রোববার, ০১ আগস্ট ২০২১, ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮, ২১ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সংসদীয় কমিটির আপত্তির নিন্দা আইনজীবীদের

মুক্তিযোদ্ধাদের গার্ড অব অনারে নারী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ জুন, ২০২১, ১২:০১ এএম

মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ‘গার্ড অব অনার’ প্রদানে নারী উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের (ইউএনও) বিকল্প খোঁজার সুপারিশ করেছিল সংসদীয় কমিটি। এ সুপারিশের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীরা। গতকাল সোমবার সুপ্রিম কোর্ট বারের আইনজীবীদের পক্ষে অ্যাডভোকেট এএম জামিউল হক ফয়সাল স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ প্রতিবাদ জানানো হয়। বিবৃতিতে আইনজীবীরা বলেন, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীরা আইন ও মানুষের অধিকার আদায়ের কর্মী। দেশের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের কল্যাণে জানতে পারি, গত ১৩ জুন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ‘গার্ড অব অনার’ দেয়ার ক্ষেত্রে নারী কর্মকর্তাদের বিষয়ে আপত্তি তোলে এবং এ সংক্রান্ত সুপারিশ করে। কিন্তু আমরা গভীর উৎকণ্ঠার সঙ্গে জানাতে চাই, নারীদের অবমাননা করে এ ধরনের সুপারিশ আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পরিপন্থি ও আমাদের পবিত্র সংবিধানের লঙ্ঘনের শামিল। জাতীয় সংসদের কয়েকজন সদস্যের নারীর প্রতি এমন অবমাননাকর সিদ্ধান্ত ও সুপারিশের বিষয়ে আমরা তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাচ্ছি। অবিলম্বে এ ধরনের কার্যক্রম থেকে বিরত থাকতে সংশ্লিষ্টদের আহবান জানাচ্ছি।

বিবৃতিদাতাদের মধ্যে রয়েছেন, অ্যাডভোকেট জেড আই খান পান্না, ব্যারিস্টার মো. আব্দুল হালিম, আইনুন্নাহার সিদ্দিকা লিপি, ব্যারিস্টার অনীক আর হক, অ্যাডভোকেট শায়লা ইয়াসমিন, ব্যারিস্টার শারমিন আক্তার, অ্যাডভোকেট রোহানী সিদ্দিকা, অ্যাডভোকেট মেহবুবা আক্তার জুঁই, অ্যাডভোকেট লাবনী আক্তার, অ্যাডভোকেট এএম জামিউল হক ফয়সাল, অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম সুমন, ব্যারিস্টার মেহেদী হাসান, সৈয়দ আনিছুর রহমান প্রমুখ।
প্রসঙ্গত : গত ১৩ জুন জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বেঠকে ওই সুপারিশ করা হয়। পাশাপাশি গার্ড অব অনার দিনের বেলায় আয়োজনেরও সুপারিশ করা হয়। এছাড়া চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে জিয়া শিশুপার্কের স্থানে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের সুপারিশ করে কমিটি। কমিটির সভাপতি শাজাহান খানের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, রাজি উদ্দিন আহমেদ, রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম, কাজী ফিরোজ রশীদ, ওয়ারেসাত হোসেন বেলাল এবং মোছলেম উদ্দিন আহমদ অংশ নেন। পরে শাজাহান খান বলেন, নারীরা তো জানাজায় থাকতে পারেন না। তাই নারী ইউএনও গার্ড অব অনার দিতে গেলে স্থানীয় পর্যায়ে অনেকে প্রশ্ন তোলেন। এ জন্য এ বিষয়ে বৈঠকে একটি প্রস্তাব এসেছে। নারীর বিকল্প একজন পুরুষকে দিয়ে গার্ড অব অনার দেয়ার বিষয়টি এসেছে। আমরা মন্ত্রণালয়কে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করেছি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন