ঢাকা, সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ০২ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

মোহামেডানের মধুর প্রতিশোধ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ মে, ২০২১, ১২:০১ এএম

ঘরোয়া ফুটবলের সর্বোচ্চ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) প্রথম পর্বে ২-১ গোলে হারলেও দ্বিতীয় পর্বে একই ব্যবধানে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবকে হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নিলো মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। গতকাল বিকালে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বিপিএলের দ্বিতীয় লেগে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মোহামেডান ২-১ গোলে হারায় সাইফকে। বিজয়ী দলের হয়ে ক্যামেরুনের ফরোয়ার্ড ইয়াসান উয়াচিন ও মালির ফরোয়ার্ড সুলেমানে দিয়াবাতে একটি করে গোল করেন। সাইফের পক্ষে এক গোল শোধ দেন স্থানীয় ফরোয়ার্ড মারাজ হোসেন।
লিগের প্রথম পর্বে হারের প্রতিশোধ নিতেই কাল ম্যাচের শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ফুটবল উপহার দেয় মোহামেডান। তবে গোল হওয়ার মতো প্রথম সুযোগটা পায় সাইফই। ম্যাচের ১৫ মিনিটে ওয়ান টু ওয়ান পজিশনে মোহামেডানের গোলরক্ষক মোহাম্মদ সুজন ছুটে এসে পথ আগলে দাঁড়ানোর পর সাইফের নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড ইকেচুকে কেনেথ শট বাইরে মারেন। নয় মিনিট পর দারুণ সুযোগ পায় মোহামেডান। কিন্তু সতীর্থের ক্রসে ছোট বক্সের মাঝামাঝি থেকে লক্ষ্যভ্রষ্ট হেডে দলকে হতাশ করেন ক্যামেরুনের ফরোয়ার্ড ইয়াসান। গোলশূন্য অবস্থায় দু’দল বিরতিতে গেলে দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই গোল পেতে মরিয়া হয়ে লড়ে মোহামেডান। সফলও হয় তারা। ম্যাচের ৫২ মিনিটে অপেক্ষা ফুরায় সাদাকালোদের। এসময় সুলেমানে দিয়াবাতের ক্রসে রাকিব খান ইভানের ফ্লিক সাইফের গোলরক্ষক ফেরানোর পর ফিরতি শটে গোল করেন ইয়াসান (১-০)।
ধারাবাহিক আক্রমণের মুখে ৬৫ মিনিটে ইয়াসানের শট জালে জড়ালেও দিয়াবাতে অফসাইডে থাকায় গোলের বাঁশি বাজাননি রেফারি। তবে চার মিনিট পর স্বস্তি ফিরে আসে সাইফ শিবিরে। ম্যাচের ৬৯ মিনিটে বাঁ দিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা সাইফের নাইজেরিয়ান মিডফিল্ডার জন ওকোলির পথ আগলে দাঁড়ান মোহামেডানের তিন ডিফেন্ডার। ওকোলির বল পাস দেন বদলি ফরোয়ার্ড মারাজ হোসেনকে। মারাজ দূরপাল্লার শটে চোখের পলকে বল জালে জড়ালে সমতায় ফেরে সাইফ (১-১)। এরপর কিছুটা সময় আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে খেলা চললেও ম্যাচের ৮৪ মিনিটে ফের এগিয়ে যায় মোহামেডান। জাফর ইকবালের থ্রু পাস সাইফের দুই ডিফেন্ডারের ফাঁক গলে বেরিয়ে গিয়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডান পায়ের কোনাকুনি শটে জয়সূচক গোলটি করেন সুলেমানে দিয়াবাতে (২-১)। লিগে মালির এই ফরোয়ার্ডের গোল হলো ১২টি। ম্যাচের বাকি সময় আর কোন গোল না হওয়ায় মধুর প্রতিশোধ নিয়েই মাঠ ছাড়ে মোহামেডান।
ম্যাচ জিতে ১৪ খেলায় সাত জয়, চার ড্র ও তিন হারে ২৫ পয়েন্ট পেয়ে তালিকার পঞ্চমস্থানে উঠে এসেছে মোহামেডান। সমান ম্যাচে সাত জয়, দুই ড্র ও পাঁচ হারে ২৩ পয়েন্ট পাওয়া সাইফ স্পোর্টিং নেমে গেল ষষ্ঠস্থানে।
এক নজরে ফল
মোহামেডান ২-১ সাইফ

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন