ঢাকা রোববার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৪ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

৮৬০ টাকার খাজনা ১৬শ’ টাকা আদায়

পটিয়া ভূমি অফিসের অনলাইন সেবা

পটিয়া (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০২১, ১২:০১ এএম

পটিয়া উপজেলা ভূমি অফিসে অনলাইন সেবা দিতে গিয়ে ভূমি কর্মকর্তা সেবাপ্রার্থী থেকে গলাকাটা টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আবু ছিদ্দিক নামে একজন সেবাপ্রার্থী থেকে ৮৬০ টাকা খাজনা (ভূমি উন্নয়ন কর) আদায় করে কম্পিউটারের বাবদ হাতিয়ে নিয়েছে ৭৪০ টাকা।
জানা যায়, পটিয়া পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের মুন্সেফ বাজারের দক্ষিণ পাশে সরদার পাড়ার অধিবাসী মৃত নুর আহমদের পুত্র আবু ছিদ্দিক গত ১৩ জুন পটিয়া সদর ইউনিয়ন ভূমি অফিসে পুকুর ও বাড়ির ১৪২৭ ও ১৪২৮ বাংলার ২ সনের খাজনা আদায় করতে যায়। ভূমি অফিসের খাজনা আদায়কারী উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা এ কে এম জাহেদ হোসেন খাজনার (ভূমি উন্নয়ন কর) রশিদ তৈরি করে ১৮০০ টাকা দিতে বলেন। আবু ছিদ্দিক ১৮০০ টাকা দিয়ে রশিদ বুঝে নেন। রশিদ পড়ে দেখেন সেখানে লেখা আছে ৮৬০ টাকা। খাজনা আদায়কারী আরোও ৯৪০ টাকা বেশি নিয়েছে। অতিরিক্ত ৯৪০ টাকা কেন নেয়া হয়েছে আবু ছিদ্দিক জানতে চাইলে, কর্মকর্তা জাহেদ বলেন, ভূমি মন্ত্রানালয় অনলাইন সেবা দিতে বললেও কম্পিউটারম্যান রাখেনি। তাই কম্পিউটার খরচ বাবদ এ টাকা নেয়া হয়েছে।
বেশি টাকা রাখা হয়েছে, আমি গরীব মানুষ, এটা জুলুম হচ্ছে আবু ছিদ্দিক এমন কথা বললে, কর্মকর্তা জাহেদ ৯৪০ টাকা থেকে ২০০ টাকা ফেরত দিয়ে কম্পিউটার খরচ বাবদ ৭৪০ টাকা অতিরিক্ত রাখেন। এভাবে কম্পিউটার খরচ বাবদ অফিসের মাসিক আয় প্রায় ২ লাখ টাকা। দীর্ঘদিন ধরে পটিয়া সদর ভূমি অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিরুদ্ধে খাজনা আদায় নামজারিসহ ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন কাজে লোকজন থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায় ও হয়রানির অভিযোগ রয়েছে। এ ব্যাপারে কঠোর পদক্ষেপ নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে ভুক্তভোগীরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
A.K.M. Jahed Hossen ১৬ জুন, ২০২১, ৫:৩২ পিএম says : 0
সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের জন্য ডাটা এন্ট্রি করতে ছবি ও এন আইডি, মোবাইল নাম্বার দিতে বলায় অনেকে এ ধরনের অভিযোগ করতেছেন। আসলে বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন