ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮, ৩০ রমজান ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

লক্ষ্মীপুর-ভোলা নৌরুটে নাব্যতা সংকটে ফেরী চলাচল ব্যাহত, আটকা পড়েছে শতশত যানবাহন

লক্ষ্মীপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৫ এপ্রিল, ২০২১, ১১:৫৬ এএম

লক্ষ্মীপুর- ভোলা নৌরুটে নাব্যতা সংকটে ফেরী চলাচল ব্যাহত হওয়ায় দু-পাড়ে আটকা পড়েছে প্রায় ৫“শর বেশি পণ্যবাহী যানবাহন।

বিআইডাব্লিওটিসি ও ফেরীঘাট সূত্রে জানা যায়, দেশের দক্ষিনাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষ লক্ষ্মীপুরে মজুচৌধুরীরহাট-ভোলা এ নৌ-রুট দিয়ে যাতায়াত করছে। লকডাউন ঘোষনার পর গত এক সপ্তাহ ধরে মজুচৌধুরীরহাট ও ভোলা ফেরীঘাটে আটকা পড়েছে ৫শর বেশি পণ্যবাহি ট্রাকসহ ছোটবড় যানবাহন। এতে করে ট্রাকে পচঁন ধরেছে আলু,পেয়াজ ও রসুনসহ নিত্য প্রয়োজনী বিভিন্ন রকমের কাঁচামাল। ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন চালকরা।

লক্ষ্মীপুর-মজুচৌধুরীরহাট সড়কে তৈরি হয়েছে দীর্ঘ যানজট। লঞ্চ বন্ধ থাকায় যে যার মত নৌকায় ও স্পট বোটে গাদাগাদি করে নদী পারাপার হচ্ছে। মানা হচ্ছেনা স্বাস্থ্যবিধি। প্রশাসনের তদারকি না থাকায় করোনা সংক্রমন বাড়ার সাথে সাথে নদী পথে বড় ধরনের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন স্থানীয়রা। বর্তমানে কলমিলতা, কাবেরী ও কিষানী নামে তিনটি ফেরী চলাচল করছে এ নৌ-রুটে।

ট্রাক চালক সফিক উল্যাহ,মহসিন ও রহিমসহ অনেকে অভিযোগ করে বলেন, একদিকে লকডাউন,অন্যদিকে রমজান শুরু,পাশাপাশি নদীতে নাব্যতা সংকটের কারনে ঠিকমত ফেরী চলাচল করছেনা। গত এক সপ্তাহ ধরে পন্যবাহি ট্রাক নিয়ে ঘাটে বসে আছি। দুর্ভোগের কোন শেষ নেই। ঘাটে পণ্যবাহি ট্রাক নিয়ে আটকা পড়ার পর থাকা, খাওয়াসহ নানা সমস্যায় পড়ছেন চালকরা। এছাড়া ফেরী কর্তৃপক্ষ ভিআইপি নাম দিয়ে টাকার বিনিময়ে অন্য যানবাহন আগে ফেরীতে তুলছে বলে অভিযোগ করেন চালকরা। বেশিরভাগ ট্রাকে নিত্যাপ্রয়োজনী জিনিসপত্র রয়েছে।

অনেক ট্রাকে কাঁচামাল পচঁন ধরেছে। কবে ফেরী চলাচল স্বাভাবিক হবে, সে নিয়ে দু:চিন্তায় পড়েছেন চালক ও ব্যবসায়ীরা। এ নৌ-রুটের বিভিন্ন স্থানে নতুন ডুবোচর জেগে উঠায় প্রতিদিন ৪/৮ ঘন্টা ফেরী ডুবোচরে আটকে থাকতে হয়। জোয়ার আসলেই কিছুটা পানি বাড়ায় ফেরী চলাচল শুরু হলেও ফেরী কম থাকায় দিনের পর দিন ঘাটে না খেয়ে পড়ে থাকতে হয়। দ্রুত ঘাটে ফেরী সংকট সমাধান না করলে দুর্ভোগ আরো বাড়বে বলে জানান এ নৌ-রুটে চলাচলকারী চালকরা।

দুর্ভোগের কথা স্বীকার করে নৌ পুলিশ কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম বলছেন, লকডাউনের কারনে গাড়ির চাপ বেড়ে যাওয়ায় দীর্ঘযানজটের সৃষ্টি হয়েছে। চেষ্টা করছি দ্রুত সময়ে যেন যানজট দূর করা যায়।

এদিকে বিআইডাব্লিওটিসির মজুচৌধুরীরহাট ফেরীঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক মো. কাউছার জানান, লকডাউন,রমজানের কারনে গাড়ির চাপ বাড়ছে কয়েকগুন। পাশাপাশি নদীতে নব্যতা সংকটের কারনে ঠিকমত ফেরী চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এতে করে দু-পাড়ে কয়েকশ পণ্যবাহি ট্রাক আটকা পড়েছে। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। দ্রুত সমস্যা সমাধানের আশাবাদ করেন তারা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন