শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

অ্যামাজনের মাধ্যমে পাকিস্তানে ১০ লাখ কর্মসংস্থানের সুযোগ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ জুন, ২০২১, ১২:০১ এএম

অ্যামাজনের বিক্রেতাদের তালিকায় পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্তি ই-বাণিজ্য খাতে ১০ লাখ নতুন কর্মসংস্থান তৈরি করা এবং রফতানি রফতানি খাতে ১০০ কোটি ডলার যুক্ত করার সুযোগ তৈরি করেছে।ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (স্মেদা) চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার হাশিম রাজা সোমবার এই তথ্য জানিয়েছেন।

পাকিস্তানের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোগের (এসএমই) জন্য অ্যামাজন কর্তৃক নির্মিত সুযোগগুলি সম্পর্কে মন্তব্য করে হাশিম রাজা বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সাম্প্রতিক অনুমোদনের ফলে পাকিস্তানকে অ্যামাজনের বিক্রেতাদের তালিকায় যুক্ত করায় স্থানীয় এসএমইদের জন্য নতুন সুযোগ উন্মুক্ত হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের এসএমইগুলিকে অ্যামাজন দ্বারা প্রদত্ত নতুন সুযোগগুলির পুরোপুরি সদ্ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত করার জন্য একটি প্রোগ্রাম তৈরি করেছি।’। এসএমইগুলির মধ্যে অ্যামাজনের পদ্ধতি এবং প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে ই-কমার্স খাত এবং সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলির শীর্ষস্থানীয় বিশেষজ্ঞদের সহযোগিতায় স্মেদা সারাদেশে একাধিক প্রশিক্ষণ কর্মসূচি গ্রহণ করবে। এই ঘোষণা দিয়ে তিনি আরও বলেন, এই কর্মসূচির আওতায় এসএমইগুলিকে অ্যামাজন নির্ধারিত মান অনুযায়ী তাদের পণ্যের মান ও প্যাকেজিং উন্নত করার প্রশিক্ষণও দেয়া হবে।
স্মেদা সিইও ঘোষণা করেন যে, এই সিরিজের প্রথম প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামটি একটি ওয়েবিনার আকারে ২০২১ সালের ১৪ জুন অনুষ্ঠিত হবে এবং এতে ৬০০ জন এসএমই অংশ নেবে। তিনি আশ্বস্ত করেন যে, সরকারী ও বেসরকারী খাতের সকল সংস্থা ঘনিষ্ঠভাবে সহযোগিতা করে কাজ করলে ই-বাণিজ্য খাতের ১০ লাখ কর্মসংস্থানের লক্ষ্যমাত্রা ও রফতানিতে ১০০ কোটি ডলার বৃদ্ধির আশা পূরণ হবে। তিনি জোর দিয়ে বলেন যে, স্মেদা প্রদেশ ও কেন্দ্রীয় স্তরে পাকিস্তানের বাণিজ্য উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (টিডিএপি) এবং অন্যান্য সংশ্লিষ্ট বিভাগের সাথে কার্যকরী সংহতি গড়ে তুলেছে। তিনি অ্যামাজনের প্রয়োজনীয়তার সাথে সামঞ্জস্য রেখে ই-বাণিজ্য প্রচারের জন্য স্মেদার প্রচেষ্টাতে ট্রেড সংস্থাগুলি এবং ই-কমার্স সংস্থাগুলিকে সহযোগিতা করার জন্য আবেদন জানান। সূত্র : এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
টুটুল ৯ জুন, ২০২১, ৩:৩৪ এএম says : 0
এসএমইগুলির মধ্যে অ্যামাজনের পদ্ধতি এবং প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে ই-কমার্স খাত এবং সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলির শীর্ষস্থানীয় বিশেষজ্ঞদের সহযোগিতায় বাংলাদেশেও একাধিক প্রশিক্ষণ কর্মসূচি গ্রহণ করা উচিত।
Total Reply(0)
খোরশেদ আলম ৯ জুন, ২০২১, ৯:০৮ এএম says : 0
আমরা এই সুযোগটাকে কাজে লাগাতে পারি
Total Reply(0)
জিন্নাতারা ৯ জুন, ২০২১, ৯:০৮ এএম says : 0
বাংলাদেশের ই কমার্স ধীরে ধীরে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠছে
Total Reply(0)
তানভীর আলম ৯ জুন, ২০২১, ৯:০৯ এএম says : 0
ই-কমার্স এর মাধ্যমে আমাদের দেশীয় পণ্য গুলোকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়া সম্ভব।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন