ঢাকা, রোববার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ০১ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

‘রাশিয়ার রেড লাইন অতিক্রম করলে দ্রুত জবাব দেওয়া হবে’

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ এপ্রিল, ২০২১, ২:৩১ পিএম

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন প্রতিপক্ষ পশ্চিমা দেশগুলোকে হুঁশিয়ার করে বলেছেন, রাশিয়ার রেড লাইন অতিক্রম করলে অতি দ্রুত ও কঠোর জবাব দেওয়া হবে। তারা যেন তাদের রেড লাইন অতিক্রম না করে। রাশিয়ার বিরুদ্ধে কোনও রকম উস্কানি দেওয়া হলে অত্যন্ত দ্রুত ও কঠোর জবাব দেওয়া হবে বলেও সতর্ক করেছেন তিনি। বুধবার (২১ এপ্রিল) বার্ষিক স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন ভাষণে পুতিন এ হুঁশিয়ারি দেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

ইউক্রেন সীমান্তে সৈন্য মোতায়েন এবং এর বিরুদ্ধে পশ্চিমাদের পালটা পদক্ষেপের মধ্যেই এই হুঁশিয়ারি দিলেন প্রেসিডেন্ট পুতিন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাতে জানা যায়, বুধবার পার্লামেন্টে দেওয়া ভাষণে প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, রাশিয়ার রেডলাইন অতিক্রম করলে এবং উসকানি দিলে দ্রুত কঠোর জবাব দেওয়া হবে। যারা এই উসকানি দিচ্ছেন তারা এরপর দুঃখ প্রকাশ করবেন। তিনি বলেন, আমরা ভালো সম্পর্ক চাই। আমরা বন্ধনের সেতুকে পোড়াতে চাই না। প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, ‘আমাদের ভালো ইচ্ছাকে কেউ যদি ভুল বোঝে দুর্বলতা মনে করে এবং সেই সেতুকে ভাঙার চেষ্টা করে তাহলে তাদের জেনে রাখা উচিত, রাশিয়াও পাল্টা এবং কঠিন জবাব দেবে।’

তিনি তার দেশকে ‘টাইগার’ বলে উল্লেখ করেন যা হায়েনাদের দ্বারা বেষ্টিত বলে জানান। ৭৮ মিনিটের বক্তব্যে প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, রাশিয়া প্রতিটি ক্ষেত্রে তার রেডলাইনের বিষয়টি বিবেচনায় রাখে।

যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের একাধিক দেশের সঙ্গে সংঘাতের আবহে এই মুহূর্তে চাপে রয়েছে ক্রেমলিন। ইউক্রেন সীমান্তেও তৈরি হয়েছে যুদ্ধের পরিস্থিতি। এর মধ্যে আবার কারাবন্দি সরকারবিরোধী নেতা অ্যালেক্সাই নাভালনিকে যথাযথ চিকিৎসা না দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে চাপে পড়েছে পুতিন প্রশাসন। দেশের ভেতরে বিক্ষোভের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক চাপও বাড়ছে। এমন অবস্থায় বুধবার স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন ভাষণ দেন রুশ প্রেসিডেন্ট।

পুতিন বলেন, যে কোন বিষয়ের জন্য রাশিয়াকে দোষারোপ করাটা কোনও কোনও দেশের অভ্যেসে পরিণত হয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত রাশিয়া সংযত রয়েছে এবং এ রকম বৈরিতা ও রুক্ষতার বিরুদ্ধে কোনও প্রতিক্রিয়া দেখায়নি। তবে এটাকে রাশিয়ার দুর্বলতা মনে না করার জন্য পশ্চিমা দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। বলেছেন, এটাকে দুর্বলতা ভেবে কেউ যদি সেতু পুড়িয়ে কিংবা উড়িয়ে দেওয়ার কথা ভেবে থাকে তা হলে মনে রাখা দরকার রাশিয়ার জবাবও হবে যথার্থ, দ্রুত এবং কঠোর।
এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে হস্তক্ষেপ এবং সাইবার আক্রমণ চালানোর রুশ প্রচেষ্টার জবাবে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়ার বিরুদ্ধে নতুন করে অর্থনৈতিক ও কুটনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। সূত্র : রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Jack Ali ২২ এপ্রিল, ২০২১, ৪:৫৭ পিএম says : 0
May Allah destroy all war monger country like: Russia, America, France, Israel, Mayanmar, India...
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন