ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৮ আষাঢ় ১৪২৮, ১০ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বগুড়ায় উদ্ধারকৃত ফেন্সিডিল বিক্রির অভিযোগে ২ পুলিশ কর্মকর্তা প্রত্যাহার

বগুড়া ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ এপ্রিল, ২০২১, ৭:০০ পিএম

বগুড়ার মোকামতলায় ২৪৮ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে সেখান থেকে ৮৮ বোতল বিক্রি করে দেয়ার চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠেছে পুলিশে বিরুদ্ধে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা (বিপিএম, বার ) তদন্তে নেমে দুজন কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে ।

যে দুজন কে প্রত্যাহার করা হয় তারা হলেন যথাক্রমে মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর শাহীনুজ্জামান এবং এস আই সুজা উদদৌলা।

বুধবার দুপুরে এই প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হলেও সন্ধ্যায় ইন্সপেক্টর শাহীন এবং শিবগঞ্জ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, এধরনের আদেশ এখনও তাদের হাতে পৌঁছেনি ।

উল্লেখ্য ৩ এপ্রিল রাতে বগুড়া-রংপুর মহাসড়কে চেক পোষ্ট বসিয়ে বিভিন্ন যানবাহন তল্লাশি করেন মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সদস্যরা। তল্লাশীতে নেতৃত্ব দেন শিবগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকী।

যানবাহন তল্লাশি কালে ঢাকাগামী একটি বাস খালেক পরিবহন থেকে নাজিম নামের এক ব্যক্তিকে ৫০ বোতল এবং পিংকি পরিবহন থেকে সাইফুল ইসলাম নামের একজনকে ১৯৮ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক করা হয়। এঘটনায় মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুজাউদ্দৌলা বাদী হয়ে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করেন। ( মামলা নং- ৪ ও ৫ তারিখ-০৪-০৪-২১)।

তবে পিংকি পরিবহন থেকে উদ্ধারকৃত ১৯৮ বোতল ফেন্সিডিলের স্থলে ১১০ বোতল জব্দ দেখিয়ে সাইফুলের নামে মামলা দেয়া হয়। বাকী ৮৮ বোতল ফেন্সিডিল পুলিশের এক কর্মকর্তা সোর্সের মাধ্যমে বিক্রি করে দেন।

এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে বগুড়ার পুলিশ সুপার মামলা দুটি ডিবিতে স্থানান্তরের আদেশ দিয়ে তিনি গত ২০ এপ্রিল মোকামতলা পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে ফেন্সিডিল উদ্ধারের সময় উপস্থিত পুলিশ সদস্য ছাড়াও মামলার সাক্ষীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

ঘটনা প্রসঙ্গে শিবগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকী তার নেতৃত্বেই ৩ এপ্রিল রাতে চেকপোস্ট বসিয়ে ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়েছে। ফেন্সিডিল জব্দ করার সময় কম দেখানো হয়নি। তারপরেও অভিযোগ উত্থাপিত হওয়ায় পুলিশ সুপার নিজেই অভিযোগ খতিয়ে দেখার জন্য মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) মোকামতলায় উপস্থিত হয়ে তদন্ত ও সংশ্লিষ্টদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

তদন্তের প্রেক্ষিতে বুধবার দুপুরে মোকামতলা তদন্ত কেন্দ্রের দুজন কর্মকর্তাকে প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন। এরা হলেন যথাক্রমে মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর শাহীনুজ্জামান এবং এস আই সুজা উদদৌলা। এস আই সুজা ছিলেন ফেন্সিডিল উদ্ধার সংক্রান্ত মামলাটির প্রথম তদন্ত কর্মকর্তা। ঘটনাটি পুলিশের মধ্যে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন