ঢাকা শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮, ০৪ রমজান ১৪৪২ হিজরী

মহানগর

ইউরোপে চাকরির প্রতারণা, র‌্যাবের হাতে মানবপাচাকারী গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ মার্চ, ২০২১, ৭:৪৪ পিএম

গ্রেফতারকৃত জামিল হোসাইন


রাজধানী বনানীর নিজ অফিস মাস-বাংলা ওভারসীজ থেকে সম্প্রতি মো. জামিল হোসাইন (৫১) নামে এক মানব পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান (র‌্যাব)। র‌্যাব জানায়, দীর্ঘদিন যাবৎ সে তার ম্যানেজার পন্টু সাংমা পল এবং দেশী-বিদেশী দালালদের সহযোগীতায় বিভিন্ন দেশের ভুয়া ডিমান্ড লেটার ও ভুয়া বিজ্ঞাপন তৈরী করে তা লোকজনদেরকে দেখিয়ে পোল্যান্ড, জাপান, মাল্টা, রুমানিয়া মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশে পাঠানোর নাম করে অর্থ আত্মসাৎ করে আসছে।

তাছাড়া অনেক লোককে ভারতে নিয়ে গিয়ে আটকে রেখে তার পরিবারের লোকদেরকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে অর্থ আদায় করে থাকে। প্রতারনার শুরুতে সে ভিকটিমদেরকে ভুয়া ডিমান্ড লেটার দেখিয়ে তাদের নিকট হতে পাসপোর্ট ও নগদ টাকা নিয়ে নেয়। তারপর তাদেরকে ভিসা দেয়ার নাম করে আজ না কাল বলে ঘোরাতে থাকে। এক সময় তাদেরকে বিদেশে না পাঠিয়ে এবং টাকা না দিয়ে সমস্ত টাকা আত্মসাৎ করে আসছে মর্মে স্বীকার করে। টাকা নেয়ার কথা র‌্যাব সদস্যদের নিকট স্বীকার করে এবং টাকার কোন রশিদ সে দেয় না মর্মে জানায়।

এছাড়াও মানিকগঞ্জের সিংগাইর থানার জাহিদ হাসানকে পোল্যান্ড পাঠানোর আশ্বাস দিয়ে ভুয়া ডিমান্ড লেটার ও ভুয়া নিয়োগ বিজ্ঞাপন দেখিয়ে নগদ ও ব্যাংকের মাধ্যমে ৫ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা এবং লক্ষীপুরের ফরিদ আহম্মেদের নিকট থেকে ৩ লাখ টাকা, বাগেরহাটের হাছিব হাওলাদার কাছ থেকে ৩ লক্ষ টাকা, গুলশান নর্দ্দার কামরুল হাসানের ৫ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা, রুপগঞ্জের মো. ইউসুফ আলীর কাছ থেকে ৪ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করার কথাও স্বীকার করে। জামিল হোসাইন অনেকের কাছ থেকে পাসপোর্ট নিজ হেফাজতে রেখেছে। ভুক্তভোগিরা বার বার অনুরোধ করেও পাসপোর্ট ফেরত পায়নি। জামিল হোসাইনের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে মামলা রুজুর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

উল্লেখ্য, প্রতারনার দায়ে ২০০৩ সালে জামিল হোসেনকে মালয়েশিয়া থেকে বের করে দেয়া হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন