ঢাকা, রোববার, ০৯ মে ২০২১, ২৬ বৈশাখ ১৪২৮, ২৬ রমজান ১৪৪২ হিজরী

ইসলামী প্রশ্নোত্তর

আমার স্বামী বিমান বাহিনীর অফিসার। ৫ মাসের একটা ট্রেইনিংএ উনি শ্রীলঙ্কাতে একটি নির্দিষ্ট স্থানে অবস্থান করছেন। আগামী কিছুদিনের মধ্যে ট্রেইনিং এর অংশ হিসেবে উনাকে ৭০ কিলোমিটারের ভেতরে আরেকটি উষ্ণ বালুময় অঞ্চলে সাত দিনের জন্য অবস্থান করতে হবে। যা উনার জন্য খুবই কষ্টসাধ্য হবে। এই ট্রেনিং এ উনি একমাত্র মুসলমান অফিসার। এই অবস্থায় ওনার জন্য রোজা কি ফরজ?

মৌসুমি শিকদার
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ১৭ এপ্রিল, ২০২১, ৫:৫৪ পিএম

উত্তর : শ্রীলঙ্কা গিয়ে যেহেতু তিনি নিয়ত করে ছয় মাস যাবত আছেন, অতএব তিনি আর মুসাফির নন। কিন্তু বর্তমানে যেখানে যেতে চান তার দূরত্ব হিসাবে তিনি মুসাফির হন না। অবস্থানকাল হিসাবে যদিও এটি মুসাফিরির মধ্যে পড়ে। এখানে সম্ভব হলে তার রোজা রাখতে হবে। প্রথমদিন রোজা রেখে তিনি দেখবেন, যদি জীবন চলে যাওয়ার উপক্রম না হয়, তাহলে রোজা ছাড়বেন না। চরম কষ্ট কিংবা প্রাণহানির আশংকা হলে তিনি তখন রোজা ছেড়ে দিবেন। প্রতিদিনই এভাবে রোজা রাখতে হবে। চেষ্টা না করে রোজা ছাড়া যাবে না। যে ক’টি পারেন রেখে দিবেন, না পারলে তখন সেটি ছেড়ে দিবেন। অন্য সময় শুধু কাযা করে নিবেন।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।
inqilabqna@gmail.com

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Mujibur Rahman ১৭ এপ্রিল, ২০২১, ৭:২৯ পিএম says : 0
যোহর আসরে নীরব তেলাওয়াতে নামাজ পড়লেও বিভিন্ন স্হানে মাইকে তেলাওয়াত প্রচারিত হয় টিভি রেডিও অনুষ্ঠান শুরুতে তেলাওয়াত হয়! দিনের বেলার নামাজে তেলাওয়াত নিষেধের সাথে অমিল কেন?
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন