ঢাকা, বুধবার, ১২ মে ২০২১, ২৯ বৈশাখ ১৪২৮, ২৯ রমজান ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

আফগান সরকারের সাথে শান্তি আলোচনায় সম্মতি তালেবানের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ মার্চ, ২০২১, ৭:৪৯ পিএম

১৮ মার্চ রাশিয়ার মস্কোতে আফগান শান্তি সম্মেলনে সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই এবং তালেবানের উপ-নেতা ও আলোচনাকারী মোল্লা আবদুল গণি বড়দারসহ কর্মকর্তারা।


স্থগিত হওয়া শান্তি প্রক্রিয়া পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে শুক্রবার রাশিয়া একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজন করে। সেখানে যোগ দিয়ে আফগান সরকার এবং তালেবানরা শান্তি আলোচনা ত্বরান্বিত করতে সম্মত হয়েছে। এক শীর্ষস্থানীয় আফগান কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা আরআইএ।

এর আগে তাৎক্ষণিক যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছানোর জন্য আফগানিস্তানের যুদ্ধরত পক্ষকে আহ্বান জানায় রাশিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন এবং পাকিস্তান। বৃহস্পতিবার আফগান শান্তি কাউন্সিলের প্রধান ডক্টর আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ বলেছেন যে, আফগান সরকার দেশে শান্তি ও সমৃদ্ধি আনতে তালেবানদের সাথে ‘যে কোনও বিষয়ে’ আলোচনা করতে প্রস্তুত। আফগানিস্তানে শান্তি প্রক্রিয়া পুনরুদ্ধার করার লক্ষে আয়োজিত মস্কো সম্মেলনে আবদুল্লাহ জানান, সম্মেলন চলাকালীন আফগানিস্তান সঙ্কট শান্তিপূর্ণভাবে সমাধানের জন্য আফগান সরকার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছে। সম্মেলনে যোগ দেয়ার পরেই তার অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলে লিখেছিলেন যে, ‘আমরা সহিংসতা বন্ধ করার এবং শান্তি আলোচনার ত্বরান্বিত করার আহ্বান জানিয়েছি। আমরা আঞ্চলিক এবং এর বাইরের দেশগুলিকেও আফগানিস্তানে ন্যায়বিচার ও স্থায়ী শান্তি অর্জনে সহায়তা করার জন্য বলেছিলাম।’

আফগানিস্তানের আলোচনার দলটি তালিবানদের সাথে যে কোনও বিষয়ে আলোচনা করতে প্রস্তুত জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা হত্যাকাণ্ড বন্ধ করার এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে আলোচনার পরবর্তী দফা শুরু করার জন্য একটি ব্যাপক যুদ্ধবিরতি আহ্বান জানিয়েছি।’ ডক্টর আব্দুল্লাহ শান্তির পক্ষে সহায়তার জন্য আঞ্চলিক দেশগুলিকেও ধন্যবাদ জানান তবে যোগ করেন যে, এটি কেবল আফগানিস্তানের জনগণের জন্যই নয়, সমগ্র অঞ্চল এবং এর বাইরের পক্ষের জন্যও উপকারী। তিনি আরও বলেন যে, আফগানিস্তান মস্কো সম্মেলনকে কেবল দোহার আলোচনার সাথে নয়, আফগানিস্তানের বিষয়ে আসন্ন তুরস্ক সম্মেলনকে সমর্থন করার জন্য বিবেচনা করেছে।

মস্কো যাবার আগে এক্সপ্রেস নিউজের অ্যাঙ্কর রেহমান আজহারের সাথে কথা বলার সময় ডক্টর আবদুল্লাহ বলেছিলেন যে, যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে শান্তিপূর্ণ বন্দোবস্তের জন্য আফগান শান্তি প্রক্রিয়ায় পাকিস্তানের ধারাবাহিক সমর্থন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন, ‘লড়াইয়ে কোন বিজয়ী নেই এবং শান্তিপূর্ণ বন্দোবস্তে কোনও ক্ষতিগ্রস্ত নেই। তালেবানকে ইসলামী প্রজাতন্ত্রের পাকিস্তানসহ সমস্ত দেশ থেকে শুনানো উচিত যে যুদ্ধের ধারাবাহিকতায় বিশ্বের কোথাও কোনও সমর্থন নেই।’

ডক্টর আব্দুল্লাহ দু'দেশের মধ্যে আস্থার বিষয়ে জানান যে, আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কের উন্নতি হচ্ছে এবং ইসলামাবাদে তার শেষ সফরে তিনি দুই প্রতিবেশী দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের সব দিক নিয়ে আলোচনা করেছেন। তিনি বলেন, ‘ভিসা ও বাণিজ্য ও ট্রানজিটের সুবিধার্থে তারা যে পদক্ষেপ নিয়েছে তার জন্য আমি পাকিস্তান সরকার এবং পাকিস্তানের জাতীয় সংসদের প্রতি কৃতজ্ঞ। তবে আমাদের একসাথে কাজ চালিয়ে যাওয়া দরকার এবং আমি এটাও বলব না যে এখন কোনও অবিশ্বাস নেই তবে উভয় পক্ষকে আরও কাজ করা দরকার।’ তিনি উল্লেখ করেন যে, পাকিস্তান আফগান শান্তি প্রক্রিয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় এবং যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে শান্তিপূর্ণ বন্দোবস্তের জন্য তাদের সমর্থন জরুরী। সূত্র: এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন