ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮, ৩০ রমজান ১৪৪২ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

তৃণমূল-বিজেপি দুই পক্ষের হয়েই পৃথক প্রচারে মহিমা

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ এপ্রিল, ২০২১, ২:১৭ পিএম

এক যাত্রায় পৃথক প্রচার করেই ফেললেন বলিউডের বাঙালি অভিনেত্রী মহিমা চৌধুরী। ৫ এপ্রিল (সোমবার) প্রচার করেছিলেন কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্রর হয়ে। ৫ এপ্রিল মহিমার সঙ্গে প্রচারের ছবি আপলোড করেছিলেন মদন মিত্র। ১৭ এপ্রিল উত্তর ২৪ পরগনার কামারহাটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ। একই দিনেই নির্বাচন বিধাননগর কেন্দ্রে। যেখানে তৃণমূলের সুজিত বসুর বিরুদ্ধে বিজেপির হয়ে লড়ছেন সব্যসাচী দত্ত। ১২ এপ্রিল (সোমবার) আবার বিজেপি প্রার্থী সব্যসাচী দত্তর হয়ে ভোট চাইতে দেখা গেল তাকে। তারমানে দুই প্রার্থীর হয়েই ভোট চাইলেন মহিমা। এতেই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

এ বিষয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে মহিমা জানান, সব্যসাচী দত্ত মেয়র হিসেবে ভাল কাজ করেছেন। তাই তার হয়ে প্রচার করা জরুরি। আবার সব্যসাচী জানান, তিনি যখন মেয়র হয়েছিলেন তখনও মহিমা এসেছিলেন। এবারও এসে পাশে দাঁড়িয়েছেন। এ নিয়ে নেটদুনিয়ায় আলোচনাও শুরু হয়ে গিয়েছে। কেউ কটাক্ষ করে লিখেছেন, “প্রকৃত পেশাদার”। কেউ আবার লিখেছেন, “যে বেশি টাকা দিতে পারে! কিন্তু কোবরা কোথায়?”

পশ্চিমবঙ্গের এবারের ভোটকে তারকাখচিত বলাই যায়। নির্বাচন শুরু হওয়ার আগে থেকেই রাজনৈতিক দলগুলিতে তারকাদের আগমন ঘটে চলেছে। একদিকে তৃণমূলের হাত ধরেছেন রাজ চক্রবর্তী, সায়নী ঘোষ, সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, কাঞ্চন মল্লিকরা। অন্যদিকে বিজেপি শিবিরে যোগ দিয়েছেন মিঠুন চক্রবর্তী, যশ দাশগুপ্ত, শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, পায়েল সরকার, রুদ্রনীল ঘোষরা। ওদিকে আবার প্রার্থী না হলেও প্রচারের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছেন দেব, মিমি চক্রবর্তী, নুসরত জাহানরা। বিজেপির হয়ে যদি ‘মহাগুরু’ মিঠুন চক্রবর্তী সওয়াল করে থাকেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়ে প্রচারের হাল ধরতে এসে গিয়েছেন ‘ধন্যি মেয়ে’ জয়া বচ্চন। প্রত্যেকেই নিজের মতো দল ও আদর্শ বেছে নিয়েছেন। কিন্তু মহিমা চৌধুরী ঠিক কোন পক্ষে, তা নিয়ে দ্বিধায় আমজনতা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন