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে রুখে দিলো বাংলাদেশ পুলিশ এফসি। সোমবার বিকালে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম ম্যাচে ৩-৩ গোলে পুলিশের সঙ্গে ড্র করে ফের পয়েন্ট খোয়ালো শেখ জামাল। ফলে টানা চার ম্যাচে ড্র করে শিরোপা রেস থেকে পিছিয়ে পড়লো তারা। জামালের পক্ষে গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড ওমর জোবে, উজবেকিস্তানের মিডফিল্ডার ভালি জনব ওতাবেক এবং গাম্বিয়ান অধিনায়ক ও ফরোয়ার্ড সলোমন কিং কনফার্ম একটি করে গোল করেন। পুলিশের হয়ে তিন গোল শোধ দেন যথাক্রমে উজবেকিস্তানের মিডফিল্ডার আখমেদভ, আইভরিকোস্টের মিডফিল্ডার ফ্রেডরিক পোদা ও স্থানীয় ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ জুয়েল। পুলিশের কাছে পয়েন্ট হারিয়ে শেখ জামাল নয় ম্যাচে পাঁচ জয় ও চার ড্রতে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার তৃতীয় স্থান ধরে রাখলো। সমান ম্যাচে দুই জয়, তিন ড্র ও চার হারে ৯ পয়েন্ট পেয়ে অষ্টম স্থানেই রইল পুলিশ।

সোমবার ম্যাচের চিত্রটি ছিল এমন- গোল করে শেখ জামাল এগিয়ে যায় তো পরক্ষণে সমতায় ফেরে পুলিশ। এই দৃশ্য তিনবার দেখতে হয়েছে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে উপস্থিত কয়েকশ’ ফুটবলপ্রেমীকে। শুধু তাই নয়, নাটকীয়তার ছিল পুরো ম্যাচজুড়েই। রোমাঞ্চকর এক ম্যাচ খেলেছেন পুলিশের সদস্যরা। লালকার্ড দেখে এক ম্যাচ পর এদিন মাঠে নেমেছিলেন শেখ জামালের গাম্বিয়ান অধিনায়ক ও ফরোয়ার্ড সলোমন কিং কনফার্ম। প্রায় প্রতি ম্যাচেই গোলের দেখা পাচ্ছেন জামালের আরেক গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড ওমর জোবে। পুলিশের বিপক্ষেও এক গোল পেয়েছেন তিনি। ফলে এখন পর্যন্ত ১১ গোলের মালিক হয়ে গোলদাতাদের তালিকায় এককভাবে শীর্ষে অবস্থান করছেন ওমর জোবে।

পুলিশের বিপক্ষে এদিন গোলক্ষুধা নিয়ে মাঠে নামে ধানমন্ডির দলটি। ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণত্মক ফুটবল উপহার দিয়ে একের পর এক গোল আদায়ও করে নের কোচ শফিকুল ইসলাম মানিকের শিষ্যরা। তবে শেষ পর্যন্ত লিড ধরে রাখতে পারেনি শেখ জামাল। সঠিক সময়ে ফিরতি গোল করেছেন পুলিশের ফরোয়ার্ডরা।

ম্যাচের ১০ মিনিটে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন জামালের গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড ওমর জোবে (১-০)। তবে পিছিয়ে পড়ে হতাশ না হয়ে পাল্টা আক্রমণে গিয়ে একাধিক গোলের সুযোগ সৃষ্টি করে পুলিশ। যা থেকে ম্যাচের ৩৩ মিনিটে উজবেকিস্তানের মিডফিল্ডার আখমেদভ সমতা আনেন (১-১)। সাত মিনিট পর উজবেকিস্তানের মিডফিল্ডার ভালি জনব ওতাবেক গোল করলে ফের এগিয়ে যায় শেখ জামাল (২-১)। প্রথমার্ধের যোগকরা সময়ে (৪৫+১ মিনিট) পুলিশের আইভরিকোস্টের মিডফিল্ডার ফ্রেডরিক পোদা গোল করলে দ্বিতীয়বার সমতায় ফেরে দলটি (২-২)। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ম্যাচে ফিরেই ৪৯ মিনিটে গোল করেন জামাল অধিনায়ক সলোমন কিং কনফার্ম (৩-২)। ৬৯ মিনিটে সেই গোলও শোধ দিয়ে তৃতীয়বারের মতো ম্যাচে সমতা আনেন পুলিশের ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ জুয়েল (৩-৩) । তবে ম্যাচে আরও দু’টি করে সহজ গোলের সুযোগ নষ্ট করে দু’দল। বাকি সময় আর কোন গোল না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ৩-৩ গোলের ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে শেখ জামাল-পুলিশ।

একই ভেন্যুতে রাতে অনুষ্ঠিত দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র গোলশূণ্য ড্র করেছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ক্লাবের বিপক্ষে। এই ড্র’তে নয় ম্যাচে দু’টি করে জয় ও ড্র এবং পাঁচ হারে ৮ পয়েন্ট পেয়ে তালিকার দশম স্থানে মুক্তিযোদ্ধা। সমান ম্যাচে সাত হার ও দুই ড্র’তে ২ পয়েন্ট পাওয়া ব্রাদার্সের অবস্থান বারো’তে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন