ঢাকা রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮, ০৫ রমজান ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

ম্যাচ ছাপিয়ে পিচ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ মার্চ, ২০২১, ১২:০১ এএম

আজ আহমেদাবাদে শুরু হচ্ছে ভারত-ইংল্যান্ডের মধ্যকার চতুর্থ টেস্ট। কিন্তু সব আলোচনা এখনও পড়ে আছে সিরিজের তৃতীয় টেস্ট নিয়েই। তৃতীয় টেস্টের পিচ বিবাদ শুরু হয়েছিল তবে থেমে নেই। সিরিজের প্রথম টেস্টে হেরেও ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে ভারত। আহমেদাবাদে গত টেস্টের উইকেটে স্পিনাররা ঘোরান ছড়ি। তাতে মাত্র দুই দিনে শেষ হয়ে যায় ম্যাচ। পাঁচ সেশনে পড়ে ৩০ উইকেট, এর ২৮টিই যায় স্পিনারদের দখলে। মাত্র দুই টেস্ট খেলা ভারতীয় স্পিনার অক্ষর প্যাটেল ম্যাচে পেয়েছিলেন ১১ উইকেটে। তার চেয়েও ভয়াবহ রেকর্ড ঝুলিতে পুড়েছিলেন ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট। কালে-ভদ্রে বল হাতে তুলে নেয়া ৮ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ৬ উইকেটে! এ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন অনেক সাবেক ক্রিকেটার। সেই দলে যোগ দিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার শোয়েব আকতার ও দেশটির সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম উল হক। ইনজামাম স্পষ্টভাবে বলেছিলেন যে জো রূটেরও এই পিচে বোলিং ফিগার ৫/৮ ছিল বলে তিনি কেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও অক্ষর প্যাটেলের প্রশংসা করবেন।
আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদী ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার দিন রাতের টেস্ট ম্যাচ নিয়ে ইনজামাম তার ইউটিউব চ্যানেলে বলেছেন, ‘কেউই এমনটা ভাবতে পারে না এবং দুই দিনের মধ্যে শেষ হওয়ার মতো টেস্ট ম্যাচটি কখন হয়েছিল তা আমার মনে নেই। ভারত কি এই ম্যাচে ভাল খেলেছে? নাকি উইকেটের বড় রোল ছিল? এই জাতীয় উইকেট কি কোনও টেস্ট ম্যাচের অংশ হওয়া উচিত? আমার মনে হয় ভারত দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলছিল, তারা অস্ট্রেলিয়ায় অস্ট্রেলিয়াকে পরাজিত করেছিল।’
তিনি আরও বলেছিলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচটি হেরে তারা ফিরে এসেছিলেন। তবে এই টেস্টের জন্য এমন উইকেট প্রস্তুত করায়, আমার মনে হয় না ক্রিকেটের সাথে এটি ঠিক আচরণ করা হচ্ছে। এ থেকে ভাল স্কোর টি টোয়েন্টি ক্রিকেটের স্কোরকার্ডে দেখতে পাবেন। আইসিসির এই বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত, টেস্ট ক্রিকেট দুই দিনও চালাতে পারেনি, এটি কী ধরণের উইকেট ছিল। আপনার ঘরোয়া সুবিধা নেওয়া উচিত, একটি স্পিনিং ট্র্যাক করা উচিত, তবে আমি মনে করি না যে এ জাতীয় পিচ তৈরি করা উচিত।’
তিনি আরও বলেছিলেন, ‘যে ম্যাচে রুট ছয় ওভারে পাঁচ উইকেট নিয়েছে, সেখানে বুঝতে পারবেন উইকেটের পরিস্থিতি কী ছিল। যখন রুট পাঁচ উইকেট নিচ্ছেন তখন কেন আমি রবিচন্দ্রন অশ্বিন এবং অক্ষর প্যাটেলের প্রশংসা করব? টেস্ট ম্যাচের অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য রয়েছে, ভেন্যু, উইকেট, গ্রাউন্ড, আম্পায়ার, রেফারি সহ। টেস্ট ম্যাচগুলি টেস্ট ম্যাচের মতো হওয়া উচিত।
এরআগে শোয়েব আকতার আহমেদাবাদের উইকেট নিয়ে হতাশার কথা জানিয়েছেন। তার যুক্তি হলো, ভারত দল তো এমনিতেই ভালো খেলে। তাহলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ‘খেলা যায় না’-এমন উইকেট বানাচ্ছে কেন? নিজের ইউটিউব চ্যানেল এসে এ নিয়ে নিজের মূল্যবান বক্তব্য জানিয়েছেন, ‘টেস্ট ম্যাচ কি এমন উইকেটে খেলা উচিত? অবশ্যই না। এমন উইকেট যেখানে এত বেশি অগ্রহণযোগ্য বাঁক নিচ্ছে বল। একটা ম্যাচ দুই দিনে শেষ হয়ে যাচ্ছে, এটা টেস্টের জন্য ভালো কিছু না। আমি বুঝি ঘরের মাঠের সুবিধা নিতে হয় কিন্তু এত বেশি সুবিধা নেওয়া তো বেশি হয়ে যায়। ভারত যদি ৪০০ রান করত আর ইংল্যান্ড ২০০ রান করত, তাহলে বলা যেত ইংল্যান্ড বাজে খেলেছে। কিন্তু এখানে ভারতও তো ১৪৫ রানে অলআউট হয়ে গেছে।’
এরপরই ভারত দল নিয়ে নিজের হতাশার কথা জানিয়েছেন শোয়েব। তার চোখে ভারতকে অনেক ভালো দল বলেই ভাবতেন তিনি। কিন্তু ঘরের মাঠে জেতার জন্য উইকেটের এমন দশা করলে সেটা আর সত্যি মনে হচ্ছে না তার, ‘আমি ভেবেছিলাম ভারত এর চেয়ে একটা বড়, আরও ভালো দল। খেলায় ফেয়ার প্লে থাকা উচিত। ওদের উচিত আরও নিরপেক্ষ উইকেট বানানো। আমার ধারণা, তেমন উইকেটেই ইংল্যান্ডকে হারাতে পারবে ভারত। ওদের ভয় পাওয়ার কোনো কারণ তো নেই। ভারতের এমন উইকেট বানানোর দরকার নেই।’
ইনজামাম-শোয়েবের সুরেই সুর মিলিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সহকারী কোচ ম্যাকডোনাল্ড, ‘নি:সন্দেহে এটা কঠিন হতে যাচ্ছে। তারা এমন পিচে খেলছে যা স্পিন বোলিংয়ের জন্য উপযোগী। ভারতের শক্তির দিক হলো তারা স্পিন ভালো খেলে। আশা করি, ইংল্যান্ড ভালো করবে। দেখা যাক কী হয়। এখন আমাদের হাতে তো আর কিছু নেই। কিন্তু আমরা আগ্রহ নিয়ে ম্যাচটির দিকে তাকিয়ে থাকব।’
ম্যাকডোনাল্ডের মতো আরো অনেকেই যে তাকিয়ে থাকবে বহুল আলোচিত এই ম্যাচটির দিকে!

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন