ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ০৩ আষাঢ় ১৪২৮, ০৫ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল ঈদ

স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে মসজিদে ঈদ জামাত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ মে, ২০২১, ১২:০০ এএম

আজ বুধবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেলে মুসলমানদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর হবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার। এক মাস সিয়াম সাধনার পর উদযাপিত হবে পবিত্র ঈদুল ফিতর। এ উৎসবকে কেন্দ্র করে আজ বিকেল থেকেই শাওয়ালের চাঁদ দেখার জন্য অগণিত মুসলিম আকাশের দিকে তাকিয়ে থাকবেন। আর চাঁদ দেখা না গেলে ঈদ হবে শুক্রবার।

আজ বাদ মাগরিব বায়তুল মোকাররমের পূর্ব সাহানে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় ঈদের দিন চূড়ান্ত হবে। করোনা মহামারি সংক্রমণ ঠেকাতে এবারও ভিন্ন আবহে পবিত্র ঈদ উদযাপিত হবে। এদিকে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এবার ভিন্ন আবহে ঈদ উদ্যাপন করবে মুসলমানরা। সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এবার ঈদগাহর পরিবর্তে শারীরিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে ঈদের জামাত। প্রয়োজনে মসজিদে মসজিদে একাধিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানেও এবার ঈদ জামাত হচ্ছে না। করোনাভাইরাস মহামারি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ শেষে মহান রব্বুল আলামীনের দরবারে দোয়া করার জন্য খতিব ও ইমামদের অনুরোধ করা হয়েছে। ঈদের দিন আনন্দ ভাগাভাগি করার জন্য একসঙ্গে নামাজ আদায় করতে সবাই শামিল হবেন মসজিদগুলোতে। কারণ করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে এবারও ঈদগাহ মাঠ বা উন্মুক্ত স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠানে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। ফলে রাজধানীসহ সারা দেশের মসজিদগুলোতেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে সবাইকে ঈদের নামাজ পড়তে হবে। নামাজ শেষে কারও সঙ্গে কোলাকুলি বা হাত মেলানো যাবে না। অনেকের মতে, ঈদের আনন্দ বলতে আমরা যা বুঝি তার কিছুই এবার করা যাবে না করোনা পরিস্থিতির কারণে।

যারা এক মাস রোজা রেখে অভুক্ত থাকার কষ্টকে অনুভব করেছেন, নামাজ, তারাবিহ, ইবাদত-বন্দেগি ও ইসলামের অনুশাসন পালন করেছেন, তাদের জন্য এ ঈদ আনন্দ বেশি উপভোগের, উচ্ছ্বাসের ও শান্তির। তাদের জন্য মহান রব্বুল আলামীনের এক মহাপুরস্কার হচ্ছে ঈদ। পবিত্র কোরআনের বর্ণনা মতে, এক মাস রোজা রাখার পর মুসলমানরা যখন নতুন পায়জামা-পাঞ্জাবি তথা পছন্দের পোশাক পরে, দেহে আতর-খুশবু মেখে ঈদগাহে যান, তখন ফেরেশতারা তাদের সংবর্ধনা জানান। স্বর্গীয় সব বাণীতে তাদের অভিনন্দিত করা হয়। ঈদুল ফিতর মুসলিম উম্মাহর জন্য এক সর্বজনীন ধর্মীয় উৎসব তাতে কোনো সন্দেহ নেই। ধনী-দরিদ্র, ছোট-বড়, শাসক-শাসিত ও আবাল-বৃদ্ধবণিতা সবার জন্য ঈদের আনন্দ যেন সমান ও ব্যাপক হয়, ইসলামে সেই ব্যবস্থা রয়েছে।

পবিত্র রমজানে বিত্তবানরা এগিয়ে এলে এবং দান-খয়রাত করলে, যাকাত ও ফিতরা প্রদান করলে দরিদ্ররা ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে পারবে বেশি। তাদের মুখেও হাসি ফুটবে এবং ঈদের ভোর আসবে তাদের জন্য আনন্দবার্তা নিয়ে। মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ঈদের খুৎবায় দান-খয়রাতকে বিশেষভাবে উৎসাহিত করতেন। তাই ঈদের নামাজের আগেই ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা তাদের নিজ নিজ যাকাত ও সদকাতুল ফিতর (ফিতরা) আদায় করে থাকেন।

এদিকে সউদী আরবে গতকাল মঙ্গলবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেলে আজ বুধবার দেশটিসহ এবং মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবার কথা। চাঁদ দেখা না গেলে আগামীকাল মধ্যপ্রাচ্যে ঈদ হবে। সাধারণত সউদী আরবের পরের দিন বাংলাদেশে ঈদুল ফিতর উদযাপিত হয়।

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা পৃথক বাণীতে দেশবাসীর প্রতি শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। বাণীতে তারা বিশ্ব মুসলিমের সুখ, শান্তি, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ কামনা করেছেন। করোনাভাইরাস অতিমাত্রায় বৃদ্ধি পাওয়ায় ঈদের পরে ১৬ মে থেকে আরো ৭ দিন লকডাউন বাড়ানো হয়েছে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, আজ বাদ মাগরিব বায়তুল মোকাররমের পূর্ব সাহানে সভাকক্ষে বৈঠকে বসবে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি। এতে সভাপতিত্ব করবেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও কমিটির সভাপতি মো. ফরিদুল হক খান। বাংলাদেশের আকাশে কোথাও পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেলে তা নিম্নোক্ত টেলিফোন ও ফ্যাক্স নম্বরে অথবা সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা প্রশাসক অথবা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। টেলিফোন নম্বর : ৯৫৫৯৪৯৩, ৯৫৫৫৯৪৭, ৯৫৫৬৪০৭ ও ৯৫৫৮৩৩৭। ফ্যাক্স নম্বর : ৯৫৬৩৩৯৭ ও ৯৫৫৫৯৫১।

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে পর্যায়ক্রমে ৫টি ঈদের নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৭টায়। এতে ইমামতি করবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান। দ্বিতীয় জামাত সকাল ৮টায়। এতে ইমামতি করবেন পেশ ইমাম হাফেজ মুফতি মুহিব্বুল্লাহিল বাকী নদভী, তৃতীয় জামাত সকাল ৯টায়। এতে ইমামতি করবেন পেশ ইমাম হাফেয মাওলানা এহসানুল হক। চতুর্থ জামাত সকাল ১০টায়। এতে ইমামতি করবেন পেশ ইমাম মাওলানা মহিউদ্দিন কাসেম। পঞ্চম ও সর্বশেষ জামাত সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে। এতে ইমামতি করবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মুহাদ্দিস হাফেজ মাওলানা ওয়ালিয়ূর রহমান খান।

মসজিদে গাউছুল আজমে ঈদুল ফিতরের চারটি জাময়াত অনুষ্ঠিত হবে
আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রাজধানীর মহাখালীস্থ মসজিদে গাউছুল আজম কমপ্লেক্সে চারটি জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম জাময়াত সকাল ৭:৩০ ঘটিকায়, যাতে ইমাম থাকবেন মসজিদে গাউছুল আজমের ইমাম আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা নূরুল হক। দ্বিতীয় জাময়াত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮:৩০ ঘটিয়া, যাতে ইমামতি করবেন মসজিদে গাউছুল আজমের খতিব আলহাজ্ব মাওলানা কবি রূহুল আমীন খান। তৃতীয় জাময়াত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৯:৩০ ঘটিকায়, যাতে ইমাম থাকবেন মসজিদে গাউছুল আজমের ইমাম আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা মিজানুর রহমান। চতুর্থ ও সর্বশেষ জাময়াত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০:১৫ ঘটিকায়, যাতে ইমামতি করবেন ভুইঘর দারুচ্ছুন্নাহ কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ। সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমান ভাই ও বোনদের ঈদুল ফিতরের জামাতে সতস্ফুর্ত অংশগ্রহণের জন্য মসজিদ কর্তৃপক্ষ অনুরোধ করেছেন। একই সাথে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজনিজ বাসা থেকে অজুকরে জায়নামাজ নিয়ে মসজিদে প্রবেশের আহ্বান জানিয়েছে।

চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদগাহের বদলে মসজিদে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে ঈদ-উল-ফিতরের জামাত। সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে ঈদের প্রথম ও প্রধান জামাত সকাল ৮টায় জমিয়তুল ফালাহ মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। একই মসজিদে দ্বিতীয় জামাত হবে সকাল ৯টায়। প্রথম জামাতে ইমামতি করবেন মসজিদের খতিব সৈয়দ আবু তালেব মোহাম্মদ আলাউদ্দীন আলকাদেরী।

এছাড়া লালদীঘি শাহী জামে মসজিদে প্রথম জামাত সকাল সোয়া ৭টা এবং দ্বিতীয় জামাত সকাল সোয়া ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৮টায় সিটি কর্পোরেশনের তত্ত্বাবধানে সুগন্ধা আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, শেখ ফরিদ (রহ.) চশমা ঈদগাহ মসজিদ, চকবাজার সিটি কর্পোরেশন জামে মসজিদ ও সাগরিকা জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়াম সংলগ্ন মা আয়েশা সিদ্দিকা চসিক জামে মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে একটি করে প্রধান ঈদ জামাত স্ব স্ব মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। সিটি মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ জামাতে শরিক হওয়ার জন্য নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (7)
মুহাম্মদ ফোরকান ১২ মে, ২০২১, ১:২৪ এএম says : 0
আজ দুবাইতে চাঁদ উঠেনাই কাল ঈদ হবেনা
Total Reply(0)
Md Al Amin ১২ মে, ২০২১, ১:২৫ এএম says : 0
এবার ত্রিশ রোজা হবে ইনশাআল্লাহ
Total Reply(0)
Helal Uddin Helal ১২ মে, ২০২১, ১:২৫ এএম says : 0
আজ চাঁদ দেখা যাবে না তাই কাল ঈদ হবে না।
Total Reply(0)
Ala Uddin Khan ১২ মে, ২০২১, ১:২৫ এএম says : 0
সাস্থ্যবিধি আর রইল কই। সকল বিধিনিষেধ অমান্য করে যে যার মত চলছে। করোনা হলো মহামারী (আল্লাহর গযব) এটা দেশের জালেম গুষ্টির জন্যে প্রয়োজন। যারা এখনো হিংসাত্মক মানসিকতার পরিবর্তন করতে পারে নাই।
Total Reply(0)
কুদ্দুস তালুকদার ১২ মে, ২০২১, ১:২৬ এএম says : 0
সবাইকে ঈদুল ফিতরের অগ্রিম শুভেচ্ছা। ত্রিশ রোজা হলেই ভালো।
Total Reply(0)
তফসির আলম ১২ মে, ২০২১, ১০:৪৫ এএম says : 0
মনে হচ্ছে রোজা ত্রিশটাই হবে
Total Reply(0)
মিনহাজ ১২ মে, ২০২১, ১০:৪৬ এএম says : 0
ঈদের সময় সবাইকে সচেতন হতে হবে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন