ঢাকা, রোববার, ১৩ জুন ২০২১, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ০১ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

হোটলেবন্দী ঈদ, বিষন্ন মুস্তাফিজ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ মে, ২০২১, ১২:০২ এএম

খেলার জন্য ছুটতে গিয়ে পরিবারের কত গল্প যে অজানা থেকে গেছে, অব্যক্ত রয়ে গেছে কত পারিবারিক অনুভ‚তি, তা একজন খেলোয়াড়ই শুধু অনুভব করেন। পেশাদার ক্রিকেটারদের পরিবার থেকে দ‚রে থাকার ঘটনা নতুন বা দুর্লভ নয়। তবে উৎসব-আনন্দের ক্ষণগুলো পরিবারের সাথে কাটানোর চেষ্টা করেন সবাই। দেশে থাকলেও সেই ভাগ্য হচ্ছে না মুস্তাফিজুর রহমানের।
আর ২-৩ দিন পরই ঈদ। করোনার কারণে লকডাউন থাকলেও দেশজুড়ে বিরাজ করছে ঈদের আমেজ। তবে মুস্তাফিজ এবারের ঈদ পরিবারের সাথে কাটাতে পারবেন না। স্থগিত হয়ে যাওয়া আইপিএল শেষ করে দেশে ফিরে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন চলছে এই তারকা পেসারের।
আইপিএল বন্ধ না হলে অবশ্য ভারতেই ঈদ করা হত মুস্তাফিজের। তবে দেশে ফিরে এসেছেন বলেই হয়ত আক্ষেপটা বেশি। কাছাকাছি থেকেও মায়ের হাতের সেমাই খাওয়া হবে না, বাবার সাথে কোলাকুলি করা হবে না। সময়-সুযোগ মিললেই যিনি নিজের গ্রাম সাতক্ষীরায় চলে যান, সেই মুস্তাফিজের প্রায় ৭০ দিন কেটে গেল ক্রিকেট মাঠ আর হোটেলের রুমে! তবে মুস্তাফিজের মন পড়ে আছে সাতক্ষীরায়। জানালেন, ‘মনতো খারাপ হবেই! কষ্টও লাগবে।’
মুস্তাফিজের সাথে অবশ্য তার স্ত্রী আছেন, যিনি আইপিএলে মুস্তাফিজের সঙ্গী ছিলেন বলে দেশে এসে যথারীতি কোয়ারেন্টিন করতে হচ্ছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ভারত ফেরতদের কোভিড নীতিমালা শিথিল না করায় ঈদেও রাজধানীর একটি অভিজা হোটেল কক্ষে বসেই দিন কাটাতে হবে মুস্তাফিজকে। ঈদের দিনটি তাই বাকি ১৩ দিনের চেয়ে ভিন্ন হয়ে ধরা দেবে না তার কাছে।
স্ত্রীকে নিয়ে মুস্তাফিজের সময়টা খুব খারাপও কাটছে না। তবে একঘেয়েমির ব্যাপার তো আছেই। নিউজিল্যান্ড সফর থেকে ফিরেও বাড়ি যাননি, বিমানবন্দর থেকে সোজা উড়াল দেন ভারতে। প্রায় আড়াই মাস ধরে দেখছেন না বাবা-মাকে। হোটেল রুমে কোয়ারেন্টিনের দিনগুলো তাই বড্ড একঘেয়ে ঠেকছে মুস্তাফিজের কাছে, ‘নামাজ পড়ি, টিভি দেখি আর হালকা ব্যয়াম করি। আর কী করবো? এভাবে থাকা অনেক কঠিন।’
স্থগিত হওয়ার আগে আইপিএলে ৭ ম্যাচ খেলে ৮ উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজ। যার মধ্যে ম্যাচ জেতানো ২০ রানে তিন উইকেটও ছিল তার পুরোনো দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে। নিজের সাফল্যের পাশাপাশি এবারের আইপিএলে রাজস্থান অধিনায়ক সাঞ্জু স্যামসন ও বোলিং পার্টনার চেতন সাকারিয়ার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক হয়েছে তার। আইপিএলে খেলাটা তাকে অনুপ্রাণিত করে। ডাক পেলে তার মনে হয় যে, তিনি এখনও আলোচনায় আছেন।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন