শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৭ কার্তিক ১৪২৮, ১৫ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

চলমান বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ছে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০২১, ৪:২৩ পিএম

চলমান বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) বিকেলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী গণমাধ্যমকে বলেন, কোভিড-১৯ বিস্তার রোধে চলমান বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামীকাল প্রজ্ঞাপন হতে পারে।

এদিকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলেন, করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ৫ মে মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ বলবৎ রাখার বিষয়ে চিন্তাভাবনা করছে সরকার।

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় ৫ থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত সীমিত বিধিনিষেধ দেওয়া হলেও তা খুব একটা কার্যকর হয়নি। পরে ১৪ এপ্রিল থেকে শুরু হয় এক সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধ। এটি কার্যকর করতে সরকারের ১৩ দফা বিধিনিষেধে বলা হয়, অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া (ওষুধ ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি কেনা, চিকিৎসা সেবা, মরদেহ দাফন বা সৎকার এবং টিকা কার্ড নিয়ে টিকার জন্য যাওয়া) কোনোভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না।

এরইমধ্যে ১৮ এপ্রিল রাতে এক বৈঠকে চলমান বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর সুপারিশ করে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। যা ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। যদিও কোনো লকডাউন বা বিধিনিষেধই সঠিকভাবে কার্যকর হচ্ছে না। শুধুমাত্র বাস ও ট্রেন ছাড়া সবই চলছে। মার্কেটগুলোতে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (7)
Mizan ২৬ এপ্রিল, ২০২১, ৬:০২ পিএম says : 0
করোনার সাথে মশকরা করার কারনে করোনা বিরক্ত হয়ে পাশ্ববর্তী দেশে চলে গেছে।
Total Reply(0)
Bayzid Mahmud ২৬ এপ্রিল, ২০২১, ৬:০১ পিএম says : 0
নাটকের দরকার কি একবার বলে ২৮ তারিখ পর গনপরিবহনের চলার সিদ্ধান্ত। আবার বলে লকডাউন। নাটকবাজ
Total Reply(0)
Md Akash ২৬ এপ্রিল, ২০২১, ৬:০২ পিএম says : 0
এসব নাটকের জন্য কেউ কোন কিছু মানছে না। এতে করে কাজের কাজ তো একটুও হবে না বরং মানুষ না খেয়ে মরবে আর হাহাকার শুরু হবে। তাই লকডাউন দিলে সব কিছুতেই দিন।কষ্ট করে হলেও মানুষ মেনে নিবে। এসব লকডাউন শুধু গরীবের জন্য।
Total Reply(0)
MD Rubel ২৬ এপ্রিল, ২০২১, ৬:০২ পিএম says : 0
আমাদেল দেশের লকডাউন হচ্ছে ঘরে দরজা খুলা রেখে জানালা বন্ধ করার মত ।
Total Reply(0)
ম নাছিরউদ্দীন শাহ ২৬ এপ্রিল, ২০২১, ৬:০২ পিএম says : 0
যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত মানুষের জীবনের নিরাপত্তাব্যবস্থা দায়িত্ব সরকারের। পাশ্ববর্তী ভারতের অবস্থা কিয়ামতের মত মৃত্যুপুরী ভয়ংকর মৃত্যুর তালিকা কোথায় পযর্ন্ত যাবে আল্লাহ জানেন। ঈদের শপিং সামাজিক নিরাপত্তা সোশ্যাল মিডিয়ার নানাভাবে আলোচনা সমালোচকদের সমালোচনা। প্রশ্ন একটাই জীবনের নিরাপত্তা আগে। এখানে কুম্ভমেলার পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার আগেই। শক্তিশালী নিরাপত্তা বলই সরকার করতে হবে। কারণ শক্র অদৃশ্য শক্তিশালী ভাইরাস। ঘাটের উপর নিঃশ্বাস নিচ্ছেন ভাইরাসের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণা অনুবিক্ষন যন্ত্র বিজ্ঞানের কোন টেকনোলজিতে ধরা পড়েছে না। বাজতে একমাত্র ঔষধের নাম সামাজিক দুরন্ত। বড় ঔষধের নাম লকডাউন। শক্তিশালী ঔষধের নাম আইনের বাহিনীর শক্তিশালী অবস্থান। ধন্যবাদ।
Total Reply(0)
Zubair Hossain Zubu ২৬ এপ্রিল, ২০২১, ৬:০২ পিএম says : 0
সব খোলা আবার বলে লকডাউন ,লকডাউন এর মান সম্মান সব ডুবিয়ে দিচ্ছে।
Total Reply(0)
Shahadat ২৬ এপ্রিল, ২০২১, ১১:৩২ পিএম says : 0
মানুষের খাদ্য নিশ্চিত না করে, লকডাউন দেওয়া হিংসাত্মক এবং সরকারের বোকামি ছাড়া আর কিছুই নয়। মানুষ করোণাতে মরলে সে জান্নাতে যাবে, যদি সবর করে। আর খাদ্যের অভাবে কষ্ট পেলে মানুষের কারণে সরকার দুনিয়া এবং আখেরাতে ধ্বংস হওয়ার কারন হবে‌। লকডাউন না দিয়ে মানুষের কর্মস্থান খুলে দিন আল্লাহতালা যাকে মারবে তাকে এমনিতেই মারবে, আর যাকে মারবে না, তাকে শত করোনার ভিতর ও বাঁচিয়ে রাখবেন। যদি সরকার মুসলমান হয়ে থাকে, তাহলে লকডাউন তুলে ফেলবে।
Total Reply(0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন