ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০৫ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

জীবনাশঙ্কার মুখে নাভালনিকে হাসপাতালে নিল রাশিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ এপ্রিল, ২০২১, ৮:৪২ পিএম

কারাগারে আটক রাশিয়ার বিরোধী দলীয় নেতা আলেক্সি নাভালনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন এমন উদ্বেগের মধ্যে তাকে কারাগারে হাসপাতালে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ। নাভালনি চিকিৎসার দাবিতে গত তিন সপ্তাহ ধরে কারাগারে অনশন কর্মসূচি পালন করছেন।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্র কারারুদ্ধ বিরোধী দলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির কারাগারে মৃত্যু হলে রাশিয়াকে তার ফল ভোগ করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেয়। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান বলেন, কারাগারে নাভালনির মৃত্যু হলে রাশিয়াকে তার ফল ভোগ করতে হবে। আমরা রাশিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করে জানিয়েছি, কারাগারে নাভালনির কিছু হলে রাশিয়াকে তার দায় নিতে হবে এবং আন্তর্জাতিক মহলের কাছে জবাবদিহি করতে হবে।

এরপর সোমবার রাশিয়ার কারা কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে জানায়, নাভালনিকে কারাবন্দীদের একটি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হচ্ছে। ওই বিবৃতিতে দাবি করা হয়, ৪৪ বছর বয়সী নাভালনির শারীরিক অবস্থা সন্তোষজনক এবং তিনি সম্পূরক ভিটামিন গ্রহণ করতে রাজী হয়েছেন। তাকে যে হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে সেটি রাজধানী মস্কো থেকে ১৮০ কিলোমিটার দূরে ভ্লাদিমিয়ের বন্দীশিবিরে অবস্থিত। গত মাসে নাভালনিকে একটি বিচ্ছিন্ন কারাগারে পাঠানো হয়।

সম্প্রতি নাভালনির চিকিৎসকরা জানান, তিনি যেকোনো সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হতে পারেন। কিংবা তার কিডনি অকার্যকর হয়ে যেতে পারে। এতে করে তার শারীরিক অবস্থার মারাত্মক অবনতি ঘটতে পারে এবং তার মৃত্যুও হতে পারে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের কট্টর সমালোচক হিসেবে পরিচিত নাভালনি। অর্থ আত্মসাতের পুরোনো মামলায় গত ফেব্রুয়ারি মাসে নাভালনিকে কারাদণ্ড দেয়া হয়।

এর আগে গত বছরের আগস্টে প্রায় মরতে বসেছিলেন ৪৪ বছর বয়সী নাভালনি । সাইবেরিয়ার থেকে উড়োজাহাজে মস্কোয় ফেরার পথে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তাকে বহনকারী উড়োজাহাজ সাইবেরিয়ার ওমস্কে জরুরি অবতরণ করে একটি হাসপাতালে নেয় তাকে। তিনি কোমায় চলে যান। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য জার্মানির বার্লিনে নেয়া হয়। সেখানে তিনি ধীরে ধীরে সেরে ওঠেন। গত ১৭ জানুয়ারি ক্রেমলিনের হুমকি উপেক্ষা করে দেশে ফেরেন নাভালনি। বিমানবন্দরেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে সাড়ে তিন বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। সূত্র : দি গার্ডিয়ান, ইনডিপেন্ডেট

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন