ঢাকা রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮, ০৫ রমজান ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

‘৬০০’এ উজ্জ্বল রোনালদো

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ মার্চ, ২০২১, ১২:০১ এএম

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জয়ের পথে নিজেদের অপ্রতিরোধ্য করে তুলেছে ম্যানচেস্টার সিটি। পরশু রাতে উলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্সকে ৪-১ গোলে হারিয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলে ২১ ম্যাচ পর্যন্ত জয়ের ধারা ধরে রাখলো তারা। ইতালিয়ান সিরি আ’তে গত ম্যাচে রোনালদো গোল করেছিলেন ঠিকই, কিন্তু তার পরেও জয় বঞ্চিত ছিল জুভেন্টাস। সেই ড্রয়ের পর স্পেজিয়ার বিপক্ষে ৬০০তম লিগ ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন পর্তুগিজ যুবরাজ। মাইলফলক ম্যাচের দিন তাকে হতাশ করেনি জায়ান্টরা। লিগের ম্যাচে পরশু স্পেজিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে জুভেন্টাস। স্মরণীয় ম্যাচে আবার মৌসুমের ২০তম গোলও করেছেন জুভেন্টাস প্রাণভোমরা।
ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরুতে ১৫ মিনিটের গোলটা ছিল সিটির জন্য উপহার! রিয়াদ মাহরেজের ক্রস ভুলে নিজেদের জালে পাঠিয়ে দেন উলভস ডিফেন্ডার লিয়েন্ডার ডেনডনকার। ভুলের পর অবশ্য নিজেদের কিছুটা গুছিয়ে নিয়েছিল উলভস। তবে বিরতির আগে ল্যাপোর্তের গোল অফসাইড না হলে ব্যবধান আরও বাড়তো সিটির। দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে সিটি আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে থাকে যদিও। কিন্তু ঘণ্টা খানেকের মাথায় অবিশ্বাস্যভাবে সমতা ফিরিয়ে সিটিকে স্তব্ধ করে দেয় উলভস। ফ্রি কিক থেকে হেড করে স্কোর ১-১ করেন কনর কোডি। একটা পর্যায় পর্যন্ত চাপ সমলে সিটিকেই হুমকি দিচ্ছিল উলভস। মনে হচ্ছিল গার্দিওলার শিষ্যদের টানা ১৫তম প্রিমিয়ার লিগ ম্যাচ জয় বুঝি আর হলো না। কিন্তু ৮০ মিনিটে তাদের প্রতিরোধ ভাঙেন গাব্রিয়েল জেসুস। লুজ বল থেকে ব্যবধান বাড়িয়ে নেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। শেষ মিনিটে স্কোর ৩-১ করেন রিয়াদ মাহরেজ।
আর যোগ করা সময়ে জোড়া গোল তুলে নেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড জেসুস। অবশ্য এই গোলের পর রেফারি অফসাইডের বাঁশি বাজালেও, ভিএআরের সাহায্যে বেঁচে যায় সিটি। ২৭ ম্যাচে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে ম্যানসিটি। ২৬ ম্যাচে ৫০ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ম্যানইউর চেয়ে সিটির পয়েন্ট ব্যবধান ১৫।
সিরি আ’তে সর্বশেষ ম্যাচে জুভেন্টাস ড্র করে পয়েন্ট হারায় হেল্লাস ভেরোনার সঙ্গে। তাই তারা জানতোই, শিরোপা অভিযানে আর কোনও ভুল করা যাবে না। তাহলে শীর্ষে থাকা ইন্টারের চেয়ে ১০ পয়েন্টে পিছিয়ে যাবে তারা।
এমন পরিস্থিতিতে ডিফেন্ডার ম্যাথিস ডি লিখটের ইনজুরিও শুরুতে বিপদে ফেলে দিয়েছিল। গোলের কাছে চলে গিয়েছিল স্পেজিয়া। ভাগ্য ভালো যে লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ায় আর কোনও বিপদ হয়নি। রোনালদো অবশ্য প্রথমার্ধেই গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু তার নেওয়া শট গিয়ে লাগে পোস্টে।
বিরতির ঘণ্টা খানেকের মাথায় দুটি পরিবর্তন আনেন জুভেন্টাস কোচ পিরলো। মাঠে নামান
মোরাতা ও ফেদেরিকো বের্নাদেস্কিকে।
মুহুর্তেই পাল্টে যায় দৃশ্যপট। ৬২ মিনিটে বের্নাদেস্কির বাড়ানো বলে জুভেন্টাসকে এগিয়ে নেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার। যা ছিল ডিসেম্বরের পর মোরাতার প্রথম লিগ গোল। দ্বিতীয় গোলেও ভ‚মিকা ছিল বের্নাদেস্কির। ৭১ মিনিটে বক্সে তার নেওয়া শট শুরুতে ঠেকিয়েছিলেন ইভান প্রোভেদেল। পুরোপুরি বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ফিরতি বলে জাল কাঁপিছেন চিয়েসা। এর পর ৮৯ মিনিটে মাইলফলকের ম্যাচটা গোল করে রাঙান রোনালদো। আর এই গোল করেই গড়েন অনন্য কীর্তি। গত ১২ মৌসুম ধরে ইউরোপের শীর্ষ ৫ লিগে রোনালদোই প্রথম খেলোয়াড় যার অন্তত ২০ বা তার বেশি গোল আছে।
জয়ের পর ২৪ খেলায় ৪৯ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে জুভেন্টাস। ৫২ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে এসি মিলান। ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ইন্টার।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন