সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮, ২২ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বাংলাদেশকে টিকা দিতে রাজী হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ জুন, ২০২১, ১২:০১ এএম

করোনাটিকা নিয়ে সঙ্কটে থাকা বাংলাদেশকে নিজেদের মজুত থেকে করোনাভাইরাসের টিকা দিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জো বাইডেন সরকার রাজি হয়েছে। গতকাল রোববার এ তথ্য জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। তবে কবে নাগাদ, কী পরিমাণ টিকা আসবে, তা স্পষ্ট করেননি। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি বলেন, এখন যুক্তরাষ্ট্র বলছে, বাংলাদেশকে দেবে। সঠিক পরিমাণ এখনো জানি না।
বাংলাদেশ অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা কোভিশিল্ড দিয়ে গত ফেব্রæয়ারিতে গণটিকাদান শুরু করলেও দুই চালানের পর আর দিতে পারেনি এই টিকা উৎপাদনকারী ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট। ভারতের মোদী সরকার বাংংলাদেশে টিকা রফতানিতে সেরামে ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়। ফলে সরকার নতুন করে টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া বন্ধ করে দেয়। যারা প্রথম ডোজ নিয়েছেন, তাদের ১৪ লাখকে দ্বিতীয় ডোজও দেওয়া যায়নি।
এই পরিস্থিতিতে সরকার চীন ও রুশ টিকা আনার তোড়জোড় শুরু করলেও যারা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন, তাদের জন্য ওই টিকার বিকল্প নেই।
ভারত রপ্তানির নিষেধাজ্ঞা না তোলায় যুক্তরাষ্ট্রের কাছে থাকা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ৬ কোটি অতিরিক্ত ডোজ থেকে কিছু টিকা পাঠাতে দেশটির প্রতি আহ্বান জানিয়ে আসছিল বাংলাদেশ।
চলমান ক‚টনৈতিক ও প্রবাসী বাংলাদেশিদের তৎপরতায় এই কাজে সফল হওয়ার খবর জানিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, আমরা কোভিডের মধ্যে সাকসেস হওয়ার পরে আরেক ঝামেলা! লোক বেশ কম মরছে বলে তারা আমাদের পাত্তা দেয় না। আমরা বেশ কষ্ট করে পাত্তায় আসছি।
সুনির্দিষ্ট দিনক্ষণ না জানালেও ‘খুব শিগগির’ ওই টিকা পাওয়ার আশা প্রকাশ করে ড. মোমেন বলেন, আমাদের তো দরকার অনেক। অন্য দেশের মতো না যে, ২০ হাজার, এক লাখ হলে হয়ে যাবে। আমার ১৬৫ মিলিয়ন লোক। আমার অনেক টিকা লাগে। ১৩০ মিলিয়নকে দিলেও ২৬০ মিলিয়ন লাগবে। এটা বিশাল বাজার।
এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, যুক্তরাষ্ট্র থেকে করোনাভাইরাস মোকাবেলায় চিকিৎসা সরঞ্জামের একটি চালান সোমবার বাংলাদেশে আসবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন