শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

জনে জনে উচ্চারিত হচ্ছে অবিলম্বে নিষিদ্ধের দাবি

ইসকন কান্ডে তোলপাড়

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৪ মার্চ, ২০২১, ১২:০০ এএম

চট্টগ্রামের পুরনো ও ঐতিহ্যবাহী এবং সনাতনী হিন্দু প্রতিষ্ঠান প্রবর্তক সংঘের শিক্ষক, কর্মকর্তাদের উপর ইসকন কর্মীদের হামলার ঘটনায় তোলপাড় চলছেই। সনাতনীদের মধ্যে এই ঘটনার নিন্দার ঝড় বইছে। নিজ ধর্মের মানুষের উপর এমন বর্বর আক্রমণের সাথে জড়িতদের কঠোর শাস্তির দাবি উঠেছে সব মহল থেকে। একই সাথে ইসকন নিষিদ্ধের দাবি উচ্চারিত হচ্ছে জনে জনে।

গতকাল মঙ্গলবারও এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে চলে নানা আলোচনা-সমালোচনা। ইসকনের বিরুদ্ধে জনমত গঠনে নামছেন সনাতনী সংগঠনের নেতারা। আগামী ৩০ মার্চ সনাতনী সব সংগঠনের নেতাদের সাথে এ বিষয়ে একটি মতবিনিময় সভার প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে। প্রবর্তক সংঘের কর্মকর্তারা জানান, তারা ঐতিহ্যবাহী এ প্রতিষ্ঠানের স্বার্থবিরোধী কোনো কর্মকান্ড বরদাশত করবেন না। সনাতনী ধর্মাবলম্বীদের নিয়ে যেকোনো চক্রান্ত প্রতিহত করা হবে। ইসকনের সাথে যে চুক্তি হয়েছে তার কোনো ব্যত্যয় মানতে নারাজ প্রবর্তক সংঘের কর্মকর্তারা। তারা বলছেন, এক্ষেত্রে ইসকনকে একচুলও ছাড় দেয়া হবে না।

এদিকে প্রবর্তক সংঘের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপর ইসকন কর্মীদের সশস্ত্র হামলার ঘটনায় তদন্তে নতুন গতি এসেছে। আদালতের নির্দেশে প্রতিবেদন দিতে তদন্ত অব্যাহত রেখেছেন বলে জানান আলোচিত এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পাঁচলাইশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কবিরুল ইসলাম। গতকাল তিনি জানান, ঘটনার পর থেকেই তদন্ত শুরু হয়। তবে আদালতের নির্দেশনা পাওয়ার পর সোমবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে তদন্ত শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলা হয়েছে। কিছু আলামতও সংগ্রহ করা হয়েছে। প্রবর্তক সংঘের পক্ষ থেকে মামলায় ইসকনের সাত-আটজনের নাম উল্লেখ করা হয় এবং আরও ১০-১৫ জনকে অজ্ঞাতনামা হিসাবে আসামি করা হয়েছে। আসামিদের বিরুদ্ধে প্রবর্তক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হত্যাপ্রচেষ্টাসহ বেশকিছু অভিযোগ আনা হয়েছে। তিনি জানান, আগামী ১৮ এপ্রিল আদালতে মামলার শুনানির দিন ধার্য আছে।

মামলার তদন্ত তদারকির দায়িত্বে থাকা নগর পুলিশের একজন কর্মকর্তা জানান, যাদের নাম উল্লেখ করে আসামি করা হয়েছে তারা ছাড়া কারা এ হামলায় জড়িত ছিল তাদের চিহ্নিত করা হচ্ছে। আশা করি আদালতের বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করা যাবে। প্রবর্তক সংঘের কর্মকর্তারা জানান, ইসকনকে মন্দির নির্মাণের জন্য দেওয়া জমির বাইরে তারা স্থাপনা তৈরী করে। প্রবর্তকের স্বার্থে ওই স্থাপনা সরিয়ে কাজ করতে গেলে গত ১৪ মার্চ কর্মীদের উপর অতর্কিত হামলা চালায় ইসকনের লোকজন।

এদিকে ইসকনের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও জনমত তৈরি করছেন অনেকে। সনাতন ধর্মাবলম্বীরা এ নিয়ে বেশ সরব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। দৈনিক ইনকিলাবে প্রকাশিত রিপোর্টেও পাঠকরা তাদের মতামত তুলে ধরছেন। মঙ্গলবার ‘সাধুবেশে সস্ত্রাসী ইসকন’ শিরোনামে প্রকাশিত রিপোর্টে অনেক পাঠক তাদের মন্তব্য দেন। তাদের বেশিরভাগই এই সংগঠনটিকে নিষিদ্ধের দাবি তুলেছেন। পারভেজ নামে একজন পাঠক লিখেন- ‘হাবভাব দেখে মনে হয় ইসকনকে যথেচ্ছা করার স্বাধীনতা দেয়া হয়েছে।’ হান্নান খান লিখেন- ‘সরকার বা প্রশাসন কেউ ইসকনের বিরুদ্ধে কিছুই করবে না বরং তাদের পেট্রোনাইজ করবে। সুতরাং যা করার জনসাধারণকেই করতে হবে। আর যাহাই ইসরায়েল, যাহাই আই এস, তাহাই ইসকন---।’ শাহরিয়ার এইচ মুন্না লিখেন- ‘জঙ্গি সংগঠন এটা, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে কাজ করছে।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
Md Mosarof Hossen Akash ২৪ মার্চ, ২০২১, ৩:০৭ এএম says : 2
ইস্কন মিস্কন এসব নিষিদ্ধ করা হোক
Total Reply(0)
চৌধুরী হারুন আর রশিদ ২৪ মার্চ, ২০২১, ৩:০৮ এএম says : 0
দেশের শান্তি প্রিয় সকল মানুষের এটা দাবি
Total Reply(0)
Arif Hossain ২৪ মার্চ, ২০২১, ৩:১২ এএম says : 0
জোর দাবি জানাচ্ছি ইসকন নামক দেশ বিরোধী সংগঠনকে নিষিদ্ধ করার
Total Reply(0)
Lingkon Ahammed ২৪ মার্চ, ২০২১, ৩:১২ এএম says : 0
নিষিদ্ধ হোক উগ্রবাদী সংগঠন ইসকন
Total Reply(0)
বদরুল সজিব ২৪ মার্চ, ২০২১, ৩:১২ এএম says : 0
ইসকন একটা নোংরা সংগঠন
Total Reply(0)
S.M.Farhad ২৪ মার্চ, ২০২১, ১১:৫১ এএম says : 0
ইসকন সংগঠনটি উগ্র ধরনের সংগঠন। বাংলাদেশে যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিরাজ করে, সেটা ভাঙ্গার জন্য বার বার চেষ্টা করে এই সংগঠনটি। যেহেতু পার্শ্ববর্তী ভারতে উগ্র হিন্দুরা সংখ্যালঘু মুসলমানদের উপর নির্যাতন করছে, সেহেতু বাংলাদেশে সেই সাম্প্রদায়িকতার উল্টা রেশ আনার জন্য প্রয়োজন এ অঞ্চলে মুসলিমবিরোধী বিভিন্ন কাজে ইন্ধন দেয়া, যেন মুসলমানরা সংখ্যালঘু হিন্দুদের উপর ক্ষেপে যায়। এ কাজটি বিভিন্ন সময় রুটিনওয়ার্ক হিসেবে দিয়ে থাকে ইসকন।
Total Reply(0)
KAZI DELOWER HOSSAIN ২৫ মার্চ, ২০২১, ৮:১৯ এএম says : 0
জঙ্গি সংগঠন ইসকনকে নিষিদ্ধ করা সময়ের অন্যতম দাবি।আমি চাই অনতিবিলম্বে জঙ্গি সংগঠন ইসকনকে নিষিদ্ধ করা হোক।
Total Reply(0)
KAZI DELOWER HOSSAIN ২৫ মার্চ, ২০২১, ৮:২০ এএম says : 0
দেশ বিরোধী ও জঙ্গি সংগঠন ইসকনকে নিষিদ্ধ করা হোক।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন