ঢাকা, সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০৭ আষাঢ় ১৪২৮, ০৯ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

মহানগর

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের নামে মামলা, নেয়া হয়েছে আদালতে

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ মে, ২০২১, ৯:৫৮ এএম | আপডেট : ১০:৪৮ এএম, ১৮ মে, ২০২১

‘গুরুত্বপূর্ণ’ নথিপত্র নেওয়ার অভিযোগে করা মামলায় দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে ঢাকা সিএমএম আদালতে নেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ মে) সকাল সাড়ে ৭টায় তাকে শাহবাগ থানা থেকে আদালতে নেওয়া হয়। তার আগে সোমবার বিকেলে তাকে পাঁচ ঘণ্টা আটকে রাখার পর রাতে থানায় মামলা করে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

ডিএমপির রমনা বিভাগের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার হারুন অর রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অভিযোগের ভিত্তিতে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের উপসচিব ডা. মো. শিব্বির আহমেদ উসমানী প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় মামলা দায়ের করেন। দণ্ডবিধি ৩৭৯, ৪১১ ধারায় ও অফিসিয়ালস সিক্রেসি অ্যাক্ট ৩ ও ৫ ধারায় মামলা করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব লোকমান হোসেন মিয়ার একান্ত সচিব (পিএস) মো. সাইফুল ইসলাম ভূঞার কক্ষ থেকে সোমবার (১৭ মে) বিকেল ৩টার দিকে রোজিনা ইসলামকে আটক করে রাত ৯টার দিকে শাহবাগ থানায় নেওয়া হয়। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের দাবি, ‘গুরুত্বপূর্ণ’ নথিপত্রের ছবি তোলা ও সঙ্গে করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে তাকে পুলিশে দেওয়া হয়েছে।

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের দাবি, তিনি কোনো নথিপত্র নেননি কিংবা নথিপত্রের ছবি তোলেননি। সচিবের সঙ্গে দেখা করতে গেলে সচিবের পিএস তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে পুলিশ ডাকে।

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের সহকর্মী ও সচিবালয় বিটে কর্মরত একাধিক সাংবাদিক জানান, পেশাগত দায়িত্ব পালনে সাড়ে তিনটার দিকে রোজিনা ইসলাম সচিবের সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য তার পিএসের কক্ষে যান। এরপর সচিবের পিএস সাইফুল একজন পুলিশ সদস্য ও স্টাফদের দিয়ে তাকে হেনস্তা করে আটকে রাখেন। এসময় তার কাছ থেকে মোবাইল ফোন কেড়ে নেওয়া হয়। এসময় তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন।

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে আটকে রাখার খবর ছড়িয়ে পড়লে সচিবালয়ে কর্মরত সাংবাদিক এবং ডিআরইউ, ডিইউজে ও প্রেসক্লাব নেতারা সেখানে গিয়ে তাকে ছাড়িয়ে নেওয়ার জন্য স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিবের সঙ্গে কয়েক দফা সাক্ষাতের চেষ্টা করেন। কিন্তু তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে সাক্ষাত করেননি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
motiur rahman ১৮ মে, ২০২১, ১১:১৫ এএম says : 0
I hate this kind of offense.
Total Reply(0)
Mohammed kowaj Ali Khan ১৮ মে, ২০২১, ১০:৫৩ এএম says : 0
যাহাকে আটকে রেখে নিরযাতন করিলো, রোজিনা ইসলামকে। রোজিনা ইসলাম নতি চুরি করিলেন কিভাবে?
Total Reply(0)
Md Sohel Kiron ১৮ মে, ২০২১, ১০:৫৪ এএম says : 0
তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ। সে সাথে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানাই।
Total Reply(0)
Mohammad Shahidul Islam Shahid ১৮ মে, ২০২১, ১০:৫৮ এএম says : 0
স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতি নিয়ে কয়েকটি প্রতিবেদন করায় দুর্নীতিবাজদের প্রতিহিংসা আর ষড়যন্ত্রের শিকার। এসব নোংরামির বিরুদ্ধে ঘৃনা প্রকাশ করছি।
Total Reply(0)
Rasel Rana ১৮ মে, ২০২১, ১২:২০ পিএম says : 0
অতীতে সাংবাদিক নির্যাতনের সময় চুপ থাকার কর্মফল
Total Reply(0)
Md Shakib ১৮ মে, ২০২১, ১২:২৩ পিএম says : 0
সাংবাদিক আটক হয়েছেন বড় কথা নয় বড় কথা হলো স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অস্বাস্থ্যকর কাজ করার জন্য আরেকটু সাহস পেলেন। ভবিষ্যতে কারো সাহস হবেনা এই মন্ত্রণালয়ের নথিপত্র ঘাটাঘাটি করার। ভালো তো ভালো না পানির দামে শরবত
Total Reply(0)
Zohora Aksha ১৮ মে, ২০২১, ১২:২৪ পিএম says : 0
একজন সৎ সাহসী সাংবাদিক হিসেবে রোজিনা ইসলামের নামটা লেখা হয়েগেছে। তার উপরে যত অত্যাচার হবে , রোজিনা আমাদের কাছে ততবেশি প্রিয় আর অনুপ্রেরণা হয়েওঠবে।
Total Reply(0)
Anwar+Hossain ১৮ মে, ২০২১, ২:০৬ পিএম says : 0
সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে আটকে রাখার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই ।
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন