ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ০৯ ভাদ্র ১৪২৬, ২২ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

অভ্যন্তরীণ

রাউজানে অগ্নিকা-ে পাঁচ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি

প্রকাশের সময় : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

রাউজান (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা : চট্টগ্রামের রাউজান ডাবুয়া ইউনিয়নে ভয়াবহ অগ্নিকা-ে ভস্মীভূত হয়েছে কলমপতি মন্দাকিনি তপোবন আশ্রম ও শিব মন্দির। গত রোববার দুপুর ১টার সময় এই অগ্নিকা-ের ঘটনা সংঘটিত হয়। অগ্নিকা-ে মন্দাকিনি তপোবন আশ্রম ও শিব মন্দির পুঁজার সরঞ্জাম, মন্দিরের ও আশ্রমের আসবাবপত্রসহ পাঁচ লাখ টাকার সম্পদ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। অগ্নিকা-ের সংবাদ পেয়ে রাউজান ফায়ার স্টেশনের ইনচার্জ শংকর প্রসাদ বড়ুয়ার নেতৃত্বে দমকল বাহিনীর একটি দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। ঘটনার সংবাদ পেয়ে রাউজান থানার এস আই ময়নাল হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। রাউজানের কলমপতি মন্দাকিনি তপোবন আশ্রমের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে নিয়োজিত থাকা বাঁশখালী জলদি এলাকার রবি দাশ বলেন, আশ্রমের মধ্যে দুপুরে ঘুমানো অবস্থায় অগ্নিকা- সংঘটিত হয়। আগুনের লেলিহান শিখা দেখে এলাকার লোকজন দৌড়ে এসে আশ্রমের ভেতরে ঘুমানো অবস্থা থেকে রবি দাশকে বের করে নিয়ে আসেন। এলাকার লোকজন ও রবি দাশ কেউ বলতে পারছে না কিভাবে আগুন লেগেছে। মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর এডভোকেট দিলীপ চৌধুরী জানান, এই মন্দিরের ভূমি দখল করার জন্যে একটি মহল চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছে। তারই জের ধরে কিছুদিন আগে মন্দিরের সাধুকে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে পাঠানো হয়। আমাদের ধারণা মন্দিরের বৃহৎ জায়গা দখলের চক্রান্তে ষড়যন্ত্র করে আগুন লাগিয়ে দিয়ে আশ্রম ও মন্দির পুড়ে দিয়েছে। রাউজান ফায়ার স্টেশনের ইনচার্জ শংকর প্রসাদ বড়ুয়া, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে আসা রাউজান থানার এস আই ময়নাল হোসেন জানান, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকা- সংগঠিত হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। অগ্নিকা-ের সংবাদ পেয়ে রাউজানের কলমপতি মন্দাকিনি তপোবন আশ্রম পরিচালনা কমিটির কর্মকর্তা মিটু চৌধুরী, স্থানীয় মেম্বার ওবাইদুল হক চৌধুরী, ছাত্রলীগ নেতা রাজু কুমার দেসহ এলাকার লোকজন রাউজানের কলমপতি মন্দাকিনি তপোবন আশ্রম এলাকায় ছুটে যায়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন