ঢাকা সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৫ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বিএনপি-জামায়াত থেকে আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারীদের ঘাড় ধরে বের করে দেয়া হবে- রামুতে জাহাঙ্গীর কবির নানক

কক্সবাজার ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৩০ মার্চ, ২০২১, ১১:৩৮ পিএম

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী এড. জাহাঙ্গীর কবির নানক হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, যারা বিএনপি-জামায়াত থেকে আওয়ামী লীগে ঢুকে পড়েছে তাদেরকে ঘাড় ধরে বের করে দেয়া হবে। কোন অনুপ্রবেশকারীকে দলে ঠাঁই দেয়া হবেনা। এমনকি অনুপ্রবেশকারীদের দলে ঢুকতে সহযোগিতাকারীদেরও চিহ্নিত করার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) রাতে রামু উপজেলার চৌমুহনী স্টেশনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে ‘মুক্তিযুদ্ধের ঐক্য’ কক্সবাজার জেলা শাখা আয়োজিত মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন তিনি।

নানক বলেন, শেখ হাসিনার কঠোর নেতৃত্বে ঐক্যের মাধ্যমে বাংলাদেশের মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার ছিনিয়ে এনেছেন। রাষ্ট্র যখন এগিয়ে যাচ্ছে বিএনপি- জামায়াত নতুন করে ষড়যন্ত্র শুর করছে। তারা মানুষের ঘর ও মন্দির পুড়িয়ে দিচ্ছে। বাংলাদেশে নির্বাচন প্রতিহতের নামে অগ্নি সংযোগে মানুষ পুড়িয়ে দিয়েছে। ওরা এখন আমাদের ভেতর ঢুকিয়ে বিবাদ সৃষ্টি করছে তাদেরকেও ছাড়া দেয়া হবে না বলে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।

রামু উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধের ঐক্য’র উপদেষ্টা সোহেল সরওয়ার কাজল এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ও মুক্তিযুদ্ধের ঐক্যে'র যুগ্ম আহ্বায়ক শামসুল আলম মন্ডলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে জাহাঙ্গীর কবীর নানক আরো বলেন, স্বাধীনতার শক্তির বিপক্ষের লোকজনদের মাঝে যন্ত্রণা সৃষ্টি হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দেশে একটি অসাম্প্রদায়িক সমাজ ব্যবস্থা গড়ে তোলা। যেখানে সকলেই মিলেমিশে সুখে ও শান্তিতে বসবাস করবে। প্রত্যেকে নির্বিঘ্নে নিজ নিজ ধর্ম পালন করবে।

এই আদর্শ ও চেতনাকে নষ্ট করে মানুষের মাঝে দ্বন্দ্ব-বিবাদ সৃষ্টি করতে ধর্মকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে একটি সুবিধাবাদী দল। তারা ধর্মীয় অনুভূতি নিয়ে সকল ধর্মের মানুষের সাথে খেলা করে। এটি আর হতে দেয়া যাবেনা।

কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধের ঐক্য’র জেলা আহবায়ক মোঃ নজিবুল ইসলামের স্বাগত বক্তব্যের মধ্যদিয়ে শুরু হওয়া সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ডাঃ কামরুল হাসান খান, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হাসান আরিফ, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কক্সবাজার পৌরসভার প্যানেল মেয়র মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনীন সরওয়ার কাবেরী, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল কর, মুক্তিযুদ্ধের ঐক্য’র সদস্য সচিব মাহমুদুল করিম মাদু প্রমুখ।

সমাবেশে রামু উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে মিছিল সহকারে যোগ দেয় শত শত নেতাকর্মী।

এর আগে শুরুতেই কোরআন তেলোওয়াত, জাতীয় সংগীত ও উদ্বোধনী সংগীতের মধ্যে দিয়ে কার্যক্রম শুরু হয়। আলোচনা সভা শেষে আবৃত্তি, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মুক্তিযুদ্ধের নাটক মঞ্চায়ন করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
প্রবাসী-একজন ৩১ মার্চ, ২০২১, ৫:৩৯ এএম says : 0
বুকের পাটা থাকলে ওসব তথাকথিত অনুপ্রবেশকারীদের ঘাড় ধরে বের করে দেয়ার কিছু ছবি সংবাদপত্রে দেন না কেন? যতসব ফাঁকা বুলি।
Total Reply(0)
Jahangir alom ৩১ মার্চ, ২০২১, ৬:৩৪ পিএম says : 0
Jahangir nanok tumi je 57 jon BDR officer hottar shate jorito manush valo korei jane. Shomoi hoilei bujba ke kare ghar djore ber kore dei. 57 jon officer marar gjotona manush vilbena jotoi gheu gheu koro.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন