ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৮ আষাঢ় ১৪২৮, ১০ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

জ্বলছে গাজা, নিহত বেড়ে ১৩২

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ মে, ২০২১, ৭:৩৭ পিএম

ফিলিস্তিনের রাজধানী গাজা জ্বলছে। ইসরাইলের মুহুর্মুহু বিমান ও সমুদ্র পথে হামলায় অগ্নিকুণ্ডে পরিণত হয়েছে বিচ্ছিন্ন জনপদটি। শনিবার ভোরে নতুন করে আকাশপথে হামলা জোরালো করেছে ইসরাইল। এর জবাবে হামাস রকেট ছুড়েছে ইসরাইলের দিকে।

ইসরাইলের হামলায় গাজায় একটি মসজিদ ধ্বংস হয়ে গেছে বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনের ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়। সেনাবাহিনীর মুখপাত্র বলেছেন, তারা এই রিপোর্ট যাচাই করে দেখছেন। ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে যখন সহিংসতা বা যুদ্ধ ৫ম রাতে পড়েছে, তখনও মার্কিন ও আরব কূটনীতিকরা এর ইতি টানার আহ্বানের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রয়েছেন। গাজার সাধারণ জনগণকে দেখা গেছে এক কাপড়ে ঘর ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ের দিকে ছুটে যাচ্ছেন।

এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এতে বলা হয়, ভোর রাতে গাজার উত্তরাঞ্চলে তীব্র বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইল।

ফিলিস্তিনি চিকিৎসকরা বলেছেন, এতে কমপক্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। স্থানীয় অধিবাসীরা বলছেন, ভূমধ্যসাগরে অবস্থানরত ইসরাইলি বিমান বাহিনীর বোট থেকে গোলা নিক্ষেপ করা হয়েছে। তবে তা গাজা ভূখণ্ডে আঘাত করতে ব্যর্থ হয়েছে। জবাবে গাজা থেকে ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলে দুটি বড় শহরে রকেট হামলা করেছে হামাস। তারা এর দায়িত্ব স্বীকার করেছে। এ সময় ইসরাইলের ওই দুই শহরে সাইরেন বাজানো হয়।

ওদিকে লড়াই বন্ধ হওয়ার কোনো লক্ষণই দেখা যাচ্ছে না। সমান তালে বাড়ছে মৃত্যু ও আহতের সংখ্যা। ইসরাইল দখলীকৃত পশ্চিমতীরে ১১ জন নিহত হয়েছেন বলে জানাচ্ছেন ফিলিস্তিনিরা। সেখানে বিক্ষোভকারী এবং ইসরাইলি নিরাপত্তা রক্ষাকারীদের মধ্যে লড়াই চলছে। সব মিলে সোমবার থেকে এখন পর্যন্ত ৩২টি শিশু, ২১ জন নারীসহ কমপক্ষে ১৩২ জন নিহত হয়েছেন গাজায়। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৯৫০ জন। হামাস বলেছে, গাজা সিটির বিচ শরণার্থী ক্যাম্পে বসবাসকারী আবু হাত্বাব পরিবারের একটি বাড়িতে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। এতে সেখানে একজন নারী ও একটি শিশুসহ কমপক্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি ইসরাইলি সেনাবাহিনী। অন্যদিকে ইসরাইলে নিহত হয়েছে মোট আটজন।

গাজায় যখন রক্তগঙ্গা বইয়ে দেয়া হচ্ছে তখন মানবাধিকারের রক্ষক, নিরাপত্তা নিশ্চিত করার প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনগুলো ধীরে চলো নীতি গ্রহণ করেছে। রোববার এ ইস্যুতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে বৈঠক হওয়ার কথা। তবে তার আগে শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ইসরাইল ও ফিলিস্তিন বিষয়ক ডেপুটি অ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি হাদি আমর’কে পাঠানো হয়েছে এ অঞ্চলে। ইসরাইলে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস থেকে বলা হয়েছে, এই সফরের উদ্দেশ্য টেকসই একটি শান্ত অবস্থার দিকে অগ্রসর হতে কাজ করা। সূত্র: রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
মোঃ+দুলাল+মিয়া ১৬ মে, ২০২১, ৩:০৩ এএম says : 0
ইরান পাকিস্তান তুরস্ক আফগানিস্তান আপনারা জরুরি হামাস কে পশিক্ষন দিয়ে দিন দিতে থাকুন দেওয়া জরুরি,যদি মুসলমানেরা এক হয়ে বাঁচতে চান,যদি বলেন না আমরা ইহুদিবাদ ইহুদিরা কাফেরদের উপরেই থাকবে আর অত্যাচার নয়,মুসলমানদের বিজয়ী করতে চাই করতে হবে ইসলামের বিজয় করবেই,জরুরি আপনারা শক্তিশালী তিন দেশ গরিব মুসলিম দেশকে পশিক্ষন দেন জরুরি,
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন