শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

ক্রীড়াঙ্গনের ঈদ আনন্দ

প্রকাশের সময় : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ঈদ মানেই খুশি, আনন্দ, উচ্ছ্বাস। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কিছুটা সময় আনন্দ ভাগ করে নেয়া। ঈদ মানে বন্ধু-বান্ধব, আত্মীয়-স¦জনদের সঙ্গে হৈ-হুল্লর করে সময় কাটানো। মুসলমানদের প্রধান দুটি ধর্মীয় উৎসব ঈদ হলেও এর আমেজ আলাদা। সিয়াম সাধনার পর আসে ঈদুল ফিতর। আর ত্যাগের মহিমা নিয়ে হাজির হয় ঈদুল আজহা। আগামীকাল এই উৎসবটি পালন করবেন দেশের কোটি কোটি ধর্মপ্রাণ মুসলমান। সারাবিশ্বেই পালিত হয় পবিত্র ধর্মীয় এ উৎসবটি। চাঁদের হেরফেরে সৌদী আরবে আজ ঈদুল আজহা পালিত হলেও বাংলাদেশসহ উপমহাদেশে তা পালন করা হবে কাল। এই উৎসবটি ঘিরে সব জগতের মানুষের মাঝে এখন সাজসাজ রব। বাদ যায়নি দেশের ক্রীড়া জগৎও। বাংলাদেশের ক্রীড়া তারকারা কে, কোথায়, কীভাবে পালন করবেন ঈদুল আজহা, তা ইনকিলাব পাঠকদের উদ্দেশে তুলে ধরেছেন   
জাহেদ খোকন

ক্রীড়া তারকাদের ঈদ আনন্দ
ফরিদ খান চৌধুরী (সাবেক অ্যাথলেট ও কোচ)
জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারপ্রাপ্ত সাবেক অ্যাথলেট ও জাতীয় কোচ ফরিদ খান চৌধুরীর গ্রামের বাড়ি সাতক্ষীরা জেলার পলাশপুরে হলেও এবার তিনি ঢাকায় ঈদুল আজহা পালন করবেন। তার কথা, আমার বাবা নেই। তাই গ্রামের বাড়ি যাওয়া হবে না। মিরপুরে নিজ বাসায় মা, স্ত্রী, ছেলে ও মেয়ের সঙ্গেই ঈদের আনন্দ ভাগ করে নেবো। গরু কেনা হয়েছে। ঈদের নামাজ শেষে কোরবানী দেবো। এবং গরিব-দুঃখীদের মাঝে মাংস বিলিয়ে ত্যাগের মহিমা পালন করবো। সবাইকে জানাই ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা।
জাহিদ হোসেন (ফুটবলার)
আমার বাবা ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত। তার কেমোথেরাপি চলছে। তিনি এখন কিছুটা সুস্থ। বাবাকে নিয়ে মা, ভাই, বোন মিলে টাঙ্গাইলে ঈদুল আজহা পালন করবো আমি। ইতোমধ্যে কোরবানীর পশু কেনা হয়েছে। বাবা অসুস্থ থাকার কারণে এবার ঈদের আনন্দ তেমন হবে না। তিনি সুস্থ থাকলে হয় তো অন্যরকম একটা ঈদ হতো। তারপরও ঈদের দিন নামাজ পড়ব। গরু কোরবানী দেব। বিকেলে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা মেরে সময় কাটাবো। ঈদের ছুটি খুব অল্প দিনের পেয়েছি। ১৫ সেপ্টেম্বর ঢাকায় ফিরে চট্টগ্রাম আবাহনীর ক্যাম্পে যোগ দেব। কারণ ২০ সেপ্টেম্বর আমাদের খেলা রয়েছে। সব মিলে ব্যস্তার মধ্যেই এবারের ঈদুল আজহা পালন করবো। দেশবাসীকে জানাই ঈদ মোবারক।
রায়হান হাসান (ফুটবলার)
টাঙ্গাইলে পরিবারের সঙ্গে ঈদ করি। এবারো করব। ঈদের পশু ইতোমধ্যে কেনা হয়ে গেছে। ঈদের দিন নামাজ শেষে পশু জবেহ করব। আমি নিজেই পশু জবেহ করব। অনেকে পশু জবেহ করতে ভয় পায়। আমি পাই না। এরপর বিকেলে বন্ধুদের সঙ্গে মোটরবাইকে ঘুরে বেড়াব। আত্মীয়-পরিজনের বাড়িতে যাব। ঈদের পর ১৬ তারিখ ঢাকায় ফিরে ক্লাবে যোগ দেব। কারণ সামনে আমাদের বিপিএল ম্যাচ আছে। এছাড়া ভুটান ম্যাচ সামনে রেখে জাতীয় দলের ক্যাম্পও হয় তো শুরু হয়ে যাবে। সব মিলে ব্যস্ততার মধ্যেই দিন পার করব।
সোনিয়া আক্তার টুম্পা (সাঁতারু)
নিজ এলাকা ঝিনাইদহে যাওয়া হচ্ছে না বলেই এবারের ঈদুল আজহা পালন করব ঢাকাতে আমার কর্মস্থল বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ক্যাম্পে। ঈদের ছুটি শেষে ১৫ সেপ্টেম্বর ভারতের মুর্শিদাবাদে যাচ্ছি। সেখানে লং সুইমিং একটা টুর্নামেন্টে অংশ নেবো। জাতীয় দলের ক্যাম্পে থাকার কারণে এর আগে বহুবার ঢাকায় ঈদ করেছি। আসলে ঢাকায় ঈদ করতে যে খারাপ লাগে এমন নয়। তবে পরিবারকে খুব মিস করি। কিন্তু কী করব বলুন? আমরা জাতীয় দলের খেলোয়াড়। দেশের স্বার্থই আমাদের আগে দেখতে হয়। পরিবারের সঙ্গে ঈদ আনন্দ ভাগ না করলেও ফোনে সবার খোঁজ-খবর নেই। এটা হরহামেশাই করি। পরিবারের পক্ষ থেকেও আমার খোঁজ-খবর নেয়া হয়।
মেজবাহ আহমেদ (অ্যাথলেট)
আমার গ্রামের বাড়ি বাগেরহাট। এবার বাড়িতে বাবা-মায়ের সঙ্গে ঈদুল আজহার আনন্দ উপভোগ করা হচ্ছে না। এশিয়ান বিচ গেমসে অংশ নেয়ার কারণে ঢাকায় জাতীয় দলের ক্যাম্পেই ঈদ করব। পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে না পেরে খুব খারাপ লাগছে। তারপরও বলব আমরা জাতীয় দলের খেলোয়াড়। দেশ আমাদের কাছে আগে। দেশের হয়েই আমরা খেলি। এবারের বিচ গেমসে আমি ৬০ মিটার দৌড়ে অংশ নেবো। তারই প্রস্তুতি চলছে। এর আগেও বেশ কয়েকবার খেলা থাকার কারণে দেশের বাইরে ঈদ করেছি। বাড়িতে থাকলে বাবার সঙ্গে হাটে গিয়ে গরু কিনতাম। এরপর পশু কোরবানী দিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা মেরে সময় কাটাতাম। কিন্তু এবার তা করা হচ্ছে না। তারপরও ক্যাম্পে ভালোই ঈদ আনন্দ হবে বলে আমার ধারণা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন