ঢাকা, সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ০২ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মাওলানা মামুনুল হক ও শিশুবক্তা মাদানী কারাগারে

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১১ মে, ২০২১, ১২:০১ এএম

বিলুপ্ত হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হক এবং মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানীর রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল সোমবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নিভানা খায়ের জেসির আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
এর আগে হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হকের ৫ দিন ও মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানীর সাত দিনের রিমান্ড শেষে তাদের আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তারা। মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন এ তদন্তকারী কর্মকর্তারা। শুনানি শেষে বিচারক তাদের কারাগারে আটক রাখার নির্দেশ দেন।

গত ৪ মে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সেক্রেটারি মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে নাশকতার অভিযোগের পৃথক দুই মামলায় ৫ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছিলেন আদালত। গত ২২ এপ্রিল রাজধানীর মতিঝিল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানীর সাত দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছেন ভার্চুয়াল আদালত।

গত ২৫ ও ২৬ মার্চ মোদিবিরোধী আন্দোলনের নামে সহিংসতা ও নাশকতার অভিযোগ মাওলানা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে পল্টন থানায় এ মামলাগুলো দায়ের করেন পুলিশ। এর আগে গত ২৬ এপ্রিল ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মাওলানা মামুনুল হকের পল্টন থানা ও মতিঝিল থানার মামলায় ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত ১৯ এপ্রিল মামুনুল হকের সাত দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। গত ১৮ এপ্রিল রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সোনারগাঁওয়ের রিসোর্টে স্ত্রী নিয়ে অবরুদ্ধ হন মাওলানা মামুনুল হক। ঘটনার দিন সোনারগাঁও রয়েল রিসোর্টে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় হেফাজতের নেতাকর্মীদের আসামি করে তিনটি মামলা হয়। এর মধ্যে একটি মামলায় মাওলানা মামুনুল হক প্রধান আসামি। অপর আসামি মাওলানা মাদানীর গত ২১ এপ্রিল মতিঝিল থানার এক মামলায় চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। গত ৭ এপ্রিল ভোরে নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার লেটিরকান্দার নিজ বাড়ি থেকে রফিকুল ইসলাম মাদানীকে আটক করে র‌্যাব। এরপর গত ১৬ এপ্রিল রফিকুল ইসলাম মাদানীকে দুই দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন