শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

শর্ত লঙ্ঘন করে মিডওয়াইফারি পদে নিয়োগ

হাইকোর্টের রুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ জুন, ২০২১, ১২:০৮ এএম

নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতরের অধীনে মিডওয়াইফ পদে শর্ত লঙ্ঘন করে নিয়োগপ্রাপ্তদের নিয়োগ কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না-এই মর্মে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। সেই সঙ্গে রিট আবেদনকারীদের শূন্যপদে কেন নিয়োগ দেয়া হবে না-রুলে সেটিও জানতে চাওয়া হয়েছে। নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতরের মহাপরিচালকে এ সংক্রান্ত জবাব আদালতে দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
৭৭ চাকরিপ্রার্থীর দায়ের করা রিট আবেদনের শুনানি মঙ্গলবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম এবং বিচারপতি সরদার মো. রাশেদ জাহাঙ্গীরের ডিভিশন বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। গতকাল বুধবার বিষয়টি সাংবাদিকদের অবহিত করেন রিটকারীদের কৌঁসুলি সিদ্দিকউল্লাহ মিয়া। সরকারপক্ষে শুনানিতে অংশ নেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল অরবিন্দু কুমার রায়। রিটে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব, নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতরের মহাপরিচালক ও পিএসসির চেয়ারম্যান, এনটিআরসির চেয়ারম্যানসহ পাঁচ জনকে বিবাদী করা হয়।
মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া আরও জানান, ২০১৯ সালের ১২ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ কর্ম কমিশন (পিএসসি) স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীন স্বাস্থ্য ও সেবা বিভাগের নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদফতর ১৮৪৭ মিডওয়াইফ শূন্যপদে নিয়োগের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।
ওই মিডওয়াফ পদে আবেদনের ন্যূনতম শিক্ষাগ যোগ্যতা ছিল-কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হতে মিডওয়াইফারি বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি বা কোনো স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান হতে ডিপ্লোমা-ইন-মিডওয়াইফারি সার্টিফিকেট এবং বাংলাদেশ নার্সিং কাউন্সিল কর্তৃক নিবন্ধিত হতে হবে।
কিন্তু অনেক চাকরি প্রার্থীর ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতার শর্তাদি লঙ্ঘন করে মিডওয়াফ পদে আবেদন করে ও বিগত ২০ মে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক মিওয়াফ পদে ১৪০১ জন মিডওয়াফ নিয়োগ প্রদান করা হয়। কিন্তু রিট আবেদন কারীদের সব যোগ্যতা এবং ৪৪৬টি পদ শূন্য থাকলেও তাদের নিয়োগের জন্য বিবেচনা করা হয়নি। তাই ৭৭ চাকরিপ্রার্থী সংক্ষুব্ধ হয়ে এ রিট করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন