শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮, ০৮ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বিয়ের সীমিত আয়োজনেও থমকে দিল বেরসিক পুলিশ!

দেবিদ্বার (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১ জুলাই, ২০২১, ৭:০৬ পিএম

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার জাফরগঞ্জ ইউনিয়নের শ্রীপুকুরপাড় গ্রামে বিয়ে বাড়ির সমস্ত আয়োজন বন্ধ করে দেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাকিব হাসান এবং থানার ওসি আরিফুর রহমান।


বাবা হারা অসহায় মেয়ে। একমাত্র মা কন্যা দায়গ্রস্ত থেকে মুক্ত হতে সীমিত আকারে আয়োজন করেছেন বিয়ের। সরকারি পরিপত্র কিংবা নিয়মের কোন কিছুই তাঁর মাথায় নেই। দিনরাত শুধু একটাই তাঁর চাওয়া অসহায় মেয়েকে সৎ পাত্রের সাথে বিয়ে দেয়া। এমন আয়োজনে হঠাৎ করে পুলিশ সাধলেন বাঁধ। এতে আকাশ যেন তার মাথায় ভেঙ্গে পড়লো। এ চিত্র কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার জাফরগঞ্জ ইউনিয়নের শ্রীপুকুরপাড় গ্রামে। বৃহস্পতিবার দুপুরে বিয়ের সংবাদে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাকিব হাসান এবং থানার ওসি আরিফুর রহমান একদল পুলিশ নিয়ে বিয়ে বাড়ি গিয়ে সমস্ত আয়োজন বন্ধ করে দেন।

স্থানীয় ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, ৮ বছর পূর্বে কনের বাবা আব্দুল হাকিম মারা যায়। একমাত্র মা’ই তাকে বাবার ভূমিকায় লেখাপড়া চালিয়ে যায়। এখন সে পারুয়ারা আব্দুল মতিন খসরু আদর্শ ডিগ্রী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী। প্রতিবেশীর চোখে ডাঙ্গর মেয়ে। আর মায়ের মাথার বোঝা। আত্মীয়-স্বজনের সহযোগিতায় ভাল পাত্র পাওয়ায় শুক্রবার তার বিয়ের দিনক্ষণ ধার্য ছিল। চোখে পড়ার মতো আয়োজন করায় কে-বা কারা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এতেই তারা বৃহস্পতিবার দুপুরে বিয়ে বাড়িতে গিয়ে সাজনো গেইট-পেন্ডেল খুলে ফেলেন।

জানা যায়, শ্রীপুকুরপাড় গ্রামের মৃত আব্দুল হাকিমের কন্যা সুমাইয়া আক্তারের সাথে বুড়িচং উপজেলার দেবপুর গ্রামের হরিনধরা গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে মালয়েশিয়া প্রবাসী আরিফ হোসেনের বিয়ের পাকা কথা হয়। বিয়ে সম্পন্ন করতে শুক্রবার দুপুরে বরযাত্রী আসার কথা রয়েছে।

এ ব্যাপারে কনের ভাই সোহেল আহমেদ জানান, বাবা বেঁচে নেই। আমাদের তিন ভাইয়ের আদরের একমাত্র ছোট বোন কনে। তাই ভালো বর পেয়ে হাতছাড়া করতে চাইনি। সখের বসে গেইট-পেন্ডেল থেকে নানা আয়োজনে ঘাটতি ছিল না। করোনার কারণে খুব বেশী লোকের আয়োজন করিনি। প্রশাসনের বাঁধার মুখে এখন ঘরোয়া পরিবেশে বিয়ে সম্পন্ন করে নেব।

দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাকিব হাসান দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, বিয়েটা শুক্রবার হওয়ার কথা। করোনা কালে বিয়ের সংবাদে কনের পক্ষ যেন অতিথি সমাগম না করে এবং দু’পক্ষের কয়েকজনকে নিয়ে বিয়ে সম্পন্ন করার কথা বলে এসেছি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন