ঢাকা শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ইতেকাফরত আলেমদের গ্রেফতারে ধর্মপ্রাণ মানুষ বিস্মিত হয়েছেন- প্রিন্সিপাল মোসাদ্দেক বিল্লাহ মাদানী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ মে, ২০২১, ৭:০৯ পিএম

রমজান মাসে ইতেকাফরত আলেমদের গ্রেফতারে ধর্মপ্রাণ মানুষ বিস্মিত হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী। তিনি বলেন, প্রশাসন যে সব আলেমদের গ্রেফতার করছে তাদেরই চরিত্রহননের চেষ্টা করছে। আলেমদের চরিত্রহননের চেষ্টা সরকারের জন্য সুখকর হবে না। আলেমদের মুখোমুখি দাঁড় করে সরকার দেশে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে। ফলে উলামায়ে কেরামসহ ধর্মপ্রাণ মানুষ চরম উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠার মধ্যে দিনাতিপাত করছে এবং নির্বিঘ্নে ইবাদত বন্দেগিও করতে পারছেন না। তিনি বলেন, আলেমদের চরিত্র কলুষিত করার পরিণাম সরকারের জন্য ভাল ফল বয়ে আনবে না।

আজ বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মজলিসে আমেলার এক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন ও অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান ও ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, সহকারি মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ ইমতিয়াজ আলম ও হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, কেএম আতিকুর রহমান, অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, আলহাজ আব্দুর রহমান, মাওলানা খলিলুর রহমান, মু. বরকত উল্লাহ লতিফ, মাওলানা শেখ ফজুলল করীম মারূফ, মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাকী, আলহাজ হারুন অর রশিদ, আলহাজ মনির হোসেন, মাওলানা নেছার উদ্দিন, অ্যাডভোকেট শওকত আলী হাওলাদার, মাওলানা কেফায়েতুল্লাহ কাশফী।

প্রিন্সিপাল মাদানী বলেন, দেশের দ্বীনি মাদরাসাগুলোর বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। সারাদেশের কওমি মাদরাসাগুলো মানুষের মধ্যে ধর্ম ও নৈতিকতা শিক্ষা বিস্তারে দীর্ঘকাল যাবৎ প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করে আসছে। বিশেষ করে দেশের হাজার হাজার কওমি মাদরাসা সরকারের কোন রকম সাহায্য-সহযোগিতা ছাড়াই সাধারণ ধর্মপ্রাণ মানুষের সহযোগিতায় ইসলামী শিক্ষা বিস্তার ও মানুষের নৈতিক উন্নয়নে বড় অবদান রেখে আসছে।

তিনি বলেন, একদিকে লকডাউন অপরদিকে সরকারি প্রশাসনের নানামুখী হয়রানির কারণে মাদরাসাগুলো চরমভাবে বিপর্যয়ের মুখোমুখি দাড়িয়েছে। এমতাবস্থায় সরকারি প্রশাসনের নানামুখী হয়রানি বন্ধ না হলে দেশের হাজার হাজার কওমি মাদরাসার চিরতরে বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হতে পারে। যার ফলে লাখ লাখ আলেম যেমন বেকার হয়ে পড়বে, তেমনি দেশের ছাত্র- ছাত্রীদের বিশাল একটি অংশ ধর্মীয় শিক্ষা গ্রহণ থেকে বঞ্চিত হবে। মানুষের নৈতিক শিক্ষার বিকাশ বন্ধ হয়ে যাবে।

সভায় বলা হয়, সরকারের অপরিণামদর্শী নীতি ও ভারতপ্রীতির কারণে করোনাভাইরাসের টিকা নিয়ে সঙ্কট তৈরি হয়েছে। করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে যে সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে তা সরকারের অপরিণামদর্শী নীতিরই ফল। ভারতে তীব্র করোনা সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে, কাজেই নিজ দেশের প্রয়োজন না মিটিয়ে অন্য কাউকে ভ্যাকসিন দেবে না, সেটাই স্বাভাবিক। তাছাড়া ভারত তাদের কৃত ওয়াদা কোন সময়ই রক্ষা করে না। কাজেই ভারত নির্ভরতা কমাতে হবে।

নির্মাণ শ্রমিক আন্দোলনের খাবার বিতরণ : নির্মাণ শ্রমিক আন্দোলনের উদ্যোগে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর পল্টন হাউজবিল্ডিং ও দৈনিকবাংলা এলাকার ব্যবসায়ী, ফুটপাত দোকান ও পথচারীদের মাঝে প্যাকেট ইফতারি বিতরণ করা হয়। নির্মাণ শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি আলহাজ নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এ ইফতার বিতরণ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মাওলানা ছিদ্দিকুর রহমান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
মোঃতাইজুল ইসলাম ৮ মে, ২০২১, ৪:৫৩ এএম says : 0
পীর সাহেব চররমোনাই নেতৃত্বে দেশ,পরিচালিত হলে। সাম্য, মনবিক মর্যাদা, সামাজিক ন্যায়বিচার, প্রতিষ্ঠা হত। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলেও সত্য, হতভাগা জাতি ইসলাম থেকে দূরে থাকার কারণে এই দুর্দশা আমাদের উপর লেগেই আছে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন