ঢাকা, রোববার, ২০ জুন ২০২১, ০৬ আষাঢ় ১৪২৮, ০৮ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মুসলিম উম্মাহ চরমভাবে ক্ষুব্ধ

আল-আকসায় মুসল্লিদের হামলা এনডিএম ও খেলাফত মজলিস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ মে, ২০২১, ১২:০১ এএম

শুক্রবার জেরুজালেমে পবিত্র আল-আকসা মসজিদে নামাজরত মুসল্লিদের উপর ইসরাইলী বাহিনীর বর্বরোচিত হামলায় মুসলিম উম্মাহ চরমভাবে ক্ষুব্ধ। ইসরাইলের এ ধরণের আচরণ যুদ্ধাপরাধের সমান। ইহুদীবাদী ইসরাইলী বাহিনী বিনা উস্কানিতে হামলা চালিয়ে পবিত্র আল-আকসা মসজিদের পবিত্রতা নষ্ট করেছে। অবিলম্বে ফিলিস্তিনী জনগনের উপর পরিচালিত ইসরাইলী নৃশংসতা বন্ধ করতে হবে। মুসলমানদের প্রথম কেবলা আল-আকসায় মুসল্লিদের উপর ইসরাইলী বাহিনীর হামলার প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) ও খেলাফত মজলিসের নেতৃবৃন্দ পৃৃথক পৃথক বিবৃতিতে এসব কথা বলেন।

জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) : পবিত্র রমজান মাসের শেষ জুম্মায় জেরুজালেমে অবস্থিত মুসলমানদের প্রথম কেবলা পবিত্র আল-আকসা মসজিদে নামাজরত রোজাদার মুসল্লিদের উপর ইসরায়েলি পুলিশ বাহিনীর বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি। গতকাল শনিবার এক বিবৃতিতে এনডিএম কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির পক্ষে দলীয় চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ বলেন, শুক্রবার পবিত্র রমজানের শেষ জুম্মায় আল-আকসা মসজিদ এবং পূর্ব জেরুজালেমে ইসরায়েলি পুলিশের সাথে সংঘর্ষে প্রায় ২শ’জন মুসল্লি আহত হবার খবর পাওয়া গিয়েছে। আমরা দখলদার ইসরায়েলি বাহিনীর এইধরণের কাপুরোষিত হামলার তীব্র নিন্দা জানাই। তথাকথিত শান্তি আলোচনার সুযোগে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী ফিলিস্তিনের গাজা ভূখন্ডে বারবার বিমান হামলা চালিয়ে নারী, শিশু ও বৃদ্ধসহ এ পর্যন্ত কয়েক হাজার নিরীহ মানুষকে হত্যা করেছে এবং হাজার হাজার বাড়িঘর, মসজিদ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও হাসপাতাল ধ্বংস করেছে। আমরা দৃঢ়ভাবে বলতে চাই ইসরাইলের এ ধরণের আচরণ যুদ্ধাপরাধের সমান। এনডিএম মনে করে, মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ রাষ্ট্র এবং আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত মানবাধিকারের প্রতি সমর্থনকারী হিসেবে বাংলাদেশ সরকারের উচিৎ ফিলিস্তিনি জনগণের ন্যায্য অধিকার আদায়ের পক্ষে কথা বলা। ইসরায়েলি বাহিনীর অবৈধ দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে মুক্তিকামী ফিলিস্তিনি জনগণের অব্যাহত লড়াই-সংগ্রাম আমাদেরকেও সরকারের জুলুম-নির্যাতন এবং ইসলামবিরোধী যেকোন চক্রান্ত রুখে দিতে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

খেলাফত মজলিস : শুক্রবার রাতে জেরুজালেমের পবিত্র আল-আকসা মসজিদে নামাজরত মুসল্লিদের উপর ইহুদীবাদী ইসরাইলী বাহিনীর বর্বরোচিত হামলায় প্রায় দুইশত মুসল্লিকে রক্তাক্ত ও আহত করার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে ফিলিস্তিনীদের উপর ইসরাইলী নির্যাতন বন্ধ ও দখলদারিত্ব অবসানের দাবি জানিয়েছে খেলাফত মজলিস। শনিবার এক বিবৃতিতে খেলাফত মজলিসের আমীর মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক বলেন, অবৈধ ইহুদীবাদী রাষ্ট্র ইসরাইলের পুলিশবাহিনী গত শুক্রবার রাতে আল-আকসা মসজিদে নামাজরত মুসল্লিদের উপর গুলি, টিয়ারসেল, গ্রেনেড হামলা চালিয়ে প্রায় ২০০ মুসল্লিকে রক্তাক্ত ও আহত করেছে। যাদের মধ্যে অনেকে হাসপাতালে সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় রয়েছে। রমজান মাসে আল-আকসা মসজিদে নামাজরত মুসল্লিদের উপর বর্বরোচিত হামলার ঘটনায় বিশ^ মুসলিম চরমভাবে ব্যথিত ও ক্ষুব্ধ। ইহুদীবাদী ইসরাইলী বাহিনী বিনা উস্কানিতে হামলা চালিয়ে পবিত্র আল-আকসা মসজিদের পবিত্রতা নষ্ট করেছে। অবিলম্বে ফিলিস্তিনী জনগনের উপর পরিচালিত ইসরাইলী নৃশংসতা বন্ধ করতে হবে। আল-আকসা মসজিদকে মুসলমানদের ইবাদত বন্দেগীর জন্য উন্মুক্ত রাখতে হবে। ইহুদীবাদী ইসরাইলের অবৈধ দখলদারিত্ব থেকে ফিলিস্তিনকে মুক্ত করতে হবে। একইসাথে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে মুসলমানদের উপর চলমান জুলুম-নির্যাতন বন্ধ করতে হবে। বিবৃতিতে তিনি পবিত্র আল-আকসা মসজিদে নামাজরত মুসল্লিদের উপর ইহুদীবাদী ইসরাইলী বাহিনীর বর্বরোচিত হামলার বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার জন্য জাতিসঙ্ঘ, ওআইসিসহ বিশ্ব মুসলিম ও বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহবান জানান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন