ঢাকা, সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০৭ আষাঢ় ১৪২৮, ০৯ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

চারদিনেই কাহিল হচ্ছেন আক্রান্তরা

১৫ গুণ ভয়ঙ্কর নতুন স্ট্রেন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ মে, ২০২১, ১২:০৩ এএম

করোনাভাইরাস বার বার তার রূপ পরিবর্তন করছে। এই ধারা অব্যাহত থাকায় নতুন স্ট্রেন আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। বর্তমানে নতুন স্ট্রেনে আক্রান্ত হলে মাত্র তিন থেকে চার দিনের মধ্যেই রোগীর অবস্থা গুরুতর হচ্ছে। আর নতুন স্ট্রেন ধরা পড়েছে ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের কুর্ণুলে।
কোভিডের নতুন স্ট্রেনের নাম দেওয়া হয়েছে এন৪৪০কে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা সেন্টার ফর সেলুলার অ্যান্ড মলিকিউলার বায়োলজি সংস্থার আবিষ্কৃত এই স্ট্রেন আরও ১৫ গুণ বেশি ভয়ঙ্কর ক্ষতি করতে পারে।
জানা গেছে, অন্ধ্র প্রদেশের কুর্ণুল জেলাতেই এই নয়া স্ট্রেনের সন্ধান মিলেছে প্রথম। বর্তমানে নতুন স্ট্রেন রাজ্যের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকায় নাম দেওয়া হয়েছে অন্ধ্র প্রদেশ স্ট্রেন। যদিও বিশেষজ্ঞদের অনুমান, খুব দ্রæতই এই স্ট্রেন ভারতের অন্যান্য অংশেও ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। ভারতের প্রথম দুই স্ট্রেন, বি১.৬১৭ এবং বি১.৬১৮ স্ট্রেনগুলোর থেকেও ভয়ঙ্কর এই নতুন স্ট্রেন। আগের তুলনায় ১৫ গুণ বেশি সংক্রামকও বটে।
কুর্ণুল জেলা কালেক্টর ভি বিনয় চাঁদ বলেন, ‘আমাদের এখনও এই স্ট্রেন সম্পর্কে ধারণা তৈরি করতে হবে। এই স্ট্রেনই ছড়িয়ে পড়েছে কিনা, তা নিয়েও পর্যালোচনা প্রয়োজন। ইতোমধ্যেই নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবরেটরিতে টেস্টের জন্য পাঠানো হয়েছে।’
তিনি ধারণা করছেন, বিশাখাপত্তনমেই এই স্ট্রেনে আক্রান্ত হয়েছেন বহু মানুষ। তাদের সকলের মধ্যেই নানা শারীরিক জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে। যা আগের তুলনায় একেবারেই আলাদা। মাত্র তিন থেকে চার দিনের মধ্যে বিশাখাপত্তনমের একাধিক কোভিড আক্রান্তের পরিস্থিতি খারাপ হতে শুরু করেছে।
কুর্ণুল জেলার কোভিড স্পেশ্যাল অফিসার পিভি সুধাকর বলেন, ‘ভাইরাসের নতুন স্ট্রেন খুব দ্রæত কাহিল করছে রোগীদের। শরীরে প্রভাব পড়ছে অনেক বেশি। এর আগের স্ট্রেনে আক্রান্ত হওয়ার সপ্তাখানেক পর রোগীদের শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা যেত।
তিনি বলেন, নতুন স্ট্রেনে আক্রান্ত হলে মাত্র তিন থেকে চার দিনেই গুরুতর অবস্থায় চলে যাচ্ছেন রোগীরা। এর জেরেই অক্সিজেন এবং আইসিইউ বেডের হাহাকার শুরু হয়েছে। চিকিৎসকরা আরও জানাচ্ছেন, মূলত তরুণদের মধ্যেই এই স্ট্রেনের প্রভাব বেশি দেখা যাচ্ছে। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া, নিউজ ১৮।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
Eliana Afnan ৭ মে, ২০২১, ১:৩২ এএম says : 0
বাংলাদেশ সরকারের উচিত ভারত ফেরত প্রত্যেক ব্যক্তিকেই বাধ্যতামূলক কঠোর কোয়ারেন্টাইনে রাখা। সর্বশক্তিমান আল্লাহ সবাইকে হেফাজত করুন।
Total Reply(0)
Mohammad Harun Ur-Rashid ৭ মে, ২০২১, ১:৩৩ এএম says : 1
হে মহান প্রতিপালক আপনি এই মহামারী থেকে সমগ্র পৃথিবীর মানুষকে হেফাজত করুন। "তুমিই সর্বশক্তিমান" "তুমি সর্বশ্রেষ্ট"
Total Reply(0)
Nazmul Hasan Shanto ৭ মে, ২০২১, ১:৩৩ এএম says : 0
ভুলেও যেন এই ভ্যারিয়েন্ড দেশে প্রবেশ না করে সেইদিকে সরকারের পদক্ষেপ নিতে হবে। বেঁচে থাকলে বন্ধুত্ব পরে রক্ষা করা যাবে।
Total Reply(0)
Mohammad Bhuiyan ৭ মে, ২০২১, ১:৩৪ এএম says : 0
দিল্লি থেকে তো পাকিস্তান অনেক কাছে। অথচ পাকিস্তান গেল না এত ব্যাপক মৃত্যু ! কাশ্মীরও কাছে! কাশ্মিরও গেল না! কোন দিন জানি মোদি বলা শুরু করে দেয়, করোনা আসলে পাকিস্তানের জীবাণু অস্ত্র! যেমন করে পশ্চিমাদের কেউ কেউ বলে, করোনা আসলে চীনের কারসাজি! করোনা তো দেখি দিকও চিনে ! কিতা আর কইতাম!
Total Reply(0)
Shamim Ahmed ৭ মে, ২০২১, ১:৩৫ এএম says : 0
পুরোপুরি অসহায়। আহারে কেন যে এমন হচ্ছে,কি হতে যাচ্ছে তা ভাবা যাচ্ছে না
Total Reply(0)
Siddiqua Chowdhury ৭ মে, ২০২১, ১:৩৫ এএম says : 0
বাংলাদেশের জন্য দু:সংবাদ। পরিস্থিতি সামাল দিতে ভারত/বাংলাদেশ যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা বলবৎ রাখা যেতে পারে।
Total Reply(0)
উচিৎ জবাবঃ ৭ মে, ২০২১, ১:৩৬ এএম says : 0
সাবধানতায় একমাত্র প্রতিরোধক। বাংলাদেশে আসবে না, এমন ভাবার কোনো শক্ত যুক্তি নাই। তাই আসুন সবাই সতর্ক হই।
Total Reply(0)
Monir Ronju ৭ মে, ২০২১, ১:৩৬ এএম says : 0
পশ্চিমবঙ্গে আসলে তা ঢাকা আসা সময়ের ব্যাপার, জরুরি ব্যাতিত সব ধরণের যাতায়াত বন্ধ করা হোক।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন