বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৪ কার্তিক ১৪২৮, ১২ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

নতুন তিব্বতী বাহিনী গড়ছে চীন : সতর্ক নয়াদিল্লি

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ এপ্রিল, ২০২১, ১১:৪৫ এএম

আবারও যুদ্ধে দামামা। ভারতীয় সীমান্তে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে চীনের সেনারা। তিব্বতীদের নিয়ে নতুন বাহিনী গড়ছে চীন! ভারতীয় গোয়েন্দা সূত্রে খবর, এ কাজে অনেকটা এগিয়েছে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি। সীমান্ত লাগোয়া তিব্বতের গ্রামে ঘুরে ঘুরে গত বেশ কিছুদিন ধরেই তারা চালাচ্ছে উপযুক্ত সেনাকর্মী বেছে নেয়ার কাজ। বিষয়টি সামনে এসেছে তিনটি আলাদা গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্টে। তিনটি রিপোর্টেই প্রকাশিত একই তথ্য হাতে পেয়ে কিছুটা সতর্ক হয়েছে নয়াদিল্লি। তারা জানিয়েছে, বিষয়টির উপর নজর রাখছে তারা।

লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা থেকে সেনা সরানো নিয়ে দিন কয়েক আগেই বৈঠকে বসেছিল ভারতীয় এবং চীনা সেনার প্রতিনিধি দল। তবে এ-বিষয়ে ভারত-চীনের শেষ বৈঠকটি তেমন ফলপ্রসূ হয়নি। সীমান্তে স্থিতাবস্থা বজায় রাখার ব্যাপারে একমত হলেও প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার অন্য এলাকা গুলি থেকে সেনা নিষ্ক্রিয় করার ব্যাপারে কথা এগোয়নি দু’পক্ষের সেনা প্রতিনিধিদের। সেই বৈঠকের এক সপ্তাহ পার না হতেই তিব্বতীদের নিয়ে চীনাসেনার নতুন বাহিনী তৈরির খবরে কিছুটা চিন্তায় কেন্দ্র। যে চিন্তা সবচেয়ে বেশি উদ্বেগ বাড়াচ্ছে, তা হল—প্যাংগংয়ে কি পুনরায় আক্রমণের প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন? নাহলে বেছে বেছে অতিরিক্ত উচ্চতা আর তীব্র ঠাণ্ডা সহ্য করতে পারা তিব্বতীদের নিয়েই বিশেষ বাহিনী গড়বে কেন তারা?

নয়াদিল্লির প্রতিরক্ষা দফতরের এক কর্তার কথায়, ‘ব্যাপারটায় একটা সরাসরি যোগসূত্র স্পষ্ট। আগেই আমাদের কাছে রিপোর্ট ছিল, তিব্বতে অতিরিক্ত উচ্চতায় সেনা মোতায়েনে সমস্যার মুখে পড়তে হয়েছিল চীনা সেনাকে। বহু চীনা সেনা অক্সিজেনের অভাববোধে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। এরই মধ্যে চীনের নতুন বাহিনী সংক্রান্ত গোয়েন্দা রিপোর্ট বেশ তাৎপর্য্যপূর্ণ। ভারতীয় এবং ভারতে বসবাসকারী তিব্বতিদের প্রতি বিশেষ বার্তাবহও।’

ভারতে বসবাসকারী তিব্বতী জওয়ানদের নিয়ে স্পেশ্যাল ফ্রন্টিয়ার বাহিনী বা এসএফএফ দীর্ঘদিন ধরেই মোতায়েন রয়েছে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায়। প্যাংগংয়ে ভারত-চীন সেনা সংঘর্ষের সময়ে এই বাহিনীর কাছে সুবিধা করতে পারেনি চীনা সেনারা। অতিরিক্ত উচ্চতা আর তীব্র ঠাণ্ডায় চীনা সেনারা অসুস্থ হয়ে প়ড়েছিল বলেও খবর ছিল। যার জেরে কিছুটা বাধ্য হয়েই প্যাংগং থেকে চীন সেনা সরাতে বাধ্য হয়েছিল বলে সেসময় জানিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকরা। ভারত নিবাসী তিব্বত বিশেষজ্ঞ ক্লড আরপি বলেছিলেন, ভারতীয়দের মতো চীনা সেনারা অতিরিক্ত উচ্চতায় যুদ্ধ করতে অভ্যস্ত নয়। তাই প্যাংগং লাগোয়া প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় অতিরিক্ত উচ্চতা আর অক্সিজেনের অভাব পিএলএ-র কাছে একটা বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

গোয়েন্দা তথ্য বলছে, এর আগে পিএলএ কখনো কোনো বিশেষ জাতিকে নিয়ে কোনো আলাদা বাহিনী তৈরি করেনি। তবে কি এই নতুন বাহিনীর অবতারণা ভারতের তিব্বতী সেনার পাল্টা হিসেবেই। সেক্ষেত্রে প্যাংগং লাগোয়া প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় চীনের পুনরায় আক্রমণের পরিকল্পনার সম্ভাবনাও তাই উড়িয়ে দিতে পারছে না গোয়েন্দারা।

সূত্র : আনন্দবাজার

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন