ঢাকা শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ইসরাইলি আগ্রাসনের প্রতিবাদে রাস্তায় ঢাবি শিক্ষক সমিতি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০২১, ১২:০০ এএম

ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের চলমান আগ্রাসনের প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শিক্ষক সমিতি। গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এ মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান বলেন, ১৯৪৮ সালে ইসরায়েল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে ফিলিস্তিনিরা প্রতারিত হয়েছেন। তখন ইসরায়েল স্বীকৃতি পেলেও ফিলিস্তিন স্বীকৃতি পায়নি। দ্বিতীয়বার প্রতারণার স্বীকার হয়েছে ১৯৬৭ সালে। আর এই প্রতিটি ঘটনায় ফিলিস্তিনিরা ভূমি ও নিরীহ মানুষের প্রাণ হারিয়েছেন। সে কারণেই বলা হয় ইসরায়েলি ‘অকুপেশন।’ ইসরায়েলের এই নারকীয় বর্বরোচিত হত্যা, শিশু হত্যা, নারী হত্যার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছি।

প্রতিবাদ কর্মসূচির আয়োজনের জন্য শিক্ষক সমিতিকে ধন্যবাদ জানিয়ে উপাচার্য বলেন, বাংলাদেশের আর কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ফিলিস্তিনের নির্যাতিত মানুষের পক্ষে দাঁড়িয়েছে কি-না জানি না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তার ইতিহাস-ঐতিহ্য মোতাবেক সবার প্রথমেই ইসরায়েলের আগ্রাসনের প্রতিবাদ করছে। এ কর্মসূচি আয়োজনের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতিকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মাকসুদ কামাল বলেন, মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ করার কারণে ইতোমধ্যে ইসরায়েল একটি শত্রু রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। সারা বিশ্বের মানুষ ফিলিস্তিনের নির্যাতিত-নিপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে। কিন্তু কিছু কিছু দেশের রাষ্ট্রপ্রধান ইসরায়েলের পক্ষে সাফাই গাচ্ছেন। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীসহ যারা এর পক্ষ নিয়েছে তাদের সবার প্রতি নিন্দা জানাচ্ছি। এটি কোনো ধর্মের বিষয় নয়, এটি মানবতার বিষয়। সবাইকে ফিলিস্তিনের নির্যাতিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানাই।

সমিতির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান বলেন, ফিলিস্তিনের ওপর, মুসলমানদের ওপর ইসরায়েলের হামলা এবারই প্রথম নয়, তারা যখনই সুযোগ পেয়েছে হামলা-গণহত্যা করেছে। এবার তারা এমন এক সময় আগ্রাসন চালাচ্ছে, যখন সারা বিশ্ব করোনায় বিপর্যস্ত। ইসরায়েলের এই আগ্রাসনের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। ইসরায়েলের এই আগ্রাসন রুখে দিতে সারা বিশ্বের মানুষকে জেগে ওঠার আহ্বান জানাই।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মো. রহমত উল্লাহ বলেন, ইসরায়েল নিঃসন্দেহে মানবতাবিরোধী অপরাধে অপরাধী। তাদের মানবতাবিরোধী কাজের প্রতি আমরা নিন্দা জানাচ্ছি। তারা আন্তর্জাতিক আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছে। পৃথিবীর কোনো আইনই তাদের পক্ষে কথা বলবে না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি সবসময় নির্যাতিত-নিপীড়িত মানুষের হয়ে কথা বলবে। আজ যদি মুসলমানের হাতে অন্য ধর্মালম্বীদের ওপর আগ্রাসন চলতো, তখনও আমরা প্রতিবাদ করতাম।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি ঢাবির আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক মো. রহমত উল্লাহ। সাধারণ সম্পাদক পুষ্টি ও খাদ্য বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক নিজামুল হক ভূঁইয়ার সঞ্চালনা করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন