শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৬ কার্তিক ১৪২৮, ১৪ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

দেবিদ্বারে সাংবাদিকসহ একই পরিবারের ৩ জনকে কুপিয়ে জখম

দেবিদ্বার (কুমিল্লা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২ জুলাই, ২০২১, ৭:২৯ পিএম

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের সূরপুর গ্রামে হামলায় আহত সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম, তার ভাই সায়েদ আলী ও ভাবী দেলোয়ারা বেগমকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।


কুমিল্লার দেবিদ্বারে পারিবারিক রাস্তা নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় সাংবাদিকসহ একই পরিবারের ৩জন মারাত্মক আহত হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। শুক্রবার দুপুর ১২টায় উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের সূরপুর গ্রামের ফজলু মেম্বারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর স্থানীয়রা মারাত্মক জখম ও রক্তাক্ত অবস্থায় সূরপুর গ্রামের মৃত ইউছুফ আলীর পুত্র সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম (৩০), তার ভাই সায়েদ আলী (৩৫) ও ভাবী দেলোয়ারা বেগমকে (২৭) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, ফজলু মেম্বারের বাড়িতে যাতায়াতের একটি রাস্তা মৃত সাদত আলীর ছেলে সেলিম মিয়া (৪০) নিজেদের জায়গা দাবি করে বৃহস্পতিবার বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দেয়। এতে প্রায় অর্ধশত বছর ধরে চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়ায় মৃত ইউছুব আলীর পরিবারের লোকজন বাড়িতে আটকা পড়ে। পরে গ্রামবাসীদের সহায়তার সড়কটি চালু করে দেয়।

আহত সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম জানান, শুক্রবার দুপুরে ওই রাস্তা দিয়ে বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় তার চাচাতো ভাই সেলিম মিয়া বাঁধা দেন এ নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে সেলিম ও তার স্ত্রী তাছলিমা আক্তার, বোন জামাই সুমন আহমেদ ও সেলিমের ছোট ভাইয়ের স্ত্রী লাকি আক্তার এবং প্রতিবেশী কাদের মিয়ার পুত্র জুয়েল ও কুরছাপ গ্রামের জামাল হোসেন’র পুত্র রিয়াদ হাসান তার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। তারা তাকে লাঠি, ধারালো চাপাতি, দা দিয়ে বেধরক পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে। তার সূর চিৎকারে তার ভাই সায়েদ আলী ও ভাবী দেলোয়ারা বেগম তাকে উদ্ধারে এগিয়ে এলে তাদেরকেও পিটিয়ে এবং কুপিয়ে জখম করে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সেলিম মিয়া জানান, রাস্তার জায়গাটি আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি। তাই রাস্তাটি বন্ধ করে দেই। আমার চাচাতো ভাই মনিরুল জোর করে বেড়া ভেঙ্গে রাস্তা ব্যবহার করতে থাকে। বাঁধা দিলে সে আমার উপর চড়াও হয়। আমার পরিবারের সদস্যরা আমাকে রক্ষা করতে এলে ওদের সাথে হাতাহাতি হয়।

দেবিদ্বার থানার ওসি আরিফুর রহমান দৈনিক ইনকিলাবকে জানান, এ ঘটনায় একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন