ঢাকা, শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০১ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০২ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

এক মাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি দুই সপ্তাহ পর হ্রাস পাবে

বাংলাদেশের করোনা নিয়ে বিশেষজ্ঞদের পূর্বাভাস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০২ এএম

বাংলাদেশ বর্তমানে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। দিন দিন পরিস্থিতি অবনতি হচ্ছে। আগামী জুন মাসের আগে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হবে না বলে জানিয়েছেন স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের দল বাংলাদেশ কমো মডেলিং গ্রুপ।

বাংলাদেশ ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গঠিত দলটি গাণিতিক মডেলিং ব্যবহার করে করোনার পূর্বাভাস জানার চেষ্টা করেন। গবেষণায় দেখা যায়, বাংলাদেশে আগামী মে মাসের শেষ নাগাদ করোনা পরিস্থিতি বর্তমান অবস্থাতেই থাকবে। কিন্তু জুন মাস থেকে পরিস্থিতি উন্নতি হবার সম্ভাবনা রয়েছে বলে গবেষণায় উঠে এসেছে। তবে স্থানীয় কিছু বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি এখন সর্বোচ্চ পর্যায়ের দিকে যাচ্ছে। তাদের মতে, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে সরকার লকডাউন কার্যকর করার আগেই অনেক মানুষ রাজধানী ছেড়ে নিজ জেলায় চলে যায়। এর ফলে ঢাকার বাইরের জেলাগুলোতেও এখন দ্রুত করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে।

বাংলাদেশ কমো মডেলিং গ্রুপের সদস্য ড. আবু জামিল ফয়সাল বলেন, আমাদের পূর্বানুমান অনুযায়ী আগামী মে মাস পর্যন্ত বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতির ঊর্ধ্বগতি বজায় থাকবে। বর্তমানে বাংলাদেশ করোনার সর্বোচ্চ সংক্রমণের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। আগামী এক মাস ঊর্ধ্বগতি বজায় থাকবে এবং এর দুই সপ্তাহ পর হতে ধীরে ধীরে সংক্রমণ সংখ্যা হ্রাস পাবে। তিনি আরো বলেন, মে মাসের আগে হঠাৎ করেই সংক্রমণের হার কমার সম্ভাবনা নেই। তবে করোনায় মৃত্যুর হার নিয়ে বলতে পারছেন না তারা। কেননা, হঠাৎ করেই মৃত্যু সংখ্যা বাড়ছে-কমছে এবং হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা ও চিকিৎসার ওপর অনেক কিছু নির্ভর করে। বাংলাদেশের আট বিভাগের যৌথ গণস্বাস্থ্য পরামর্শক কমিটির সদস্য ড ফয়সাল বলেন, করোনার এই সংক্রমণ চক্র ভাঙতে কার্যকরী এবং সমন্বিত পদক্ষেপ নেওয়া অত্যন্ত প্রয়োজন। শতভাগ মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করাসহ প্রতিদিন টেস্ট বৃদ্ধি করা, সঠিক আইসোলেশন এবং কন্ট্রাক্ট ট্রেসিংয়ের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন এই স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক ড. মিরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, কিছু সুনির্দিষ্ট বিষয়ের ওপর ভাইরাস সংক্রমণের গতি নির্ভর করে। করোনা নিয়ন্ত্রণে আমরা বর্তমানে যে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি, তা যদি মেনে চলতে পারি, তবে আশা করা যায় করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হবে। করোনায় মৃত্যু সংখ্যা বাড়ছে, কিন্তু মৃত্যুহার বৃদ্ধি পায়নি। বর্তমান দ্বিতীয় ঢেউয়ের আগে মৃত্যু হার ছিল ১.৫২ শতাংশ এবং বর্তমানে মৃত্যুহার ১.৪৩ শতাংশে নেমে এসেছে। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা ছাড়া মৃত্যু সংখ্যা কমানোর আর কোনো উপায় নেই। হেলথ অ্যান্ড হোপ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান এবং গণস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এম এইচ চৌধুরী (লেনিন) বলেন, অনেক করোনা আক্রান্ত রোগীই শনাক্ত হচ্ছেন না। এসব রোগী নিজের আশপাশে সবার অজান্তেই করোনা ছড়িয়ে যাচ্ছেন। এজন্য তিনি করোনা পরীক্ষা সংখ্যা কমে যাওয়াকেই দায়ী করছেন। তিনি বলেন, দ্রæত শনাক্ত এবং আইসোলেশন নিশ্চিত করার মাধ্যমেই করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সাবেক দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের উপদেষ্টা ড. মুজেহারুল হক বলেন, করোনা মোকাবিলায় দ্রুত শনাক্ত ও প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থার কোনো বিকল্প নেই। আইসিইউতে চলে যাওয়া রোগীকে বাঁচানো খুব কষ্টসাধ্য বিষয় হিসেবে দেখছেন এই বিশেষজ্ঞ।

মৃত্যু নিয়ন্ত্রণে করণীয় : করোনায় মৃত্যু নিয়ন্ত্রণে ড. লেনিন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা, মাস্ক ব্যবহার করা এবং করোনা সংক্রমণের সন্দেহ হলেই টেস্ট করার পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি বলেন, করোনা পরীক্ষার পর কেউ আক্রান্ত হিসেবে ধরা পড়লে সঙ্গে সঙ্গেই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। এ ক্ষেত্রে চিকিৎসক যদি হাসপাতালে ভর্তি হবার কথা বলেন, তাহলে কোনো অবস্থাতেই বিলম্ব করা যাবে না। করোনায় মৃত্যু নিয়ন্ত্রণ ও সঠিক চিকিৎসা নিশ্চিতের লক্ষ্যে সরকারকে অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিতসহ প্রয়োজনে ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপনের আহ্বান জানান এই স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (11)
Md Shahjalal Akanda ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৪৯ এএম says : 0
বিশেষ অজ্ঞ দের কথা বিশ্বাস হয় না।তারা সবাই সব সময় আন্দাজে কথা বলে।তারা বললো শীতে করোনা বারবে,গরমে কমবে।কিন্তু হলো উল্টোটা।তাদের আন্দাজে কথা হঠাৎ ফলে গেলেই তারা বিশেষজ্ঞ হয়ে যায়।কথায় আছে,ঝড়ে বক মরে,ফকিরের কেরামতি বারে।
Total Reply(0)
ম নাছিরউদ্দীন শাহ ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:২৭ এএম says : 0
ভয়ংকর ভয়াবহ মানবজাতির মহাবিপদর্জয়ের বিতরে ভারত দৈনিক তিন লক্ষ ছাড়িয়েছে আক্রান্ত মৃত্যু দূইহাজারের উপরে নিয়ন্ত্রণহীন অদৃশ্য ভাইরাস ধ্বংসযজ্ঞ চালাচ্ছে ভারতে। আমরা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে লক ডাউনলোড প্রত‍্যাহার করেছি। আমাদের সরকারি ভাবে ঘোষণা দিন বাংলাদেশের বর্ডারে রেড এলাট ভারতের সাথে জল স্থল আকাশ পদ সাময়িক বন্ধ। সরকারের শিষ্য নেতৃবৃন্দের উচিৎ ভারতীয় ভ‍্যারিযেন্ট ভাইরাসের আক্রান্ত ব‍্যাক্তিদের অতিবাস্তবধর্মী সিদ্ধান্ত নিতে ব‍্যার্থ হলে। বাংলাদেশের ভাইরাসের আক্রমণগুলো চিহ্নিত করতে ব‍্যার্থ হলে বাংলাদেশের অবস্থা ভারতের মত হতে বেশি সময় লাগবে না। বাংলাদেশের করোনা বিশেষজ্ঞদের রাষ্ট্রের নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করার ভারতীয় পরিস্থিতি ভাইরাসের তিব্রতা ভারতের নিযন্ত্রনহীন নাজুক পরিস্থিতি কে আমাদের গুরুত্ব দিয়ে বাংলাদেশের নিরাপত্তা জোরদার করতে হবে। আশাবাদী প্রশাসন দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে তা করবেন।
Total Reply(0)
Khan Jahir ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৫০ এএম says : 0
আগামী ২৫ এপ্রিল থেকে দোকান পাট সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫ পর্যন্ত খোলা রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তাই আমরা যারা বেকার, চাকুরী প্রার্থী রয়েছি তাদের কথা বিবেচনা করে সরকারকে এই সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টার মধ্যে সকল নিয়োগ পরীক্ষার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি
Total Reply(0)
Dip Biswas Prodip ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৫০ এএম says : 0
বাংলাদেশের জন্য, এই সব সূত্র খাটে না। সব সূত্রের কিছু ব্যতিক্রম আছে। বাংলাদেশ ও ব্যতিক্রম দেশ, এই সূত্র বাংলাদেশের জন্য প্রযোজ্য নয়।
Total Reply(0)
Bangladeshi Robert Bruce ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৫১ এএম says : 0
ল্যানসেট এর গবেষণায় উঠে এসেছে আগামী কয়েক বছর করোনা এভাবে চলবে, সেখানে সুপারিশ করা হচ্ছে সবাইকে ভ্যাকসিন দিয়ে কর্মস্থলে পাঠানোর, বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেবার কারণ এই ভাইরাস নাকি আবদ্ধ জায়গায় বেশি সংক্রামক হয় । অথচ আমাদের দেশের গবেষক দের ভিন্নমত । আগেও তাদের পূর্বপরিকল্পনা ভুল হয়েছে ,তারা বলেছিল শীতে করণায় আক্রান্তের হার বাড়বে ,হয়েছিলো তার উল্টো । এখনও তারা উল্টাপাল্টা আন্দাজ করেই যাচ্ছে
Total Reply(0)
Mhk Humayun Kabir ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৫১ এএম says : 0
বজায় থাকবে এটা আমিও বলতে পারি ইভেন আপনারা বলছেন হ্রাস পেতে পারেন এটাও বলতে পারি!কিন্তু হ্রাস পাব বলতে আপনারাও পাবেন না আমিও পাবো না সো এসব গবেষণা প্রকাশ না করাই ভাল। আতঙ্ক!
Total Reply(0)
Md Ashraful Islam ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৫১ এএম says : 0
করোনার সাথে চুক্তি ভিত্তিক বৈঠক শেষে এ কথা জানানো হয়।
Total Reply(0)
Ali Ahmed ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৫২ এএম says : 0
লকডাউন সীমিত আকারে খুলে দিয়ে আবার সীমিত আকারে নিউজ আসলো আগামী ১ মাস সংক্রমণ উর্ধগতি থাকবে। বুঝতেছিনা, আমরাই পাগল নাকি কর্তপক্ষ।
Total Reply(0)
Shamim Noor ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৫২ এএম says : 0
সবাই নিজ দায়িত্বে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে কোন উর্দ্ধগতিই হবে না, ইনশাআল্লাহ ....
Total Reply(0)
Kazi ShahJalal ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৫২ এএম says : 0
ইউরোপ আমেরিকার মত এত উন্নত প্রযুক্তির দেশ এমন ভবিষ্যত বানী করতে পারল না। কিন্তু আমরা পারলাম
Total Reply(0)
Maverick Mind ২৪ এপ্রিল, ২০২১, ১২:৫২ এএম says : 0
হেফাজত নেতাদের ধরপাকর আর রিমান্ডের জন্য করোনা অপেক্ষা করছে তাদের সাথে এসব শেষ হলেই করোনা সসম্মানে বিদায় নেবে দেশ থেকে!
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন