ঢাকা, শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০১ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০২ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

এক পদের জন্য ২৩০ জনের লড়াই

৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ মার্চ, ২০২১, ১২:১৪ এএম

সরকারি চাকরিতে বিভিন্ন ক্যাডারে দুই হাজার ১৬৬টি শূন্য পদে পৌনে ৫ লাখ চাকরিপ্রত্যাশী এবার পরীক্ষা দিয়েছেন। এক পদের জন্য লড়াই করেছেন ২৩০ জনের বেশি। করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠিত হলো ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা।

গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ঢাকাসহ দেশের ৮টি বিভাগীয় শহরে ৩৫৯টি কেন্দ্রে একযোগে হয় এ পরীক্ষা। ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহের নির্ধারিত কেন্দ্রে সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। করোনার প্রকোপ বাড়তে থাকায় আগে থেকেই পরীক্ষার সময় স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করার ওপর জোর দিয়েছিল সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)।
পরীক্ষা হলের বাইরে পরীক্ষার্থীদের হাত ধোয়া বা স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা, পরীক্ষার্থীদের হলে প্রবেশের সময় শরীরের তাপমাত্রা পরিমাপের জন্য নন-কন্ট্যাক্ট ইনফ্রারেড থার্মোমিটারের সুবিধা, প্রতিটি পরীক্ষার হলের কন্ট্রোল রুমে মাস্ক এবং জীবাণুনাশকের ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল।
এছাড়া আগেই প্রতিটি পরীক্ষা কেন্দ্রে পর্যাপ্ত আলো-বাতাসের ব্যবস্থা নিশ্চিত করা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মেঝেসহ সকল এলাকা পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত করা হয়। আর অপেক্ষমাণ জনসমাগম নিয়ন্ত্রণ করতে সকাল থেকেই ছিল নিরাপত্তা ব্যবস্থা। আসন ব্যবস্থা এমনভাবে সাজানো হয়, যাতে দুজন পরীক্ষার্থীর মধ্যে কমপক্ষে তিন ফুট দূরত্ব ছিল।
সরকারি চাকরিতে বিভিন্ন ক্যাডারে দুই হাজার ১৬৬টি শূন্য পদে প্রার্থী নিয়োগ দিতে গত বছরের ৩০ নভেম্বর ৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল পিএসসি। এই বিসিএসের মাধ্যমে প্রশাসন ক্যাডারে ৩২৩ জন, সাধারণ ক্যাডারে ৬৪২ জন, প্রফেশনাল ও টেকিনিক্যাল ক্যাডারে ৬১৯ জন, সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারে ৮৯২ জনসহ দুই হাজার ১৬৬ জনকে নিয়োগ দিবে সরকার।
পিএসসির পূর্ব ঘোষণা মেনে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ৯টা ২৫ মিনিটের মধ্যে মুখে মাস্কসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষার্থীরা কেন্দ্রে প্রবেশ করেন। পরীক্ষা কেন্দ্রে বই-পুস্তক, সব রকম ঘড়ি, মোবাইল ফোন, ক্যালকুলেটর, সব ধরনের ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস, ব্যাংক-ক্রেডিট কার্ডসদৃশ কোনো ডিভাইস, গয়না, ব্রেসলেট বা ব্যাগ নিয়ে কেউই প্রবেশ করেননি। পরীক্ষার হলের গেইটে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের উপস্থিতিতে প্রবেশপত্র এবং মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে মোবাইল, ঘড়ি ইলেক্ট্রনিক ডিভাইসসহ নিষিদ্ধ সামগ্রী আছে কি না তল্লাশির পরই প্রবেশ করতে দেওয়া হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন