মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

সিটির প্রথম, নাকি চেলসির দ্বিতীয়

লড়াইটা গার্দিওলা-টুখেলেরও

মো. জাহিদুল ইসলাম | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০২১, ১২:০০ এএম

ক্লাব ফুটবলে সবচেয়ে মর্যাদাসম্পন্ন ট্রফি কোনটি? একবাক্যে সবাই উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কথা বলবেন। সেটি অবশ্য ভুল হবে না, কারণ এই আসরে ইউরোপের বিভিন্ন লিগের সেরা দলগুলো প্রতিযোগিতা করে। সব বড় বড় খেলোয়াড়ই এই আসরে নিজেদের সেরাটা দেবার জন্য উম্মুখ হয়ে থাকেন। এই আসরের চ্যাম্পিয়ন হবার অর্থ হচ্ছে পুরো ইউরোপের সেরা হওয়া। আর কে না জানে যে, বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে প্রতিদ্ব›িদ্বতাপূর্ণ টুর্নামেন্ট এই ইউরোপেই হয়। আজ রাতে ইউরোপ সেরার তালিকায় নিজেদের নাম বাঁধাই করে রাখতে উন্মুখ ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দুই দল। অল ইংলিশ ফাইনালে ম্যানচেস্টার সিটির মুখোমুখি চেলসি, এক মৌসুম পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আবারও দেখল দুই ইংলিশ দলের ফাইনাল।
চেলসি সমর্থকদের চোখের সামনে ভাসবে ২০১১-১২ মৌসুমে অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনায় দিদিয়ের দ্রগবার সেই পেনাল্টির কথা। বায়ার্ন মিউনিখকে হারিয়ে সেবার প্রথমবারের মতো শিরোপার স্বাদ নিয়েছিল নীল জার্সিধারীরা। তারপর আর ফাইনালে ওঠা হয়নি চেলসির। দীর্ঘ ন’বছরের খরা কাটিয়ে আবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে অল বøুজরা। সব মিলিয়ে তৃতীয়বার। টমাস টুখেলের মাস্টারক্লাসে সেমিফাইনালের কোন লেগেই পাত্তা পেল না রিয়াল মাদ্রিদ। দুই লেগ মিলে ৩-১ অগ্রমাগিতায় ফাইনাল নিশ্চিত করেছে তার শীর্ষরা।
অন্যদিকে ঘরোয়া লিগে দুর্দান্ত হলেও ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গার্দিওলার বিপক্ষে অভিযোগ ছিল, তিনি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আসলেই সবকিছু ভজঘট পাকিয়ে ফেলেন। ট্যাকটিক্স নিয়ে বেশি পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে গিয়ে প্রতিবারই তাই হয় কোয়ার্টার না হয় সেমিতে আটকে গেছেন, এমন অভিযোগ ছিল। তবে এবারের সেমিতে পিএসজির সঙ্গে গার্দিওলা সেরকম ভুল করেননি। এবারের লিগে তার পছন্দের একাদশের ওপরেই আস্থা রেখেছেন প্রথম লেগে, দ্বিতীয় লেগে শুধু অভিজ্ঞতা আর ফর্মের জন্য এনেছেন দুইটি বদল। তবে আক্রমণের চার জনকে আর বদলাননি। সেজন্য স্ট্রাইকার ছাড়াই সিটি দুই ম্যাচে চার গোল দিয়েছে। ম্যানসিটির ইতিহাসে এবারই প্রথম সুযোগ এল মর্যাদাপূর্ণ এই আসরের ফাইনালে খেলার।
তবে ঘরোয়া লিগে সাম্প্রতিক সময়ে ম্যানসিটির পারফরমেন্সকে আকাশছোঁয়া বললেও ভুল হবে না। লিগের চূড়ান্ত ফল বিবেচনায় তারা এবারের আসরের চ্যাম্পিয়ন। তাদের ৮৬ পয়েন্টের বিপরীতে ৭৪ পয়েন্ট নিয়ে লিগে রানার্সআপ হয়েছে তাদেরই নগর প্রতিদ্ব›দ্বী ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। গত আসরের চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল ৬৯ পয়েন্ট নিয়ে কোনরকমে তিনে জায়গা করে নিয়েছে। আর এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে সিটির প্রতিপক্ষ চেলসি ৬৭ পয়েন্ট নিয়ে চারে নিজেদের জায়গা ধরে রেখেছে। সেই সঙ্গে আগামীবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আসরের টিকিটও নিশ্চিত করেছে। ১২ পয়েন্টের ব্যবধানে সিটি জিতেছে প্রিমিয়ার লিগ, আর ফাইনালে টটেনহ্যাম হটস্পারকে হারিয়ে লিগ কাপের ট্রফিও ঘরে তুলেছে। এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সাফল্যের অপেক্ষায় তারা।
তবে সিটির এই অজেয় যাত্রার সামনে একটি মাত্র ইংলিশ ক্লাবই বারবার হয়ে দাঁড়িয়েছে প্রতিবন্ধক হিসেবে- সেটি চেলসি। এফএ কাপে দুর্দান্ত যাত্রায় সেমিফাইনালে মুখোমুখি হয় চেলসির। সেখানে ১-০ ব্যবধানে হেরে বিদায় নিতে হয় গার্দিওলার দলকে। এরপর নিজেদের লিগে আবারও মুখোমুখি হয় দল দু’টি। সেই ম্যাচকে ধরা হচ্ছিল চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালের রিহার্সেল হিসেবে। সে ম্যাচেও টুখেলের দলের কাছে ২-১ ব্যবধানে হার নিয়েই মাঠ ছাড়ে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপাধারীরা।
টুখেল দায়িত্ব নেয়ার পর টানা দু’বার হরিয়েছেন গার্দিওলার সিটিকে। তবুও গার্দিওলার কৌশল নিয়ে মুগ্ধতার কথা বলেছেন টুখেল, ‘সবসময়ই গার্দিওলার দলের বিপক্ষে খেলা কঠিন। সে যখন বায়ার্ন মিউনিখের কোচ ছিল, তখন তার বিপক্ষে খেলেছি। এখন খেলছি তার ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে।’ গার্দিওলার কাছ থেকে শেখার আছে অনেক কিছু মন্তব্য করে চেলসি কোচ বলেন, ‘সে যখন বার্সেলোনার কোচ ছিল, তখন বার্সেলোনার ম্যাচ দেখতাম তার ও তার দলের কাছ থেকে ফুটবল সম্পর্কে শেখার জন্য। বছরের পর বছর ধরে কীভাবে আক্রমণ ও রক্ষণ সামলানোর পরিকল্পনা করা যায়, এগুলো শেখার জন্য। সেখানে তিনি ‘সব জেতার মেশিন’ তৈরি করেছিলেন এবং এখন ইংল্যান্ডেও তাই তৈরি করেছেন।’
সিটি কোচও প্রশংসা করতে ছাড়েননি টুখেলের, ‘তিনি (টুখেল) নিঃসন্দেহে একজন উঁচুমানের কোচ। তার বিপক্ষে ম্যাচ জেতা কঠিন। তবে আমরা নিজেদের সর্বোচ্চটা দিয়ে চেষ্টা করবো।’ তবে বড় ম্যাচের আগে এক কোচ আরেক কোচের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হওয়া ফুটবলে এবারই নতুন নয়। অনেকেই একে মনে করে থাকেন মাঠের বাইরের কৌশল হিসেবে। তবে খেলার মাঠে কৌশল কাজে না লাগাতে পারলেতো জয় আসে না। তাই শিরোপাযুদ্ধে মাঠের জমজমাট লড়াইয়েরই অপেক্ষায় গোটা বিশ্ব।

হেড টু হেড
ভেন্যু/আসর ম্যাচ চেলসি সিটি ড্র
স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ৭৩ ২১ ৩৫ ১৭
ইতিহাদে ৭৮ ৪০ ১৬ ২২
এফএ কাপে ৪ ২ ২ ০
কার্লিং কাপে ১ ০ ০ ১
প্রিমিয়ার লিগে ১৪৪ ৫৯ ৪৭ ৩৮
কমিউিনিটি শিল্ডে ২ ০ ২ ০
মোট ম্যাচ ১৫১ ৬১ ৫১ ৩৯
মোট গোল ৪১১ ২১৩ ১৯৮ -


সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচ
তারিখ আসর ফল
৮ মে' ২১ প্রিমিয়ার লিগ সিটি ১-২ চেলসি
১৭ এপ্রিল'২১ এফএ কাপ চেলসি ১-০ সিটি
৩ জানু'২১ প্রিমিয়ার লিগ চেলসি ১-৩ সিটি
২৫ জুন'২০ প্রিমিয়ার লিগ চেলসি ২-১ সিটি
২৩ নভে'১৯ প্রিমিয়ার লিগ সিটি ২-১ চেলসি

শিরোপা
ম্যানসিটি চেলসি

চ্যাম্পি. রানার্স আসর চ্যাম্পি. রানার্স
০ ০ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ১ ১
০ ০ ইউরোপা লিগ ২ ০
৭ ৬ প্রিমিয়ার লিগ ৬ ৪
৬ ৫ এফএ কাপ ৮ ৭
৮ ১ ইএফএল কাপ ৫ ৩

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন