বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

করোনার টিকা ছাড়া কর্মী নিবে না মালয়েশিয়া, প্রবাসী মন্ত্রীকে-মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানান

শামসুল ইসলাম | প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০২১, ৮:০৭ পিএম

কোভিড-১৯ টিকা দেয়া ব্যতীত মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রফতানির সুযোগ নেই। করোনা ভ্যাকসিন দিয়েই অভিবাসী বাংলাদেশিদের মালয়েশিয়ায় প্রবেশের সুযোগ পাবেন। মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুক শ্রী সারাভানান মুরুগান গত ১৯ মে বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদকে এক জরুরি চিঠিতে এ বিষয়টি অবহিত করেছেন। আজ মঙ্গলবার প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে। ১৯৭৮ সাল থেকে ২০২০ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত ১০ লাখ ৫৭ হাজার ১৮১ জন কর্মী চাকরি লাভ করেছে।

জনশক্তি রফতানির অন্যতম দেশ মালয়েশিয়ায় প্রায় ৬ লাখ বাংলাদেশি কর্মী কঠোর পরিশ্রম করে প্রচুর রেমিট্যান্স দেশে পাঠাচ্ছেন। যদিও বাস্তবে এই সংখ্যা আরও বেশি বলে সংশ্লিষ্টদের ধারণা। দেশটি থেকে ছুটিতে আসা অনেক কর্মীই আটকা পড়েছেন। তারা চরম হতাশায় ভুগছেন।

সম্প্রতি দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার এ দেশটির জনগণের সুস্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে বাংলাদেশসহ চারটি দেশের জনগণের প্রবেশাধিকারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে । করোনাভাইরাস মহামারির বর্তমান পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে সম্প্রতি বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার চারটি দেশের নাগরিকদের ক্ষেত্রে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে মালয়েশিয়া। দেশটির মন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুবকে উদ্ধৃত করে এ নিষেধাজ্ঞার কথা জানায় মালয়েশিয়ার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম।

সম্প্রতি মালয়েশিয়া স্টার ও নিউ স্ট্রেইটস টাইমস জানিয়েছে, বাংলাদেশের পাশাপাশি শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান ও নেপালের যাত্রীদেরও ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ওই তালিকায় রাখা হয়েছে। তবে কবে থেকে এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে, তা স্পষ্ট করেননি মন্ত্রী ইয়াকুব। এর আগে করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত ভারত থেকে আসা-যাওয়ার ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল মালয়েশিয়া। ইসমাইল সাবরিকে উদ্ধৃত করে স্টার জানিয়েছে, “এসব দেশের দীর্ঘ মেয়াদী ভ্রমণ পাসধারী, বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে ভ্রমণকারী এবং অন্যান্য কাজে ভ্রমণকারী- সবার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।”

কূটনৈতিক এবং সরকারি পাসপোর্টধারীরা এই নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবেন। তবে ভ্রমণের ক্ষেত্রে তাদেরও মহামারিকালের বিধিনিষেধ মানতে হবে।

সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়া দেশগুলো থেকে মালয়েশিয়ার নাগরিকরা ফিরতে পারবেন। তবে তাদের দেশে ফিরে ১৪ দিন বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। বায়রার সাবেক মহাসচিব মোহাম্মদ রুহুল আমিন স্বপন আজ মঙ্গলবার ইনকিলাবকে বলেন, মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মীদের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। বাংলাদেশি কর্মীরা কঠোর পরিশ্রমি বিধায় দেশটির কোম্পানীগুলোর মালিকরা আমাদের কর্মীদের নিয়োগ দিতে বেশি পছন্দ করেন। বায়রার সাবেক নেতা স্বপন বলেন, দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মতামতের ভিত্তিতে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় তারা সর্তকতা অবলম্বন করছেন। করোনার ভ্যাকসিন দিয়েই বাংলাদেশি কর্মীদের পাঠানোর জন্য মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানান সম্প্রতি বাংলাদেশি মন্ত্রীকে লিখিতভাবে চিঠি দিয়েছেন বলেও বায়রার সাবেক নেতা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, মালয়েশিয়ার সকল প্রকার নিয়ম-নীতি মেনেই বাংলাদেশকে কর্মী প্রেরণের উদ্যোগ নিতে হবে। বিদেশ প্রত্যাশি সকল কর্মীদের দ্রুত করোনা ভ্যাকসিনের আওতায় আনার জন্য বায়রার সাবেক নেতা স্বপন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Md shihabuddin akon ২৮ মে, ২০২১, ১২:৫০ এএম says : 0
আমরা প্রবাসীরা ফেব্রুয়ারি 10 তারিখে আসি কিন্তু এখন পর্যন্ত যেতে পারলাম না মালয়েশিয়ায় এখন যেতে হলে বসের এপ্লাই করতে হবে মাইডাবলপাছ অ্যাপস কিন্তু বস মালয়েশিয়ার রিংগিত চার হাজার পাঁচশত টাকা আগে চাইতেছে বাট এত টাকা কিভাবে দেব এবং 14 দিন কোয়ারান্টাইন থাকতে হবে বিমান টিকেট আপ ডাউন কাটছিলাম কিন্তু আবার নতুন করে টিকিট কাটতে হবে এত টাকা কিভাবে পাব বিপদে গরিবের পাশে কেউ থাকেনা তাই আমার প্রবাসীর পক্ষ থেকে আকুল আবেদন আমরা যাতে সহজ পদ্ধতিতে অল্প খরচে যেতে পারি এমন সুযোগ ব্যবস্থা করা হোক
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন