ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ১০ আষাঢ় ১৪২৮, ১২ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সরিষাবাড়ীতে ১০টি গ্রামে কালবৈশাখী ঝড়ে শতাধিক বাড়িঘর লণ্ডভণ্ড

৩০ লাখ টাকার ক্ষতি, আহত ১০

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ মে, ২০২১, ৪:৩৩ পিএম

সরিষাবাড়ীতে কাল বৈশাখী ঝড়ে পঞ্চাশী রেজাউল হক কাবেরিয়া দাখির মাদরাসার ক্ষতিগ্রস্থ একাংশ।


জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে কালবৈশাখী ঝড়ে শতাধিক বাড়িঘর, গাছপালা ও ধানী জমির ক্ষতি হয়েছে। উপজেলার আওনা ইউনিয়নের পঞ্চাশী, কালিকাপুর, কাশিনাথপুর, নাথেরপাড়া, দৌলতপুর, ডোয়াইল ইউনিয়নের গ্রাম নিখাই, লোকনাথপুর এলাকায় শনিবার বিকেলে আকষ্মিক এ ঝড় হানা দেয়। রবিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিহাব উদ্দিন আহমদ ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, আওনা ও ডোয়াইল ইউনিয়নের অন্তত ১০টি গ্রাম কালবৈশাখী ঝড়ের কবলে পড়ে। এতে অন্তত শতাধিক পরিবারের আধাপাকা ও কাঁচা বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়। এছাড়া পঞ্চাশী রেজাউল হক কাবেরিয়া দাখিল মাদরাসায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে পাকাধান নুইয়ে পড়াসহ বড় বড় গাছপালা উপড়ে গেছে।
এদিকে ঝড়ের কবলে পড়ে দৌলতপুর কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী রিমু আক্তার, নিখিরপাড়ের শাহজাহান ও কালিকাপুরের শুক্কুর আলীসহ অন্তত ১০ জন আহত হন। গুরুতর আহত রিমুকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পঞ্চাশী রেজাউল হক কাবেরিয়া দাখিল মাদরাসার সুপারিন্টেন্ডেন্ট মাও. এম. এ. মান্নান জানান, তাঁর মাদরাসার মেয়েদের কমনরুম ও নামাজের ঘর তছনছ এবং সীমানার নিরাপত্তা বেষ্টনীর দেয়াল ধ্বসে গেছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিহাব উদ্দিন আহমদ জানান, ঝড়ে ঘড়বাড়ি ভেঙে ও গাছপালা উপড়ে আওনা ইউনিয়নে ২০ লাখ ও ডোয়াইল ইউনিয়নে ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের সচিবরা প্রাথমিকভাবে জানিয়েছেন। ক্ষতিগ্রস্ত তিনটি পরিবারকে পাঁচ বান্ডিল ঢেউটিন ও ১৫ হাজার টাকা এবং আহত শিক্ষার্থীর চিকিৎসার জন্য পাঁচ হাজার টাকা তাৎক্ষণিক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। আরো সহায়তা বরাদ্দ চেয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন