সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮, ২২ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

নির্বাচনের নামে তামাশা বন্ধ করতে হবে- ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ জুন, ২০২১, ৮:৩৫ পিএম

বরিশাল সদর উপজেলার জাগুয়া ইউনিয়নের ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মুফতী হেদায়েতুল্লাহ আজাদীসহ নেতাকর্মীদের উপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদ ও যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান।

আজ এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে সরকার অনিয়ম করলে গ্রাম থেকে সরকার পতন আন্দোলন শুরু করা হবে। নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত না করে সারাদেশে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের শিডিউল ঘোষণা করেছে। এখন সরকার দলীয় প্রার্থীর হামলায় ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থীসহ ৮ জন আহত হয়েছে। বুধবার রাতে ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের খয়েরদি গ্রামে প্রচার-প্রচারণার সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও তার অনুসারীরা হামলা চালায়। এতে আহত হন ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী মুফতী হেদায়াতুল্লাহ খান আজাদী, কর্মী সাইদুল ইসলাম, রাকিব মাহমুদ, সজল তালুকদার এবং শরীয়তুল্লাহসহ আরো অনেকে। আহতরা বরিশাল শের ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নেতৃদ্বয় বলেন, জাগুয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের খয়েরদি গ্রামে গণসংযোগ শেষে ফেরার সময় আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী দিদারুল আলম শাহীন ১৫ থেকে ২০টি মোটর সাইকেলযোগে ঘটনাস্থলে এসে হাতপাখার প্রার্থীর উপর হামলা চালায়। এসময় তাদের হাতে হকিস্টিক, লাঠি, ছুরি, রাম দা এবং ক্রিকেট স্ট্যাম্প ছিলো। তারা আমাদের কর্মীদের পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত করেছে। যার মধ্যে কর্মী সাইদুল ইসলামের অবস্থা গুরুত্বর। তার মাথায়, বুকে ও শরীরের অন্যান্য অংশে আঘাত করা হয়েছে। বাকীদের অবস্থাও গুরুতর।

নেতৃদ্বয় বলেন, সারাদেশে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য করুন। না হয় নির্বাচনের নামে তামাশা বন্ধ করে প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে সরকারের পছন্দ চেয়ারম্যানের তালিকা ঘোষণা করুন। জনগণের সাথে তামাশা বন্ধ করুন, নির্বাচনের নামে প্রহসনের কোন মানে হয় না। এদিকে, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান বলেছেন, নির্বাচন নিয়ে সাধারণ মানুষের মনে কোন আগ্রহ নেই। জনগণের মনে একটাই শঙ্কা তারা তাদের নিজের ভোট নিজে দিতে পারবে কিনা। সাধারণ মানুষের নির্বাচনী উৎসব ‘নির্বাচনী ব্যবস্থাকে’ ধ্বংস করে দিয়েছে সরকার। জনগণ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারলে সারাদেশে হাতপাখা বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে, ইনশাআল্লাহ।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সারাদিন গাজীপুর জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার কামালপুর, বক্তারপুর ও জাঙ্গালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে হাতপাখার চেয়ারম্যান প্রার্থীদের পক্ষে গণসংযোগকালে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় হাতপাখার পক্ষে ব্যাপক জনসমর্থন লক্ষ্য করা যায়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন