বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৪ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

নোয়াখালীর সূবর্ণচরে সাবেক স্বামী মাথা ফাটিয়ে দিল, ৯৯৯-এ কল পেয়ে উদ্ধার

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ জুন, ২০২১, ৮:৫৫ পিএম

সুবর্ণচরে পারিবারিক বিরোধের জেরে সাবেক স্বামী টর্চলাইট দিয়ে পিটিয়ে শারমিন আক্তার (২২) নামে এক নারীকে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে । ভুক্তভোগী বর্তমানে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

গতকাল রোববার (২০ জুন) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার ৫নং চরজুবিলী ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম চরজব্বার গ্রামের দেলোয়ারের বাড়ীতে এই ঘটনা ঘটে। জাতীয় জরুরী সেবা নম্বর ৯৯৯-এ আহতের বড় ভাই সাজ্জাদ ফোন করলে চরজব্বার থানা পুলিশ ওই নারীকে উদ্ধার করে এবং অভিযুক্ত সাবেক স্বামী জহিরুল ইসলামকে (৩৫) আটক করে। আটককৃত জহিরুল ইসলাম ৫নং চরজুবলী ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে।


ভুক্তভোগীর বাবার লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালে চরজুবলী ইউনিয়নের দক্ষিণ চরবাগ্যা গ্রামের মোস্তাফিজুর রহমান ওরফে মোস্তফা সর্দারের ছেলে জহিরুল ইসলাম (৩৫) সাথে তার মেয়ের বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকে প্রায় যৌতুকের জন্য শারমিনকে মারধর করতো। জহিরের নির্যাতনে ১ বছর আগে শারমিন জহিরকে ডিভোর্স দিয়ে দেন। বিয়ের পূর্বেই জহিরুল নানা কৌশলে শারমিনের বাড়ির সামনে ঘর করার জন্য শ্বশুর দেলোয়ারের কাছ থেকে কিছু জমি রেজেস্ট্রি করে নেয়। বিগত ৪ মাস আগে সালিশ বৈঠকে জহিরুলের সাথে শারমিনের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। সালিশ বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শারমিনের ঘরে জন্ম নেয়া ২ সন্তান ফারিয়া ইসলাম (৬) এবং সাইদুল ইসলামকে (৪) জহিরুল নিয়ে যায়। ৩ মাস আগে জহির পুনরায় বিয়ে করেন। বিয়ে করার পর জহির ফারিয়াকে তার পিতা মোস্তাফিজের কাছে রেখে আসেন এবং ছোট ছেলে সাইদুলকে তার কাছে রেখে দেন। বিগত কিছুদিন ধরে জহিরের নতুন স্ত্রী পারুল বেগম প্রায় সাইদুলকে মারধর করে। শারমিনের বাড়ির সামনে সাবেক স্বামীল ঘর হওযায় শারমিন তার শিশু ছেলের ওপর নির্যাতন দেখতে পায়। গতকাল ২০ জুন সন্ধ্যায় পুনরায় সৎমা পারুল সাইদুলকে মারধর করলে সাইদুলের চিৎকার শুনে শারমিন বাড়ির দরজায় দাঁড়িয়ে বিষয়টি দেখতে থাকে। একপর্যায়ে পারুল শারমিনকে দেখে সাইদুলকে মারধরের কথা জিজ্ঞেস করলে পারুল অন্য রুমে গিয়ে জহিরুলকে ফোন করে জহিরের নির্দেশ মত পারুল ঘরের দরজা আটকে দেয়। কিছুক্ষণ পর জহির এসে ঘরে প্রবেশ করে শারমিনকে টর্চলাইট দিয়ে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে শারমিনের মাথা ফাটিয়ে দেয়।

চরজব্বার থানার ওসি জিয়াউল হক বলেন, শারমিনের বাবা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। ওই মামলায় আটককৃত আসামীকে গ্রেফতার দেখিয়ে আগামীকাল মঙ্গলবার বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন