মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

তুরস্ক ও এশিয়াকে যুক্ত করে রাশিয়ার খাল প্রকল্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ জুন, ২০২১, ১২:০২ এএম

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন রাশিয়ার হয়ে তুরস্ক ও মধ্য এশিয়ার মধ্য দিয়ে একটি নৌ-পথ তৈরির পাশাপাশি, উত্তর ককেশাসের মধ্য দিয়ে একটি নতুন খাল ব্যবস্থা গড়ে তোলার বিষয়ে বিবেচনা করছেন। এজন্য তিনি দুবাই ভিত্তিক একটি সংস্থাকে দায়িত্ব দিয়েছেন।

এই ইউরেশিয়া খাল নির্মাণ প্রকল্পটি সর্বশেষ আর্মেনিয়ান-আজারবাইজানীয় লড়াইয়ের ফলে পরিবর্তিত ককেশাসের ভূ-রাজনৈতিক গুরুত্বকে হ্রাস করবে এবং সেই সাথে, এশিয়া ও ইউরোপকে সংযুক্ত করার জন্য চীনের ‘বেল্ট এবং রোড ইনিশিয়েটিভ’র অংশীদার হিসাবে রাশিয়ার ভূমিকা বৃদ্ধি করবে। প্রস্তাবিত নতুন খালটি বিস্তীর্ণ ককেশাসের ভূ-রাজনৈতিক দাবা বোর্ডের এ সর্বশেষ পদক্ষেপ ইতোমধ্যেই ব্যাপক প্রভাব ফেলতে শুরু করেছে। গত ২২ মে প্রায় ৪শ’ মালবাহী জাহাজের মালিক দুবাই-ভিত্তিক পিঅ্যান্ডও লজিস্টিক ইস্তাম্বুল ও মধ্য এশিয়ার মধ্য দিয়ে কৃষ্ণ সাগর এবং ভলগা-ডন খালের মতো ক্যাস্পিয়ান থেকে কাজাখস্তান ও তুর্কমেনিস্তান পর্যন্ত রাশিয়ান অভ্যন্তরীণ নৌপথ ব্যবহার করে মালবাহী জাহাজগুলোর জন্য নতুন একটি নৌপথ খোলার ঘোষণা দেয়।
রাশিয়ান এবং তুর্কি কর্মকর্তারা এ প্রকল্পকে স্বাগত জানিয়েছেন। তবে, আজারবাইজান এবং ইরানসহ এ অঞ্চলের অন্যসব দেশ এখনও প্রকাশ্যে প্রতিক্রিয়া জানায়নি, যদিও প্রত্যেকের তাদের ভূ-রাজনৈতিক ভূমিকা হ্রাস পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ অঞ্চলের পূর্ব-পশ্চিম বাণিজ্য পথ যেটি একসময় আজারবাইজানীয় এবং ইরানের মধ্য দিয়ে বাহিত হ’ত, সেটি এখন উত্তর দিকে স্থানান্তরিত হতে পারে।

এই নতুন নৌপথটি তুরস্ক ও মধ্য এশিয়ার মধ্যে এবং এভাবে চীন ও ইউরোপের মধ্যে কনটেইনার চলাচলকে উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি করবে বলে আশা করা হচ্ছে। একই সাথে, পিএন্ডও মস্কোর ভল্গা-ডন খাল পুনঃখনন করার ওপরও জোর দিচ্ছে, যাতে খালটি দিয়ে আরও বড় জাহাজ চলাচল করতে পারে। প্রতিষ্ঠানটি ক্যাস্পিয়ান এবং কৃষ্ণ সাগরের মধ্যে একটি নতুন খাল নির্মাণ সম্পর্কেও ক্রেমলিনকে উৎসাহ দিচ্ছে।

যদিও নতুন রুটটি বিদ্যমান নৌপথটিকে বাইপাস করবে, তবে আজারবাইজান বা ইরান হয়ে এ আন্তর্জাতিক পূর্ব-পশ্চিম বাণিজ্য রুটটিকে সমগ্র রাশিয়ান ভূখণ্ডে ধরে রাখতে সহায়তা করবে। গত কয়েক মাস ধরে ক্রেমলিনের ঘনিষ্ঠ বিশ্লেষকরা উত্তর ককেশাস জুড়ে নতুন একটি খাল নির্মাণের বিষয়ে কথা বলতে শুরু করেছেন। সুতরাং একটি নতুন মানবসৃষ্ট জলপথ পুতিনের জন্য অর্থনৈতিক ও ভূ-রাজনৈতিক উভয় অগ্রগতির প্রতিনিধিত্ব করবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নতুন খালটি তৈরিতে ১৮ বিলিয়ন ডলার ব্যয় হতে পারে। তবে, ইউরেশিয়া খালটি দুটি সমুদ্রের মধ্যে জাহাজের চলাচলের দূরত্বকে এক হাজার কিলোমিটার থেকে হ্রাস করে ৬শ’ ৮০ থেকে ৮শ’ ৫০ কিলোমিটারে কমিয়ে আনবে। একটি নতুন, বৃহত্তর খাল মস্কোকে আরো দ্রুত এ ধরনের মালবাহী জাহাজ পরিচালনার সুযোগ দেবে এবং প্রতিরক্ষা অগ্রাধিকার হিসাবে ক্রেমলিন প্রকল্পটির বিশাল প্রাক্কলিত ব্যয়ের বিষয়ে আপত্তি অগ্রাহ্য করতে পারে।

রাশিয়া ক্রমবর্ধমানভাবে চীনা, আজারবাইজানীয় এবং ইরানের রাশিয়াকে অতিক্রম করে পূর্ব-পশ্চিম পথে বাণিজ্য পরিচালনার প্রচেষ্টা সম্পর্কে উদ্বিগ্ন। এসব দেশের প্রচেষ্টা সুনাম অর্জন করেছে। কারণ তারা মূলত ভারী পণ্যবাহী জাহাজগুলোকে মস্কোর গুরুত্ব দেয়ার তুলনায় ক্রমবর্ধমানভাবে আরও বেশি মালবাহী জাহাজ চলাচলের ওপর গুরুত্বপূর্ণ দিচ্ছে। তবে, নতুন করে একটি খাল খোলার মাধ্যমে মস্কো আন্তঃইউরেশীয় বাণিজ্যের প্রাথমিক পথে পরিণত হবে।

ইতোমধ্যে, ইরান ক্যাস্পিয়ান এবং পারস্য উপসাগরের মধ্যে খাল তৈরি করতে রাশিয়ার সাথে কাজ করার বিষয়ে পুনরায় আলোচনা শুরু করেছে। প্রকল্পটি যদি উত্তর ককেশাস জুড়ে রাশিয়ান কোনও পূর্ব-পশ্চিম খালের সাথে যুক্ত হয়, তবে মস্কোর কাছে দু’দেশের মধ্যকার সম্পর্কটি আরও বেশি আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে। সূত্র : দ্য জেম্সটাউন ফাউন্ডেশন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
মিরাজ আলী ৩ জুন, ২০২১, ৪:৩৪ এএম says : 0
গ্রেট পুতিন, খুবই ভালো উদ্যোগ। এতে একটি চ্যানেল গঠিত হবে।
Total Reply(0)
নূরুজ্জামান নূর ৩ জুন, ২০২১, ৪:৩৫ এএম says : 0
রাশিয়া ধীরে ধীরে নিজেদের শক্তি বৃদ্ধি করছে। আমেরিকাকে কাউন্টার দেয়ার জন্য এই ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ ভালো।
Total Reply(0)
মোঃ নাজমুল ইসলাম ৩ জুন, ২০২১, ৪:৩৫ এএম says : 0
তুরস্কের সাথে ভালো সম্পর্ক করে এশিয়ায় যদি একটা ভালো জোট রাশিয়া গঠন করতে পারে সেটা এই অঞ্চলের মানুষের জন্য ভালো হবে।
Total Reply(0)
নাজনীন জাহান ৩ জুন, ২০২১, ৪:৩৬ এএম says : 0
পুতিন অসাধারণ একটি উদ্যোগ নিয়েছে, সফল কামনা করছি।
Total Reply(0)
রোদেলা সকাল ৩ জুন, ২০২১, ৪:৩৬ এএম says : 0
খুবই ভালো উদ্যোগ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন