ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৮ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

১৫০ বছর পর্যন্ত বাঁচবে মানুষ!

রক্তের তেজেই যৌবন ধরে রাখার চাবিকাঠি গবেষকের দাবিতে চাঞ্চল্য

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ জুন, ২০২১, ১২:০২ এএম

জীবন থাকলেও পৃথিবীতে অমর নয়। জীবন মানেই মৃত্যু নিশ্চিত। আর মৃত্যু নিশ্চিত বলেই অমরত্ব সম্ভব নয়। কিন্তু ১৫০ বছর পর্যন্ত বাঁচতে পারেন মানুষ। সম্প্রতি একটি গবেষণায় এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে।
সুস্থ ব্যক্তিরা গড়ে ৮০ বছর পর্যন্ত বাঁচেন। অনেকে আবার শতায়ু হন। বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘদিন বেঁচে ছিলেন ফ্রাঞ্চের জিয়ানি কালমেন্ট কিনি নামে এক মহিলা। কিনি ১৮৭৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন এবং ১২২ বছর পর্যন্ত তিনি বেঁচে ছিলেন।
কিন্তু ১৫০ বছর পর্যন্ত কী বেঁচে থাকা সম্ভব? এর আগে একটি গবেষণায় জানা গিয়েছিল, মানুষ ১৪০ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে। কিন্তু সম্প্রতি নেচার কমিউনিকেশন সায়েন্স জার্নালে একটি গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে।
গবেষণা প্রতিবেদনে গবেষকরা বলেছেন, রক্তের তেজের মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে যৌবন ধরে রাখার চাবিকাঠি। এই গবেষণার জন্য ৮৫ ঊর্ধ্ব ৭০ হাজার মানুষের উপর গবেষণা চালানো হয়। তাদের শরীরে রক্তকোষের পরিমাণ কমা বাড়ার উপর শরীরে কী কী পরিবর্তন আসছে, সেই দিকেও রাখা হয়েছিল তীক্ষè নজর।
প্রশ্ন উঠছে, তবে কী রক্ত বদল করলে বার্ধক্যের ছাপ মুছে ফেলা সম্ভব হবে? এখনও গবেষণায় এই প্রশ্নের সঠিক জবাব পাওয়া যায়নি। গবেষকরা জানাচ্ছেন, শরীরে প্রতিটি কোষ, অঙ্গ, প্রত্যঙ্গ সেই সময় পর্যন্ত সক্রিয় থাকে যতক্ষণ তারা পুষ্টি পায়।
গবেষণায় বলা হয়, যখন রক্তনালীতে সমস্যা হয় তখন রক্ত প্রবাহ সঠিক গতিতে হয়না। আর সে সময়ই জাপটে ধরে বার্ধক্য। এক গবেষক টিমোথি ভি পাইরকভ জানান, কোনোভাবে যদি বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে নতুন কোষ প্রতিস্থাপন করা গেলে, সেক্ষেত্রে বয়স ধরে রাখা সম্ভব।
যদিও রক্তকোষের যৌবন ধরে রাখা অত্যন্ত কঠিন। এক্ষেত্রে গবেষকরা যদি অ্যান্টি অ্যাজিং থেরাপি বার করতে সক্ষম হয়, সেক্ষেত্রে বার্ধক্য জয় করা অনেকাংশে সম্ভব হবে বলে মনে করছেন গবেষকরা। সূত্র : দ্য গার্ডিয়ান, ডেইলি মেইল, টাইমস অব ইন্ডিয়া।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
সোয়েব আহমেদ ১৫ জুন, ২০২১, ৫:৩৭ এএম says : 0
মানুষ মরণশীল, একদিন মরতেই হবে।
Total Reply(0)
নূরুজ্জামান নূর ১৫ জুন, ২০২১, ৫:৩৭ এএম says : 0
মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচতে পৃথিবীতে সব জাতিই চেষ্টা করেছে কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। এদরও হবে না।
Total Reply(0)
নোমান মাহমুদ ১৫ জুন, ২০২১, ৫:৩৮ এএম says : 0
কিন্তু দিন দিন তো মানুষের হায়াত কমে যাচ্ছে এবং হাদিসেও এমনটা বলা হয়েছে।
Total Reply(0)
ক্ষণিকের মুসাফির ১৫ জুন, ২০২১, ৫:৩৯ এএম says : 0
যখন মৃত্যুর ডাক আসবে তখন কোনো কিছুই আর আটকাতে পারবে না।
Total Reply(0)
Sabbir Ahmed ১৫ জুন, ২০২১, ৯:৩৯ এএম says : 0
মহান আল্লাহ তায়ালা চাইলে সবই সম্ভব
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন