মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

সিটি ব্যাংকের ১৭.৫% ক্যাশ এবং ৫% স্টক ডিভিডেন্ড লভ্যাংশ অনুমোদন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০২১, ৭:২২ পিএম

দি সিটি ব্যাংক লিমিটেডের ৩৮তম বার্ষিক সাধারণ সভা আজ (বুধবার) ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয়। বার্ষিক সাধারণ সভায় সভাপতিত্ব করেন ব্যাংকের চেয়ারম্যান আজিজ আল কায়সার।

ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান হোসেন খালেদ, পরিচালকবৃন্দ তাবাসসুম কায়সার, হোসেন মেহমুদ, রফিকুল ইসলাম খান, সৈয়দা শায়রীন আজিজ, সাভেরা এইচ মাহমুদ, রেবেকা ব্রুসন্যান স্বতন্ত্র পরিচালক ফারুক সোবহান, ড. সেলিম মাহমুদ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মাসরুর আরেফিন, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিএফও মোঃ মাহবুবুর রহমান এবং বিপুল সংখ্যক শেয়ারহোল্ডার ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করেন।

ব্যাংকের চেয়ারম্যান আজিজ আল কায়সার তাঁর স্বাগত ভাষণে কোভিড-১৯ মহামারী চলাকালীন সময়ে ব্যাংকিং সেক্টরে নানাবিধ চ্যালেঞ্জের কথা উল্লেখ করে ক্রমান্বয়ে সেগুলো থেকে উত্তীর্ণ হওয়ার লক্ষ্যে সচেষ্ট থাকার কথা জানান। তিনি ব্যাংকের সম্ভাবনাময় সুযোগগুলো ও উল্লেখযোগ্য দিকগুলোর একটি চিত্র তুলে ধরেন।

৩১ ডিসেম্বর, ২০২০ অনুযায়ী ব্যাংকের নিরীক্ষিত বার্ষিক আর্থিক বিবরণী সভায় উপস্থাপন করা হয় এবং সম্মানিত শেয়ারহোল্ডারগণ ব্যাংকের কার্যক্রমের উপর আলোচনা করেন।

সভায় চেয়ারম্যান জানান যে, ২০২০ সালে সিটি ব্যাংকের নীট মুনাফা হয়েছে ৪০১ কোটি টাকা, যা ২০১৯ সাল থেকে ১৫৪ কোটি টাকা বা ৬২ দশমিক ৩ শতাংশ বেশি। ফলশ্রুতিতে এই সময়ে ব্যাংকের রিটার্ন অন ইকুইটি বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ১৪ দশমিক ৮ শতাংশ, যা ২০১৯ সালে ছিল ৯ দশমিক ৯ শতাংশ। প্রয়োজনের অতিরিক্ত লোন প্রভিশন রেখে ২০২০ সালের শেষে প্রভিশন কভারেজ রেশিও বেড়ে হয়েছে ৯৫%, যা ২০১৯ সালের শেষে ছিল ৭৮%।

ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সিইও মাসরুর আরেফিন ব্যাংকের কর্মকান্ডের সার্বিক চিত্র শেয়ারহোল্ডারদের কাছে তুলে ধরেন এবং ব্যাংকের প্রতি তাদের দীর্ঘদিনের আস্থার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। একই সঙ্গে তিনি সার্বক্ষণিক সহায়তা ও দিকনির্দেশনার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনসহ সকল নিয়ন্ত্রণ সংস্থা এবং ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

৩৮তম ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্ম বার্ষিক সভায় পরিচালনা পর্ষদ কর্তৃক সুপারিশকৃত ১৭.৫% ক্যাশ এবং ৫% স্টক ডিভিডেন্ড অনুমোদনের জন্য উপস্থাপিত হলে তা সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত ও অনুমোদিত হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন