বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

কলকাতায় প্রশংসা কুড়াচ্ছে বাংলাদেশের ‘মহানগর’

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ জুন, ২০২১, ১১:০০ এএম

দেশের জনপ্রিয় নির্মাতা আশফাক নিপুনের ওয়েব সিরিজ মহানগর এখন দুই বাংলাতেই রয়েছে আলোচনায়। এতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন অভিনেতা মোশাররফ করিম। ওপার বাংলার দর্শকরা মোশাররফ করিমের অভিনয়ে মুগ্ধতা প্রকাশ করছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সোমবার (২৮ জুন) ওয়েব সিরিজটি নিয়ে বিশেষ প্রতিবেদন করেছে কলকাতার জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম ‘আনন্দবাজার’।

রাজধানী ঢাকার পটভূমিকায় তৈরি এই ওয়েব সিরিজ। ভারতীয় ওয়েব প্ল্যাটফর্ম হইচইয়ে মুক্তি দেওয়া হয় ওয়েব সিরিজটি। আট পর্বের এই সিরিজে মোশাররফ করিম ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন জাকিয়া বারি মম, শ্যামল মাওলা, মোস্তাফিজুর নূর ইমরান এবং খাইরুল বাশার।

আট পর্বের এই ওয়েব সিরিজের পর্বগুলোর নাম-‘ঈশানের মেঘ’, ‘চিচিং ফাঁক’, ‘শাপে বর’, ‘গলার কাঁটা’, ‘অমাবস্যার চাঁদ’, ‘অন্ধের যষ্ঠি’, ‘গোড়ায় গলদ’ এবং ‘কিস্তিমাত’। পরিচালক একটি থ্রিলার নির্মাণ করতে চেয়েছেন বলেই সম্ভবত এই সব সাংকেতিক উপ-শিরোনাম দিয়েছেন বলে মত আনন্দবাজারের।

আনন্দবাজার তাদের প্রতিবেদনে লিখেছে, ‘ঢাকার পটভূমিকায় তৈরি ওয়েব সিরিজ ‘মহানগর’। এখানে যে দুর্নীতির তুলে ধরা হয়েছে, তা অনেক দেশের মহানগরেই অহরহ ঘটে। শহরের অভিজাত বৃত্তের এক রাতের পার্টি থেকে ঘটনা শুরু হয়। শিল্পপতি-রাজনীতিবিদ আলমগীর চৌধুরীর দাপুটে ছেলে আফনান চৌধুরী ক্ষমতার দর্পে তাস খেলাতেও হারতে চায় না। এটুকুতেই তার মুড খারাপ হয়ে যায়।

দেখা যায়, নিজের বান্ধবীকে তুচ্ছ করে সে পার্টি থেকে বেরিয়ে আসে। এর পর বেসামাল আফনানের গাড়িতে চাপা পড়ে একজন সাধারণ মানুষ। পুলিশ তাকে থানায় ধরে নিয়ে এলে চারদিকে হইচই পড়ে যায়। আলমগীর চৌধুরী যে কোনও মূল্যে ছেলেকে ছাড়ানোর জন্য প্রতিনিধি পাঠায় থানায়। ওসি বড় অঙ্কের টাকা ঘুষ নেন। আফনানকে বাঁচানোর চেষ্টা করেন।

কিন্তু থানার এসি শাহানা সৎ, সে আফনান চৌধুরীকে প্রভাবশালী ব্যক্তির পুত্র হিসেবে কোনও ছাড় দিতে রাজি নয়। সাব-ইন্সপেক্টর মলয়ও ছুটে বেড়ায় সত্যের সন্ধানে। সারা রাত এই সব নিয়ে থানায় জমজমাট নাটক। ঘুষের টাকার জোরে আফনানকে কি থানা থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যেতে পারে তার প্রভাবশালী বাবা? এখানেই চমক।

দেখা যায়, আফনানকে পুলিশ শেষ পর্যন্ত ছাড়ে না। নিয়ে যায় আদালতে। ঘুষ নেওয়ার দায়ে ওসি হারুন গ্রেফতার হয় ঠিকই, কিন্তু তার বুদ্ধিতেই আফনানের অন্য অপরাধের কথা বেরিয়ে আসে। অ্যাক্সিডেন্টের থেকেও বড় অন্যায় সে করে এসেছিল পার্টিতে।’

প্রতিবেদনে তারা আরও লিখেছে, অন্যায়কারী সাজা পাক, এটাই সব মানুষেরই চাওয়া। কিন্তু প্রভাবশালী ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে ‘বিচারের বাণী নীরবে নিভৃতে কাঁদে’। এখানে কী হবে? মানুষের এই স্বাভাবিক উৎকণ্ঠাকে মোটামুটি জাগিয়ে রাখতে পেরেই ‘মহানগর’ ওয়েব সিরিজটি দর্শক মহলে সাড়া ফেলেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন