ঢাকা শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

রাশিয়াকে বিধ্বস্ত করে শেষ ষোলতে ডেনমার্ক

ফিনল্যান্ডকে উড়িয়ে বেলজিয়ামের তিনে তিন

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ জুন, ২০২১, ২:৫৭ এএম | আপডেট : ৪:৫৯ পিএম, ২৫ জুন, ২০২১

ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের ‘বি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে রাশিয়াকে বিধ্বস্ত করে শেষ ষোলতে নাম লেখালো ডেনমার্ক। সোমবার কোপেনহেগেনের পার্কেন স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় শুরু হওয়া ম্যাচে ডেনমার্ক ৪-১ গোলের জয় তুলে নেয়। একই সময়ে রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে গ্রুপের আরেক ম্যাচে আগেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত করা বেলজিয়াম ২-০ ব্যবধানে ফিনল্যান্ডকে হারিয়ে তিন ম্যাচের তিনটিতেই জিতে গ্রুপ সেরা হয়। 

ডেনমার্কের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি রাশিয়া। ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল উপহার দিয়ে ডেনিশরা কোনঠাসা করে ফেলে রুশদের।আসরের প্রথম দুই ম্যাচে হারের তেতো স্বাদ পেলেও গ্রুপের শেষ ম্যাচে নিজেদের দারুণভাবে মেলে ধরে ডেনমার্ক। নজরকাড়া পারফরম্যান্সে তারা উড়িয়ে দেয় রাশিয়াকে।

এই গ্রুপে বেলজিয়াম তিন ম্যাচে ৯ পয়েন্ট পেলেও ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড ও রাশিয়ার সমান ৩ পয়েন্ট করে। গোল পার্থক্যে দ্বিতীয় হয়েছে ডেনমার্ক। তৃতীয় হওয়া ফিনল্যান্ডের আশা এখন ছয় গ্রুপের তৃতীয় স্থান পাওয়া দলগুলোর সেরা চারটির একটি হয়ে পরের রাউন্ডে যাওয়ার। আর ডেনিশদের কাছে হেরে আসর থেকে বিদায় নিতে হলো রাশিয়াকে। ম্যাচে বল দখলের লাড়াইয়ে শুরু থেকে ডেনমার্ক আধিপত্য দেখালেও গোলের প্রথম সুযোগটি পায় রাশিয়া। ১৬ মিনিটে বল নিয়ে খানিকটা এগিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে আলেকজান্ডার গোলোভিনের নেয়া শট পা দিয়ে ফেরান গোলরক্ষক কাসপের স্মাইকেল।

৩১ মিনিটে প্রতিপক্ষ গোলবারে প্রথম শট নেয় ডেনমার্ক। ডি-বক্সের বাইরে থেকে পিয়ের-এমিলে হোয়বিয়ের্গের প্রচেষ্টা লক্ষ্যে থাকেনি। সাত মিনিট পর মিকেলের অসাধারণ এক গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

হোয়বিয়ের্গের বাড়ানো বল ডি-বক্সের সামনে পান তরুণ এই মিডফিল্ডার। প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে তার ডান পায়ের জোরালো শট জালে জড়ায় (১-০)।

৫৯ মিনিটে প্রতিপক্ষের মারাত্মক ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ইউসুফ পোলসেন। রাশিয়ান মিডফিল্ডার দালের কুজিয়ায়েভ ব্যাকপাস দেন গোলরক্ষকের উদ্দেশে, কিন্তু বল পান পোলসেন। সহজেই তা জালে ঠেলে দেন তিনি (২-০)।ম্যাচের ৭০ মিনিটে সফল স্পট কিকে ব্যবধান কমান রাশিয়ার আর্তেম জুবা। আলেকজান্ডার সবোলেভ ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় রাশিয়া। স্পট কিক থেকেই গোল করেন জুবা (২-১)।সফরকারীরা যখন ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছিল ঠিক তখন তিন মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল করে রাশিয়ার স্বপ্ন ভেঙে চুরমার করে দেয় ডেনমার্ক। ৭৯ মিনিটে ২৫ গজ দূর থেকে চমৎকার এক গোল করেন আন্দ্রেয়াস ক্রিস্তেনসেন(৩-১)। আর ৮২ মিনিটে স্কোরলাইন বড় করেন হোয়াকিম। এসময় বাঁ দিক দিয়ে বল নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে দারুণ ফিনিশিংয়ে গোল করেন তিনি (৪-১)। শেষ পর্যন্ত এই ব্যবধানের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে ডেনিশরা। প্রথম দুই ম্যাচ হেরে যে ডেনমার্ক পড়েছিল বিদায়ের শঙ্কায়, তারাই শেষ পর্যন্ত অবিশ্বাস্যভাবে উঠে গেল শেষ ষোলয়। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ওয়েলস।

এ মাঠেই প্রথম ম্যাচে ফিনল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথমার্ধের শেষ দিকে হাঁটতে হাঁটতে হঠাৎ পড়ে যান ডেনিশ মিডফিল্ডার এরিকসেন। মাঠে চিকিৎসা দেয়ার পর তাকে নেয়া হয়েছিল হাসপাতালে। অস্ত্রোপচারের পর গত শুক্রবার হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান এরিকসেন। প্রতিটি ম্যাচেই গ্যালারিতে তাকে আলাদাভাবে স্মরণ করেছেন ডেনমার্কের দর্শকরা।

এদিকে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথমবার খেলতে এসেই নকআউট পর্বে ওঠার মঞ্চ প্রায় তৈরি করে ফেলেছিল ফিনল্যান্ড। রক্ষণাত্মক ফুটবলে বিপজ্জনক বেলজিয়ামকে অনেকটা সময় আটকে রাখলেও শেষ পর্যন্ত আর পেরে ওঠেনি তারা। টানা তৃতীয় জয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই পরের ধাপে পা রাখলো বেলজিয়াম।

রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে বেলজিয়ামের সঙ্গে সমানে সমান লড়াই করলেও ৭৪ মিনিটে পিছিয়ে পড়ে ফিনল্যান্ড। এসময় ডে ব্রুইনের কর্নারে টমাস ভারমালেনের হেড ঠেকানোর চেষ্টা করেননি গোলরক্ষক লুকাস, বল পোস্টের ওপরের দিকে লেগে ফেরার পথে তার হাতে লেগে গোললাইন অতিক্রম করে (১-০)।

এর সাত মিনিট পরেই ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় ফিনল্যান্ড। ডে ব্রুইনের পাস পেয়ে আসরে নিজের তৃতীয় গোলটি করেন ইন্টার মিলানের বেলজিয়ান তারকা লুকাকু (২-০)। কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে বেলজিয়ামের প্রতিপক্ষ হবে চার সেরা তৃতীয় দলের একটি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন