ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৮ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

আবু ত্ব-হাকে খুঁজে বের করার দাবি

মদ-জুয়া-ক্লাব নিয়ে উত্তপ্ত সংসদ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ জুন, ২০২১, ১২:০২ এএম

রাজধানীর বিভিন্ন ক্লাব, মদ ও জুয়া নিয়ে সংসদে উত্তপ্ত আলোচনা হয়েছে। চিত্রনায়িকা পরীমনির ঘটনার সূত্র ধরে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু পয়েন্ট অব অর্ডারে আলোচনার সূত্রপাত করেন। এরপর আওয়ামী লীগ-বিএনপিসহ অন্য দলের এমপিরা এ নিয়ে আলোচনা করেন। এ সময় মদের অনুমোদন নিয়ে পরস্পরের ওপর দোষারোপ করা হয়। এ আলোচনায় কিছুক্ষণের জন্য সংসদ সরব হয়ে ওঠে। এ সময় জাতীয় পার্টির সদস্য বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপ মশিউর রহমান রংপুরের ইসলামিক বক্তা আবু ত্ব-হা মোহাম্মদ আদনানকে খুঁজে বের করার দাবি জানান।

গতকাল বৃহস্পতিবার কিছু সময়ের জন্য উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সংসদ। এ আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের পাশাপাশি বিরোধী দলের সদস্যরা মদ ও জুয়ার বিস্তারে একে অপরকে দোষারোপ করেন। তারা রাজধানীর বিভিন্ন ক্লাবের মদ-জুয়ার আসরের কঠোর সমালোচনা করেন। অভিজাত এলাকায় ডিজে পার্টি বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে বক্তব্যের সুযোগ নিয়ে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু আলোচনার সূত্রপাত করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এই আলোচনায় অংশ নেন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, বিএনপির হারুনুর রশীদ, তরিকত ফেডারেশনের সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী এবং বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গা।

আলোচনায় অংশ নিয়ে শেখ ফজলুল করিম সেলিম বাংলাদেশে মদ ও জুয়ার লাইসেন্স দেয়ার জন্য বিএনপিকে দায়ী করেন। তিনি বলেন, বোট ক্লাবসহ সব ধরনের ক্লাব বঙ্গবন্ধু বন্ধ করে দিয়েছিলেন। জিয়াউর রহমান আবার চালু করেছিল। যারা অপরাধের শুরু করেছে, তাদের আগে বিচার করা উচিত। ওখান থেকে ধরতে হবে।

এ বিষয়ে বিএনপির মো. হারুনুর রশীদ বলেন, আমাদের বিরোধী দলের একজন সংসদ সদস্য একটি বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেছেন। কিন্তু সিনিয়র এক সদস্য (শেখ সেলিম) কোথায় চলে গেলেন? বাংলাদেশে অনেক বিদেশি থাকেন। এছাড়া অন্য ধর্মের মানুষদের জন্য, ডোমদের জন্য মদের বৈধতা আছে। কোনো মুসলমানের জন্য আইনে অনুমতি নেই। জিয়াউর রহমান যদি মুসলমানদের মদের লাইসেন্স দিয়ে থাকেন যদি প্রমাণ করতে পারেন আমি সদস্য পদ ছেড়ে দেবো। তিনি বলেন, আমি চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলছি। এই সব ক্লাবে মদের ব্যবসার সঙ্গে সরকারি লোক জড়িত। আমি চ্যালেঞ্জ করছি। পুলিশ এসব জায়গা থেকে টাকা নেয়। প্রধানমন্ত্রী কোনো দলের নয়, উনি রাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী। এসব খুঁজে দেখা হোক।

এমপি হারুনের বক্তব্যের সময় হৈ চৈ শুরু করেন সরকারি দলের সদস্যরা। এ সময় শেখ সেলিম আবারো ফ্লোর নেন। তিনি বলেন, লাকী খানের ঝাঁকি নাচের কথা কী ভুলে গেলেন? হিযবুল বাহার। জিয়াউর রহমান এগুলো করেছিল। বর্তমান সরকার কোনো মুসলমানকে মদের পারমিশন দেয়নি। বন্ধ করতে গেলে আপনারাই (বিএনপি) তো চিল্লাচিল্লি করবেন। বলবেন, ফরেনারদের পারমিশন লাগবে।

এর আগে আলোচনার সূত্রপাত করে সাবেক প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, কয়েক দিন যাবত উত্তরা বোট ক্লাব নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। কে করল এই ক্লাব? এই ক্লাবের সদস্য কারা? শুনেছি ৫০ থেকে ৬০ লাখ টাকা দিয়ে এই ক্লাবের সদস্য হতে হয়। এত টাকা দিয়ে কারা সদস্য হয়? আমরা তো ভাবতেই পারি না। সারাজীবন এত ইনকামও করি নাই। তিনি আরো বলেন, রাজধানীর বিভিন্ন ক্লাবে মদ খাওয়া হয়। জুয়া খেলা হয়। বাংলাদেশে মদ খেতে হলে লাইসেন্স লাগে। সেখানে গ্যালন গ্যালন মদ বিক্রি হয়। লাইসেন্স নিয়ে খেতে হলে এত মদ তো বিক্রি হওয়ার কথা নয়। সরকারি কর্মকর্তারা এখানে কিভাবে সদস্য হয়? এত টাকা কোথা থেকে আসে?

অভিজাত এলাকায় ডিজে পার্টি বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে এই সংসদ সদস্য বলেন, রাজধানীর গুলশান-বারিধারা এলাকায় ডিজে পার্টি হয়। সেখানে ড্যান্স হয়। মদ খাওয়া হয়। এসব আমাদের আইনে নেই, সংস্কৃতিতে নেই, ধর্মে নেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বলব, আপনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে নির্দেশ দেন কেন এসব হচ্ছে? কেন বন্ধ করা হবে না? ওইসব ক্লাবের সদস্য কারা হয়? বোট ক্লাবের জায়গার একজন মালিক আছে। তিনি যেতেও পারেন না। এসব দেখতে হবে।

তরিকত ফেডারেশনের নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে বলেন, হারুন সাহেবের সদস্যপদ আজই ছেড়ে দেয়া উচিত। উনি বললেন, জিয়াউর রহমান মুসলমানদের মদ খাওয়ার পারমিশন দেননি। উনি দেখাক, আইনে কোথায় বলা আছে মুসলমানরা মদ খেতে পারবেন না। আইন এখানে এনে দেখাক। পদ ছেড়ে দিক।

পরে জাতীয় পার্টির সদস্য বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপ মশিউর রহমান বলেন, এখানে রাষ্ট্রীয় কিছু বিষয় আছে। বঙ্গবন্ধু লাইসেন্স দেননি। ২১ বছরে আইনকে মিসইউজ করে এটা করা হয়েছে। বিদেশিদের অ্যারেঞ্জমেন্টের জন্য এটা করেছে। ক্লাবগুলোতে একজন ডাক্তার দিয়ে সার্টিফিকেট নিয়ে নেয়, দৈনিক মদ খেতে হবে। তারপর লাইসেন্স নেয়া হয়। বিএনপি এই লাইসেন্স দিয়েছিল। এখন কোনো মুসলমান যদি মদ খায় সেখানে সরকারের কিছু করার নেই।

এ সময় নিখোঁজ রংপুরের ইসলামিক বক্তা আবু ত্ব-হা মোহাম্মদ আদনানকে দ্রæত খুঁজে বের করার দাবি জানান বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপ।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
Md Khalid ১৮ জুন, ২০২১, ৩:২৮ এএম says : 0
দুনিয়ার সাথে দৌড়ে দৌড়ে সঠিক পথ থেকে সিটকে পরেছিলাম হঠাৎ একদিন এই মানুষটির আলোচনা অন্তর ছুঁয়ে গেল। সিদ্ধান্ত নিলাম সরল সঠিক আল্লাহর পথে ফিরে আসতে হবে, আলহামদু লিল্লাহ্ ফিরে এসেছি। তার জন্য কিছু করার ক্ষমতা আমার নেই, অন্তর থেকে দোয়া করি হে আল্লাহ! আপনি তাকে তার পরিবারের কাছে আপনার হেফাজতে ফিরিয়ে দিন।
Total Reply(0)
Rohima Siddika Lucky ১৮ জুন, ২০২১, ৩:২৮ এএম says : 0
মানুষের দোয়ায় অনেক শক্তি।আসুন আমরা সবাই আবু ত্বহা মোহাম্মদ আদনান এর জন্য দোয়া করি,,মহান আল্লাহ যেন তাঁকে আমাদের মাঝে সুস্থ ভাবে ফিরিয়ে দেন
Total Reply(0)
মাহদী হাসান মুর্তযা ১৮ জুন, ২০২১, ৩:২৮ এএম says : 0
কেমন দেশে বাস করছি, যেখানে একজন সাধারণ নাগরিকের স্ত্রী বলছেন '' আমার স্বামীকে ফিরিয়ে দিন, প্রয়োজনে দেশ ছেড়ে চলে যাব"। কতটা অসহায় হলে এমন কথা বলতে পারে! এক থানা থেকে আরেক থানা ঘুরে ঘুরে জুতোর তলা ক্ষয় করে ফেলতে হলো, স্বাধীন দেশের নাগরিক হয়ে। একটা জিডি করতে গিয়ে কী হয়রানির শিকারই না হলেন আবু ত্বহা আদনান সাহেবের স্ত্রী। এই তবে স্বাধীনতা! এই হল আমাদের বিচারব্যবস্থা!!
Total Reply(0)
Aminur Rasul ১৮ জুন, ২০২১, ৩:২৯ এএম says : 0
উনি জেরুজালেমে, ইসরায়েল তথা ইয়াহুদী এবং কুরআনে বর্ণীত তথ্য গুলো তুলে ধরেছিলেন সুতরাং এতে প্রমান হয় এদেশে ঘাপটি মেরে থাকা দজ্জাল এবং ইসরায়েলের অনুসারীরা এই করেছে। আল্লাহ তুমি ত্ব হা মোহাম্মদ আদনান কে তার পরিবার এবং আমাদের কাছে সুস্থ অবস্থায় ফিরিয়ে দাও, আমীন
Total Reply(0)
Tanvir Ahamed ১৮ জুন, ২০২১, ৩:২৯ এএম says : 0
আবু ত্ব-হা আদনান ভাই একজন সম্ভাবনাময় দ্বায়ী ইলাল্লাহ। তিনি মানুষকে আল্লাহর পথে ডাকেন। একজন মানুষ, তিনজন সফরসঙ্গী সহ বাতাসে মিলিয়ে যাবে, তার কোন খোঁজ পাওয়া যাবে না, তিনি কোথায় আছেন, কীভাবে আছেন তা জানা যাবে না- বিশ্বায়নের দুনিয়ায় তা একেবারেই অসম্ভব! আমি আমার ভাই আবু ত্ব-হা আদনানের খোঁজ চাই। সুস্থ-স্বাভাবিক, নিরাপদ-নির্বিঘ্নতার সাথে তার পরিবার তাকে ফিরে পাবে- কায়মনোবাক্যে আল্লাহর কাছে এটাই প্রার্থনা করি।
Total Reply(0)
Md Kabir ১৮ জুন, ২০২১, ৩:৩১ এএম says : 0
সারাদেশ এখন পরিমনি কে নিয়ে ব্যস্ত, অথচ একটা জলজ্যান্ত মানুষ আট দিন ধরে নিখোঁজ তার প্রতি কেউ ভ্রুক্ষেপ ও করছেন না। এই মানুষটি কে কখনো রাজনৈতিক বক্তব্য দিতে শুনিনি। কে বা কারা কোন উদ্দেশ্যে তাকে অপহরণ করেছে তাও জানি না। শুধু জানি এক-দুই জন মোল্লা মুন্সি কে চুপ করিয়ে দিতে পারলেই বুঝি ইসলাম শেষ হয়ে যাবে?? বোকার স্বর্গে বাস করছো। ইসলামের শুরু থেকে আজকের দিন পর্যন্ত ইসলামের বিরুদ্ধে যত ষড়যন্ত্র হয়েছে তা অন্য কোন ধর্মের বিরুদ্ধে হয়নি। তারপরে ও মাত্র ১৫০০ বছরে মুসলিমরা পৃথিবীর ২য় বৃহত্তম জনগোষ্ঠী। আমার আল্লাহর ওয়াদা " আমি নাজিল করেছি আমিই হেফাজতের দায়িত্ব নিলাম"
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন